ঢাকা, সোমবার , ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১ পৌষ ১৪২৬, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বাবরি মসজিদের পর এবার তাজমহলকে শিব মন্দির দাবি হিন্দুদের!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:৪১ পিএম

ভারতের অযোধ্যর ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের জায়গায় ভারতের সুপ্রিম কোর্ট রাম মন্দির বানানোর নির্দেশ দেয়ার পর এবার মুসলিম সালতানাত মুঘল সম্রাট শাহজাহানের স্ত্রী মুমতাজের স্মৃতির অপূর্ব সৌধ ও ইসলামীক স্থাপত্যের নিদর্শন তাজমহলকে দেশটির উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা নিজেদের শিব মন্দির হিসেবে দাবি করেছে।
ভারতের বিভিন্ন হিন্দু সংগঠনের দীর্ঘ দিনের দাবি, তাজমহল আসলে শিবের মন্দির। নাম তেজো মহালায়া। এটা আদৌ মুসলমানদের তৈরি সৌধ নয়। প্রাচীনকালে হিন্দুদের তৈরি শিব মন্দির।
এমন দাবি নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়েছে। এবার সেই পুরনো দাবিতে নতুন করে সরব হল শিবসেনা। দলের দাবি, তাজমহল কোনও মুসলিম সৌধ নয়, হিন্দু মন্দির। তাজমহল চত্বরে শিব ভক্তরা প্রত্যেক সোমবার শিবের পূজা এবং যজ্ঞের আয়োজন করতে চায়।
সম্প্রতি উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল শিব সেনার আগ্রা শহর কমিটির সভাপতি ভিনু লাভানিয়া হুমকি দিয়ে বলেছেন, তাজমহল কোনও মুসলিম সৌধ নয়। এটা তেজো মহালয়া, ভগবান শিবের মন্দির। আমরা গোটা শ্রাবণ মাসজুড়ে প্রতি সোমবার তাজমহলে ঢুকে যজ্ঞ এবং পুজা করতে চাই। শুধু তাই নয়, আগামী সোমবার যে কোনোভাবে তারা তাজমহলে ঢুকবেই। প্রশাসন বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তার ফল ভাল হবে না।
আর এই হুমকির পরই আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া যোগী সরকারকে একটি চিঠি লিখে তাজমহলের নিরাপত্তা বাড়াতে অনুরোধ করেছে। আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ১৯৫৮ সালের প্রতœতত্ত¡ আইন অনুযায়ী কোনও পুরাতাত্তি¡ক সৌধে পুজা বা কোনও ধর্মীয় আচরণ নিষিদ্ধ।
উল্লেখ্য, ১৬৩২-১৬৫৩ সালে নির্মিত ভারতের উত্তর প্রদেশে আগ্রায় অবস্থিত একটি রাজকীয় সমাধি তাজমহল। মুসলিম সালতানাত মুঘল সম্রাট শাহজাহান তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী আরজুমান্দ বানু বেগমের (যিনি মুমতাজ মহল নামে পরিচিত) স্মৃতির উদ্দেশে এই তাজমহল নির্মাণ করেন। বিশ্বের সপ্তম আশ্চর্যের অন্যতম তাজমহল। ১৯৮৩ সালে ইউনেস্কো বিশ্বঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে এটি তালিকাভুক্ত করে। তখন থেকেই একে বিশ্ব ঐতিহ্যের সর্বজনীন প্রশংসিত শ্রেষ্ঠকর্ম হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
সাইফুল ইসলাম চঞ্চল ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৭ পিএম says : 0
এইটা জীবনেও করবে না কারন এটা হলো ওদের টাকা কামানোর একটা যায়গা তাই এটা কখনোই করবেনা।
Total Reply(1)
Yourchoice51 ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:৪৭ পিএম says : 0
এক্কেবারে খাঁটি কথা বলেছেন।
Moshiur Rahman ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৭ পিএম says : 0
মুসলমান রা ৭০০ বছর ভারত শাসন করেছে এবং তিলে তিলে ভারতকে সাজিয়েছে , ভারতের যা কিছু সুন্দর সবই মুসলমানদের অবদান
Total Reply(1)
Yourchoice51 ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৩ পিএম says : 0
মুসলিমরা প্রচুর অপচয়ও করেছে মানুষের কাছ থেকে বাহবা পাওয়ার জন্য; আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য নয়। এর বহু প্রমাণও দুনিয়াতে রয়েছে।
Mohammad Ibrahim ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৫ পিএম says : 0
এই চক্রান্ত তাদের "বাবরি মসজিদ রায়ে ফুটে উঠেছে",বিশ্ব মুসলীমগণ অবগত।
Total Reply(0)
Asif Salauddin ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৫ পিএম says : 0
ভারত সরকার বাবরী মসজিদ এর ন্যায় তোমরা তাজমহল ও গুরিয়ে দাও,জেনে রেখ এবার তোমাদের অর্থনীতি ও তোমরা নিজ হাতে শেষ করতে যাচ্ছ
Total Reply(0)
Ahmed Saleh Hawlader ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৬ পিএম says : 0
তাজমহল ঘুরতে কতো দর্শনার্থীরা সেখানে যায় আর এর থেকে অনেক আয় ও হয়, ..... হলে হিসু দিতেও কেউ যাবেনা
Total Reply(0)
Saiful Islam ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৬ পিএম says : 0
একে একে সব কিছুর দাবি করবে
Total Reply(0)
Sumon Ahmed Ibrahim ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৬ পিএম says : 0
এটা দোষের কি? তাজমহল তো মন্দিরের চেয়েও জঘন্য।
Total Reply(0)
Md Abdul Baten Sorkar ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:০৬ পিএম says : 0
এগুলো ভাঙ্গার কারণ হবে ভারত পতনের মূল এবং ধ্বংসের মূল এবং খন্ড দ্বিখন্ড হওয়ার মূল কারণ। তাই আমি ভারতকে বলতে চাই অতি তারাতারি জুলুম অত্যাচার থেকে বেরিয়ে আসুন।
Total Reply(0)
muhammad hasan ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:৫০ পিএম says : 0
হিন্দুদের এসব অনৈতিক কর্মকাণ্ড গুলো এখানেই না রুখা গেলে ভবিষ্যতে এটি চরম বিপর্যয় ঢেকে নিয়ে আসবে। তারা শুধু মাত্র মুসলমানদের সাথে নয়, বরং এগুলোর মাধ্যমে তারা প্রতি পাড়ায় পাড়ায় প্রতিহিংসা ছড়িয়ে দি।
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন