ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

হোটেলের পরিবর্তে রিসোর্ট অ্যাপার্টমেন্টে দল!

আইপিএল আয়োজনে এবার কেবল ক্ষতিই

টাইমস অব ইন্ডিয়া | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২০, ১২:০৪ এএম

অনেক সমালোচনা আর বিতর্কের পর আইপিএল থেকে সরে দাঁড়াচ্ছে চীনা মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান—ভিভো। গালোয়ান সংঘর্ষের পর ভারত-চীন ক‚টনৈতিক সম্পর্কের যে অবনতি আর তার ফলশ্রুতিতে গোটা ভারতজুড়ে যে চীনবিরোধী মনোভাব, তারই জেরে সরে যেতে হচ্ছে ভিভোকে। আপাতত চীনের এই প্রতিষ্ঠান সরে যাওয়ায় ভারতজুড়ে স্বস্তির হাওয়া থাকলেও এটি আইপিএলকে বড় ধরনের ক্ষতির মুখে ফেলছে।
২০১৮ সালে ভিভোর সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) চুক্তি হয়। সে চুক্তি অনুযায়ী বিশ্বের সবচেয়ে বড় ও অর্থকরী ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পনসর হয় তারা। পাঁচ বছরের চুক্তিটি ছিল ২ হাজার ১৯৯ কোটি রুপির। করোনার এ সময়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠেয় আইপিএল থেকে ভিভো সরে দাঁড়ানোয় এ বছরের জন্য নির্দিষ্ট অর্থটা পাচ্ছে না বিসিসিআই, ফলে এতে কেবল বিসিসিআইয়ের কোষাগারেই টান পড়ছে না, ক্ষতির মুখে পড়ছে আইপিএলে অংশগ্রহণকারী ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোও। ভিভো চলে যাওয়ায় ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোও যে লাভের ভাগ পাচ্ছে না।
কেবল ভিভো চলে যাওয়াতেই নয়, বিসিসিআইকে এবার আরেকটি কারণেও বড় ধরনের ক্ষতি স্বীকার করে আমিরাতের তিন শহরে (দুবাই, শারজা ও আবুধাবি) আইপিএলের ম্যাচগুলো আয়োজন করতে হচ্ছে। করোনায় জর্জরিত ভারতে স্বাভাবিক কারণেই এবার আইপিএল আয়োজন সম্ভব নয়। কিন্তু আমিরাতে আয়োজনটাও করতে হচ্ছে নানা বিধি মেনে, বিভিন্ন স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে। এতে খরচের ধাক্কাটাও ভালোই সামলাতে হচ্ছে বিসিসিআইকে। প্রতিটি দলের আরব আমিরাতে যাওয়া-আসা, থাকা-খাওয়ার ব্যাপারটি তো আছেই, করোনার কারণে দর্শকশূন্য মাঠে আয়োজিত আইপিএলে এবার ‘গেটমানি’ (টিকিট বিক্রি করে প্রাপ্ত অর্থ) পাচ্ছে না বিসিসিআই। আয়োজন ফি বাবদ আরব আমিরাত ক্রিকেট বোর্ডকেও বড় অঙ্কের অর্থ দিতে হচ্ছে।
শুধু বিসিসিআই-ই নয়, আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে যারে ফ্রাঞ্চাইজিগুলোও। সবশেষ খবর অনুযায়ী সংক্রমণ এড়াতে খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফদের পাঁচ তারকা হোটেলের পরিবর্তে রিসোর্টে রাখার চিন্তা-ভাবনা করছে দলগুলো। দলের বেশকিছু ক্রিকেটারের আপত্তির কারণে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ এরই মধ্যে গলফ রিসোর্টের সঙ্গে কথা-বার্তাও প্রায় পাকাপাকি করে ফেলেছে বলে গণমাধ্যমে খবর। আবু ধাবিতে নিজেদের ক্যাম্প করবে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও কোলকাতা নাইট রাইডার্স। এরই মধ্যে সেখানকার একটি এপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সের পুরোটাই ভাড়া নিয়ে ফেলেছে আম্বানী পরিবারের দল মুম্বাই। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, সেন্ট্রাল এয়ার কন্ডিশনের পাইপলাইন কিংবা বাতাস প্রবহিত হবার যেসব নালী রয়েছে সেগুলো দিয়ে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকি এড়ানো। এছাড়া অনেক বিদেশী তারকা অবসর সময় কাটাতে গলফ খেলার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছেন।
বিসিসিআইয়ের সূত্রমতে, এবারের আইপিএলে প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজির মোট ক্ষতির পরিমাণ ৫০ কোটি রুপি। তবে এ ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনা সম্ভব যদি এখনই সৌরভ গাঙ্গুলীরা ভিভোর বিকল্প কোনো পৃষ্ঠপোষক খুঁজে বের করতে পারেন। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী আগামী দু-দিনের মধ্যেই নতুন স্পন্সর চেয়ে দরপত্র চাওয়া হতে পারে। করোনার এই সময় সারা দুনিয়ার ব্যবসা-বাণিজ্য যখন স্তব্ধ হয়ে আছে তখন বিসিসিআই নতুন কোনো বড় চুক্তি করতে পারে কি না, সেটিই এখন দেখার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন