ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

মংলা বন্দরে পণ্য খালাস বন্ধ

প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

খুলনা থেকে বিশেষ সংবাদদাতা : দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মংলা বন্দরে পণ্য খালাস বন্ধ করে দিয়েছে মংলা কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং (সিঅ্যান্ডএফ) এজেন্টস্ অ্যাসোসিয়েশন। মংলা শুল্ক ভবনে আমদানিকৃত পণ্য শুল্কায়ন ও খালাসের ক্ষেত্রে নানা হয়রানি বন্ধের দাবিতে আন্দোলনে নামছেন ব্যবসায়ীরা। এসব সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় গতকাল (বুধবার) আমদানিকৃত পণ্য শুল্কায়ন বন্ধ করে দেয় মংলা (সিএন্ডএফ) এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, অ্যাসোসিয়েশনর পক্ষ থেকে ৮ দফা দাবিতে মংলা কাষ্টমস হাউজের কমিশনারের নিকট লিখিত দাবি জানানো হয়েছে। এ নিয়ে বুধবার সকাল থেকে মংলা শুল্ক ভবনে বন্দর ব্যবহারকারীরা অবস্থান নেয়। ফলে সারাদিনই মংলা শুল্ক ভবন উত্তপ্ত ছিল।
এদিকে সমস্যা সমাধানে আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল সাড়ে ৯টায় দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। ব্যবসায়ীদের দাবিসমূহ হচ্ছে Ñ পণ্য শুল্কায়নের ক্ষেত্রে অ্যাসেকুডা ওয়ার্ল্ড প্লাসের (অংুপঁফধ ডড়ৎষফ চষঁং) মূল্য নির্ধারণ উপেক্ষা করে চট্টগ্রামসহ অন্যান্য শুল্ক ভবনের চেয়ে মংলা শুল্ক ভবনে বেশি হারে শুল্কায়ন মূল্য নির্ধারণ করা হচ্ছে এর সমাধান করা, পণ্য পরীক্ষণ-পুনঃপরীক্ষণের বিষয়টি বিবেচনা করা, ট্রাই সাইকেল পার্টস ক্ষেত্রে মূসক-৭-এর নির্দেশনা বাস্তবায়ন, গাড়ি শুল্কায়নের ক্ষেত্রে এক এল/সি এক ফাইলের মাধ্যমে শুল্কায়ন করা, গাড়ি বিভাগে লোকবল বৃদ্ধি, মালামাল বন্দরে আসলে পণ্য মূল্য নির্ধারণ ক্ষেত্রে কমপক্ষে ১৫দিন সময় লাগে এক্ষেত্রে পণ্য সাময়িক শুল্কায়ন পূর্বক পণ্য খালাসের ব্যবস্থা গ্রহণ, পণ্য ওয়েব্রিজে ব্যবহারে সার্বিক পদ্ধতি অনুসরণ করা এবং আমদানিকৃত পণ্যের যাবতীয় শুল্কায়ন হওয়ার পর পুনঃপরীক্ষার নামে হয়রানি বন্ধ করা।
মংলা কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়াডিং এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ সুলতান হোসেন খান বলেন, বিভিন্ন সময়ে আমরা এসব দাবিগুলি তুলে ধরেছি। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কোন সুরাহা করতে আগ্রহ দেখাননি। বাধ্য হয়েই আমদানিকৃত পণ্য শুল্কায়ন বন্ধ করে দিয়েছি। মংলা কাস্টম হাউজের কমিশনারের সাথে সাক্ষাৎ করে এসব সমস্যা সমাধানের দাবি জানিয়েছি। তিনি বৃহস্পতিবার (আজ) সকাল সাড়ে ৯টায় আমাদের সাথে এসব বিষয় নিয়ে বৈঠক করবেন।
কাষ্টমস কমিশনার ড. আল-আমিন প্রামাণিক বলেন, মংলা কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়াডিং এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে আবেদন পেয়েছি। আজ তাদের সাথে কথা বলবো।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন