ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কাজ করতে আসা শ্রমিকদের মধ্যে আরো ১১ জন করোনা পজেটিভ

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০২০, ৯:১০ পিএম

পটুয়াখালীর কুয়াকাটার ১৫ টি হোটেলে কোয়ারেইন্টাইনে থাকা ৩১৫ জনের মধ্যে প্রথম দফায় সনাক্ত ১৭ জনের পরে আজ আবার নতুন করে ১১ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন ।
পটুয়াখালীর পায়রা তাপ বিদুৃৎ কেন্দ্রে জনশক্তি সরবরাহকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাব কন্ট্রাকটারের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে পূর্বে পায়রা তাপ বিদুৎ কেন্দ্র কাজ করা ৩১৫ জন শ্রমিককে কুয়াকাটার ১৫ টি হোটেলে গত ২৭ জুন থেকে দুই দফায় নিয়ে এসে কোয়ারেইন্টাইনে রাখা হয়।
পরবর্তিতে গত ১১ জুলাই শনিবার সকালে কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অফিসিয়াল মেইলে ডাঃ ফরিদা হক মেমোরিয়াল ইব্রাহিম জেনারেল হসপিটাল, কোভিড-১৯ ডায়াগনস্টিক ল্যাব চন্দ্রা, কালিয়াকৈর, গাজীপুর (ঢ়ৎড়লবপঃপড়ারফ১৯ষধন@ফধন-নফ.ড়ৎম) থেকে একটি মেইল পায়। যেখানে লেখা রয়েছে মিস স্মিতা হিলটন, প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এন্ড ল্যাব ইনচার্জ। উল্লেখ রয়েছে, কুয়াকাটায় আটটি হোটেলে অবস্থান করা ১৭ শ্রমিক করোনা পজিটিভ। তাঁদের সকলের নাম, হোটেলের নাম পর্যন্ত উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে। পটুয়াখালী জেলা সিভিল সার্জনের মেইলেও এটি দেয়া হয়। এখবরটি গণমাধ্যমে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। করোনার কারনে তিন মাসেরও বেশি সময় পরে পহেলা জুলাই থেকে কুয়াকাটায় হোটেল-মোটেল খোলার পরে এ খবরে সর্বত্র করোনা শঙ্কা ছড়িয়ে পড়ে। দুপুরে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে প্রাইভেট হাসপাতালের ওই মেইল প্রত্যাখ্যান করে বলা হয় ওই হাসপাতাল কিংবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কোভিড-১৯ পরীক্ষার অনুমোদন রয়েছে কি না তা জানতে হবে। শনিবার রাতে কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক এবং উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ডাঃ চিন্ময় হাওলাদার কুয়াকাটায় গিয়ে ওই আটটি হোটেল লকডাউন করে দিয়েছেন। এবং রবিবার ফের স্বাস্থ্য বিভাগ ওই ১৭ শ্রমিকের মধ্য থেকে ১৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছেন। বাকি একজনের নমুনা নেয়া হবে বলে জানা গেছে।
মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জমান জানান,কুয়াকাটার ১৫ টি হোটেলের ৩১৫ জনের মধ্যে প্রথম দফায় ১৭ জন এবং আজকের ১১ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।১৫ টি হোটেলের ১ টি, হোটেল তাজ ছাড়া বাকী ১৪ টিতেই করোনা পজেটিভ শনাক্তরা রয়েছেন। করনো শনাক্তদের আইসোলেশন সহ হোটেলে নতুন করে প্রবেশ কিম্বা বাহিরের ক্ষেত্রে আমরা কঠোর নজরদারীর ব্যবস্থা করা হয়েছে।
এ দিকে পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা: মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম জানান,গত ১১ জুলাই প্রাপ্ত রিপোর্ট নিয়ে প্রথমে কিছুটা ভুল বোঝাবুিঝর সৃষ্টি হয়,ঐ শ্রমিকদের নিয়ে আসা কর্তৃপক্ষ ,অনুমোদন প্রাপ্ত কর্তৃপক্ষকে দিয়েই স্যাম্পল সংগ্রহ করেছে,কিন্তু তারা একটি বিষয় ভুল করেছে তারা স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগকে না জানিয়ে স্যাম্পল সংগ্রহের কাজটি করায় এই ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে।বর্তমানে আমরা কোয়ারেইন্টাইনে থাকা ৭ টি হোটেলের ১৬৫ জনের মধ্যে ৮১ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছি।যার মধ্যে ১১ জনের রিপোর্ট আজ পজেটিভ এসেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Md shohag ১৬ জুলাই, ২০২০, ৯:০৭ এএম says : 0
আমি এই খবরটি বিস্তারিত জানতে চাই।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন