ঢাকা শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ০৮ সফর ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

যুদ্ধজাহাজ যেন আমরাও তৈরি করতে পারি

নৌবাহিনীর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

আমরা কারও সঙ্গে যুদ্ধ করতে চাই না, আমরা শান্তি চাই। আমরা শান্তি চাই এটা যেমন সত্য, আবার যদি কেউ আমাদের ওপর হামলা করে, তা যেন আমরা যথাযথভাবে মোকাবিলা করতে পারি। তাই যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আধুনিক প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন প্রতিষ্ঠান আমরা গড়ে তুলতে চাই। সেখানে আমরা আমাদের সশস্ত্র বাহিনীকে রাখছি।

আমাদের সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী প্রত্যেকটা প্রতিষ্ঠান যেন আধুনিক জ্ঞান সম্পন্ন হয়। গতকাল গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বানৌজা ‘সংগ্রাম’-এর কমিশনিং অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। চট্টগ্রামের নৌঘাঁটি বিএনএস ঈসা খানে অনুষ্ঠিত মূল অনুষ্ঠানের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হন।

তিনি বলেন, আমাদের এই বিশাল সমুদ্রসীমা এবং সম্পদ রক্ষার জন্য নৌবাহিনীকে আরো শক্তিশালী করা প্রয়োজন এবং সেজন্য ইতোমধ্যেই অনেক আধুনিক সরঞ্জাম এবং জাহাজ আমরা ক্রয় করেছি। আমরা নিজেরাও এখন দেশে স্বল্প পরিসরে নৌবাহিনীর জাহাজ বানানো শুরু করেছি, মেরামত করছি এবং বন্ধুপ্রতীম দেশের সঙ্গে মিলে যেখানে যা প্রয়োজন তা করে যাচ্ছি। তবে, ভবিষ্যতে এ ধরনের জাহাজ যেন আমরা নিজেরাই তৈরি এবং রফতানি করতে পারি সেজন্য আমাদের জানতে হবে, শিখতে হবে এবং এই চিন্তাটাকেও মাথায় রাখতে হবে।

সর্বপ্রথম খুলনা শিপইয়ার্ডকে নৌবাহিনীর দায়িত্বে দেয়ার পাশাপাশি চট্টগ্রাম এবং নারায়ণগঞ্জের দুটি ড্রাইডককেও নৌবাহিনীর হাতে তুলে দিয়েছিলাম। তিনি কমিশনিং করা এই যুদ্ধ জাহাজ ‘বানৌজা সংগ্রাম’-এর জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে যোগদানে লেবাননে যাওয়ার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব, করো সঙ্গে বৈরিতা নয়- সেই নীতি নিয়েই আমরা চলব। কাজেই যেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠা দরকার সেখানে আমাদের ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা সবসময় অব্যাহত থাকবে। এই সহযোগিতা আমরা করে যাব। জাতিসংঘের সদস্যভ‚ক্ত দেশ হিসেবে এটাকে আমাদের কর্তব্য বলে আমরা মনে করি। তবে, অহেতুক ঝুঁকি না নিয়ে সকলে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করবেন। শেখ হাসিনা এ সময় কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেই দায়িত্ব পালনেরও পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, আমি নৌবাহিনীর সকল সদস্যকে বলব আপনার নিজেদের সুরক্ষিত রাখার চেষ্টা করেই স্ব-স্ব দায়িত্ব পালন করবেন। এই করেনাভাইরাসের সময় নিজেকে এবং পরিবারকে সকলে সুরক্ষিত রাখবেন। আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে এই সময় নৌ বাহিনীর সকল সদস্য এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের জন্য তিনি সর্বাঙ্গীন মঙ্গল ও দোয়া কামনা করেন। অনুষ্ঠানে নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি ক্রমে বানৌজা সংগ্রামের কমিশনিং ফরমান জাহাজটির অধিনায়ক ক্যাপ্টেন আরিফুর রহমানের কাছে হস্তান্তর করেন। ৯৬ সালে সরকার গঠনের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে সময় বিশ^মন্দা অব্যাহত থাকলেও তার সরকার দায়িত্বে এসেই অত্যাধুনিক ফ্রিগেট ‘বানৌজা বঙ্গবন্ধু’ ক্রয় করে এবং নৌবাহিনীকে আরো সুসংগঠিত এবং সুসজ্জিত করার উদ্যোগ গ্রহণ করে।

ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে আন্তর্জাতিক আদালতে সমুদ্রসীমা নির্ধারণের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করে আমাদের দুই প্রতিবেশী একদিকে মিয়ানমার আরেকদিকে ভারত, দুই প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেও আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করে আমরা আমাদের সমুদ্রসীমা অর্জন করেছি। অনুষ্ঠানে জাহাজটি নিয়ে একটি ভিডিও ডকুমেন্টারিও প্রদর্শিত হয়। গণচীনে তৈরী বানৌজা সংগ্রাম ৯০ মিটার দীর্ঘ এবং ১১ মিটার প্রস্থ বিশিষ্ট। শত্রæ বিমান, জাহাজ এবং স্থাপনায় আঘাত হানতে সক্ষম জাহাজটি আধুনিক প্রুযিুক্তিসম্পন্ন কামান, ভ‚মি থেকে আকাশে এবং ভ‚মি থেকে ভ‚মিতে উৎক্ষেপণযোগ্য মিসাইল, অত্যাধুনিক থ্রিডি রাডার, ফায়ার কন্ট্রোল সিস্টেম, রাডার জ্যামিং সিস্টেমসহ বিভিন্ন ধরনের যুদ্ধ সরঞ্জামাদিতে সুসজ্জিত। জাহাজটিতে হেলিকপ্টার অবতরণ ও উড্ডয়নের জন্য ডেক ল্যান্ডিংসহ অন্যান্য সুবিধাদি রয়েছে।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Saeed Md Humayun Kobir ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৩ এএম says : 0
ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী। তবে আপাতত ক‌রোনা ভাইরাস নি‌য়ে চিন্তা করুন । আমরা সবাই বিপদগ্রস্ত !
Total Reply(0)
Rajib Rahman ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৪ এএম says : 0
আমাদের দেশের নৌবাহিনীতে যুক্ত হয়েছে আরো একটি অত্যাধুনিক যুদ্ধ জাহাজ বানৌজা সংগ্রাম। অচিরেই আমাদের দেশের নৌবহরে যুক্ত হতে চলেছে আরও উন্নত জাহাজ।
Total Reply(1)
ark ১৯ জুন, ২০২০, ৬:১২ এএম says : 0
Sha Akram Kobi ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৫ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আপনি বাংলাদেশের সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করুন।
Total Reply(0)
Arshad Bd ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৫ এএম says : 0
পাশাপাশি আমরা পারমানবিক বোমা তৈরি করার দরকার। মায়ানমার আর ইন্ডিয়ার চোখে চোখ রেখে কথা বলতে হলে পারমাণবিক এর বিকল্প নেই।
Total Reply(0)
Rubaet Ahsan ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৬ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের যুদ্ধ জাহাজ দরকার নেই, আমাদের জনগনের মৌলিক চাহিদা গুলো সঠিক ভাবে পেতে পারি, সেদিকে একটু ভালভাবে নজর দিন।
Total Reply(0)
Ali Hasan ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৬ এএম says : 0
সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত। শুধু আমদানি করে সম্পদের ঘাটতি না করে, নিজের দেশে তৈরি করতে পারলে, নিজেদের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি বিদেশে রপ্তানি করলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটবে।
Total Reply(0)
Rajib Rahman ১৯ জুন, ২০২০, ১:০৬ এএম says : 0
আমাদের দেশের বিমান বাহিনীর জন্য অত্যাধুনিক চতুর্থ প্রজন্মের যুদ্ধবিমান কেনার সকল প্রকৃয়া চলমান। মেরিটাইম স্ট্রাইক ফোর্স যিদ্ধবিমান সহ সকল যুদ্ধ বিমান কয়েক ধাপে কেনা হবে।
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ১৯ জুন, ২০২০, ৫:৫৬ এএম says : 0
বিশালাকার সমুদ্র সম্পদ অর্থনীতি সম্ভাবনাময় খ‍্যাত ব্লুইকোনিমি প্রতিষ্ঠা করতে প্রযোজন আন্তর্জাতিক মানের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন অত‍্যাধনিক প্রযুক্তির যুদ্ধজাহাজ। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী আপনি আকাশ বিজয় সমুদ্র বিজয়ের সূর্য সারথী। বিশ্বের প্রভাবশালী নেতা দক্ষিণ এশিয়ার লৌহমানবী বিশ্ব মানবতার মা। আল্লাহর ইচ্ছায় আপনার সুদূর প্রশারী চিন্তা চেতনায় গভীর সমুদ্র বন্দর আন্তর্জাতিক জলসিমার জন্যে অর্থনীতি অপার সম্ভাবনার খ‍্যাত ব্লুইকোনিমির স্বার্থেই যুদ্ধজাহাজ সহ বিশালাকার পরিকল্পনা নেওয়া জরুরী। অত্যন্ত প্রযোজন। সময়ের গুরুত্বপূর্ণ দাবি। এটি একমাত্র আপনি পারবেন ইনশাআল্লাহ। মহান আল্লাহর দরবারে আপনার শারীরিক সুস্থতা দীর্ঘায়ু কামনা করছি।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন