ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯ আশ্বিন ১৪২৭, ০৬ সফর ১৪৪২ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

দক্ষিণাঞ্চলে ঈদের খুশি বঞ্চিত সঞ্চয়পত্র গ্রাহকগণ চরম দুর্ভোগে

প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বরিশাল ব্যুরো : ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মাসের শুরুর ৬ দিনসহ টানা নয় দিনের বন্ধে সারা দেশের মতো দক্ষিণাঞ্চলের কয়েক লাখ সঞ্চয়পত্র গ্রাহক মাসিক ও ত্রৈমাসিক মুনফা তুলতে না পারায় এবার ঈদের আনন্দ ¤øান হয়েছে। ঈদের পরেও তা নিয়ে জটিলতা অব্যাহত রয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে পরিবার সঞ্চয়পত্র এবং পেনসনার সঞ্চয়পত্রসহ সব ধরনের সঞ্চয়পত্রের মাসিক এবং ত্রৈমাসিক মুনফা ও আসল টাকা গ্রাহকের ব্যাংক হিসেবে ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফর-ইএফটি সিস্টেম প্রদানের কথা থাকলেও ঈদের টানা ৯ দিনের বন্ধের পরে গত তিন কর্মদিবসেও সে অর্থ গ্রাহকের হিসেবে স্থানান্তর হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। ‘ইএফটি’- সিস্টেমে এসব মুনফার অর্থ গ্রাহকের যেকোনো অনলাইন ব্যাংকের হিসেবে অটোমেশন পদ্ধতিতে জমা হবার কথা। কিন্তু গত ১ জুলাই থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত যেসব গ্রাহকের মুনফা পাবার কথা, তা গতকাল দুপুর পর্যন্ত স্থানান্তর হয়নি।
ফলে ১ জুলাই থেকে ঈদের আগে পর্যন্ত ব্যাংক বন্ধ থাকায় সঞ্চয়পত্রের ইএফটি পদ্ধতিতে মুনফালাভকারী গ্রাহকগণ যে দুর্ভোগে পরেন, তা গতকাল পর্যন্তই অব্যাহত ছিল। ঈদের আগে মুনফার অর্থ না পেয়ে সঞ্চয়পত্রের উপর নির্ভরশীল অনেক গ্রাহকের ঘরেই এবার ঈদ পর্যন্ত হয়নি। অনেকে সন্তানÑসন্ততির মুখের দিকে তাকিয়ে ধার দেনা করে আনন্দের(?) ঈদ অতিবাহিত করেও গতকাল দুপুর পর্যন্ত তাদের হিসেব মুনফার কোনো অর্থ দেয়নি বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে তাদের বিড়ম্বনার কোনো শেষ ছিল না।
অথচ বাংলাদেশ ব্যাংকের বরিশাল অফিসে ইফটি পদ্ধতিতে সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকের ব্যাংক হিসেব মুনাফা ও আসল টাকা স্থানান্তরের ব্যানার পর্যন্ত ঝোলানো হয়েছে। সঞ্চয়পত্র শাখা থেকে গ্রাহকদের এ ব্যাপারে উদ্বুদ্ধও করা হচ্ছে। কিন্তু এবারের ঈদের আগে-পড়ের অভিজ্ঞতা এসব গ্রাহককে যথেষ্ঠ কষ্ট দিচ্ছে। গত রোববার থেকে গ্রাহকগণ নিজ নিজ ব্যাংকে খোঁজ নিয়েও হিসেবে কোনো টাকা জমা না হওয়ায় প্রতিদিন ব্যাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখায় ধর্ণা দিচ্ছেন। সেখান থেকেও বিষয়টি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সদর দফতরের বিষয় বলে জানান হয়েছে। টানা বন্ধের কারণে কিছু সমস্যা হলেও আজকালের মধ্যে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে বলেও জানানো হচ্ছে গ্রাহকদের।
এ ব্যাপারে গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের বরিশাল অফিসের জেনারেল ম্যনেজারের সাথে টেলিফোনে আলাপ করা হলে তিনি জানান, দীর্ঘ ছুটির কারণে কিছু জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি ব্যাংকের হেড অফিসে খোঁজ-খবর নিয়েছেন। আজকালের মধ্যেই সব গ্রাহকের অ্যাকাউন্টেই টাকা চলে যাবে বলেও জানান তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন