ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৫ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

সুসংবাদ শোনালেন মাহমুদউল্লাহ-সাকিব

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাস আতঙ্কের মাঝেই খুশির খবর দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ল বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনে। ফের বাবা হচ্ছেন সাকিব আল হাসান। এই খবরের রেশ না মিলিয়ে যেতেই আরেক আনন্দের খবর। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ঘরেও নতুন অতিথি। জাতীয় দলের এই তারকা ক্রিকেটার দ্বিতীয় সন্তানের বাবা হলেন। গতকাল নিজের অফিসিয়্যাল ফেসবুক পেজে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ জানান, সোমবার রাতে তাদের ঘরে এসেছে আরেকটি পুত্র সন্তান। সবার দোয়াও চাইলেন এই তারকা ক্রিকেটার।

২০১১ সালে জান্নাতুল কাওসার মিষ্টির সঙ্গে জীবনের নতুন এক ইনিংস শুরু হয় রিয়াদের। এরপর ২০১২ সালে জন্ম নেয় এই দম্পতির প্রথম সন্তান। যার নাম রাখেন রাঈদ। ফের পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রিয়াদ। করোনাভাইরাসের কারণে আপাতত ক্রিকেটের ব্যস্ততা না থাকায় পরিবারের পাশেই থাকছেন তিনি।

বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক নিজের ভেরিফাইড পেজে একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, গত রাতে আমরা দ্বিতীয় ছেলে সন্তান দ্বারা আশীর্বাদপুষ্ট হয়েছি। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’

দ্বিতীয়বারের মতো বাবা হতে চলেছেন সাকিব আল হাসানও। দেশসেরা এই অলরাউন্ডার মঙ্গলবার তার মেয়ে আলাইনা হাসান অউব্রির একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায়, অউব্রি নবজাতকের পোশাক হাতে দাঁড়িয়ে আছে। পোশাকটিতে লেখা, ‘ওয়েলকাম হোম (বাড়িতে স্বাগতম)।’

ছবিটি পোস্ট করে সাকিব লেখেন, ‘বিড় সিস্টারহুড।’ সাকিব এই ছবি পোস্ট করার পরই গুঞ্জন ওঠে দ্বিতীয়বারের মতো বাবা হতে চলেছেন সাকিব। সাকিবের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা গেছে, আবারও কন্যা সন্তানের বাবা হতে যাচ্ছে সাকিব-শিশির দম্পতি। এই মাসের শেষের দিকে তাদের পরিবারের নতুন অতিথি আসার কথা।

করোনাভাইরাসের কারণে খেলা না থাকায় পরিবারের সঙ্গেই সময় কাটছে মাহমুদউল্লাহর। এই সময়ে করোনার প্রকোপ না থাকলে পাকিস্তান সফরে থাকতো বাংলাদেশ। তবে স্ত্রীর পাশে থাকতে আগেই ছুটি নিয়ে রেখেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। অন্যদিকে জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ (প্রথম বছর সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ) হওয়া সাকিব যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে আছেন। ভ্রমণ করায় যুক্তরাষ্ট্র গিয়ে ১৪ দিন নিজেকে হোটেলবন্দী রেখেছিলেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন