ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

ক্রিকেটীয় উত্তাপের প্রতিশ্রুতি

৩০ লাখ টাকার বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ-তিন অধিনায়কের চোখ ট্রফিতে

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৩ এএম

আন্তর্জাতিক সিরিজ বা আসর নয় এটি। বিপিএলের মতো জমজমাট ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টও নয়। তবুও আজ তামিম, মাহমুদউল্লাহ ও নাজমুল একাদশ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে নামবে অন্য রকম এক ‘সিরিজের’ রোমাঞ্চে। বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ নামের তিন দলের এই প্রতিযোগিতাকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ‘টেস্ট কেস’ বা করোনাকালের পরীক্ষামূলক সিরিজ বললেও একে আকর্ষণীয় করে তোলার সব চেষ্টাই তারা করছে। আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া তিন দলীয় সিরিজটি আয়োজনে কোনো পৃষ্ঠপোষক না নিলেও খেলোয়াড়দের আর্থিকভাবে অনুপ্রাণিত করতে চ্যাম্পিয়ন-রানার্সআপ দলের জন্য ঝা চকচকে ট্রফির পাশাপাশি ১৫ লাখ টাকার প্রাইজমানি রাখছে বিসিবি। থাকছে ম্যাচসেরা, টুর্নামেন্ট-সেরা, সেরা ব্যাটসম্যান কিংবা সেরা বোলারের জন্য আলাদা আর্থিক পুরস্কার। সব মিলিয়ে ২৫-৩০ লাখ টাকার পুরস্কার রাখা হচ্ছে খেলোয়াড়দের জন্য। আজ উদ্বোধনী ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ একাদশ মুখোমুখি হবে শান্ত একাদশের। তামিম একাদশের প্রথম ম্যাচ আগামী মঙ্গলবার। ‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরে তাদের প্রতিপক্ষ মাহমুদউল্লাহ একাদশ।
টুর্নামেন্ট ঘিরে বিসিবির আয়োজনে যথেষ্টই চোখে পড়ছে, এটি ওজন ও গুরুত্ব বাড়িয়ে তোলার চেষ্টা। টিম হোটেলে জৈব-সুরক্ষা বলয়ে রাখা হচ্ছে তিন দলের ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফসহ ৬০ জনের বেশি মানুষকে। তিন দলের জন্য আলাদা কোচিং স্টাফও ঠিক করে দিয়েছে বিসিবি। মাহমুদউল্লাহ একাদশের প্রধান কোচ ওটিস গিবসন, ম্যানেজার নাসির আহমেদ, সহকারী কোচ সাইফুল ইসলাম, ফিজিও জুলিয়ান কালেফাতো ও ট্রেনার নিকোলাস লি। তামিম একাদশের প্রধান কোচ রায়ান কুক, ম্যানেজার সাব্বির খান, সহকারী কোচ মিজানুর রহমান, ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম ও ট্রেনার ইফতেখারুল ইসলাম। নাজমুল একাদশের প্রধান কোচ আপাতত জাফরুল এহসান, ম্যানেজার জামাল উদ্দিন, সহকারী কোচ গোলাম মুর্তজা, ফিজিও খাদেমুল ইসলাম ও ট্রেনার তুষার কান্তি হাওলাদার।
এইচপির নতুন কোচ টবি র‌্যাডফোর্ডের ঢাকায় আসার কথা আজ ভোরে। তার কোয়ারেন্টাইন সময় সাত দিনের জায়গায় পাঁচ দিন করতে বিসিবি এরই মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে অনুরোধ করেছে। কোয়ারেন্টাইন সময় পেরিয়ে কাজে যোগ দিলে নাজমুল একাদশের প্রধান কোচ হবেন র‌্যাডফোর্ডই। আর সিরিজে বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর ভ‚মিকা হচ্ছে, তিনি ম্যাচ কিংবা টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন বা গুরুত্বপ‚র্ণ সিদ্ধান্তগুলো নেবেন। টেকনিক্যাল এক্সপার্ট হিসেবে তিন দলের ওপর সমান নজর রাখবেন তিনি।
হোক না ঘরের মাঠে, নিজেদের মধ্যে; তবুও মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের এই টুর্নামেন্ট দিয়ে প্রায় সাত মাস পর প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছে টাইগাররা। প্রতিটি দল একে অপরকে দুবার করে মোকাবিলা করবে। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩ অক্টোবর। বৃষ্টি শঙ্কায় প্রতি ম্যাচের জন্যই রাখা হয়েছে রিজার্ভ ডে। সবগুলো ম্যাচই হবে দিবারাত্রির। হোম অব ক্রিকেটে খেলা শুরু হবে দুপুর ১টা ৩০ মিনিট থেকে। টুর্নামেন্টের তিন অধিনায়ক তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও নাজমুল হোসেন শান্তর উপস্থিতিতে গতকাল টিম হোটেলে বেশ ঘটা করেই উন্মোচিত হয়েছে বিসিবি প্রেসিডেন্ট’স কাপের ট্রফি। এই আয়োজনের পর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন তারা।
বন্ধুত্বের আবহের মাঝে লড়াইয়ের ঝাঁঝ কতটা থাকবে? প্রশ্নটি অস্বাভাবিক নয়। নিজেদের মধ্যেই গড়া তিন দল, ম্যাচ অনুশীলন যেখানে মূল ভাবনা, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেটের আশা সেখানে কমই থাকে। তবে তিন অধিনায়কের কণ্ঠে লড়াই জমিয়ে তোলার প্রত্যয় ঠিকই শোনা গেল। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের পাশাপাশি তিন অধিনায়কেরই চাওয়া প্রেসিডেন্টস কাপের শিরোপা জয়।
তামিম ইকবাল : ‘অনেক দিন পর প্রতিযোগিতাম‚লক ক্রিকেটে আসছি। প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক একটা আসর হবে। স্রেফ ক্রিকেটে ফিরে আসছি, এই চিন্তা না করে আমার কাছে মনে হয় ব্যক্তিগতভাবে অনেক কিছু পেতে পারি। কেউ যদি ভালো ব্যাটিং করে, ভালো বোলিং পারফরম্যান্স করে, তার জন্য জাতীয় দলের দরজা খুলে যেতে পারে। এটা সুযোগ সবার জন্য, এই টুর্নামেন্টে পারফর্ম করে নিজের জায়গাটা তৈরি করে নেওয়ার। আমরা যতটুক জাতীয় দলে সিরিয়াস থাকি, বাংলাদেশের হয়ে ম্যাচ খেলার সময়, ওই লেভেলের প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকবে। যেহেতু এটা একটা টুর্নামেন্ট, আমরা একটা দল, চ্যাম্পিয়ন হওয়ারই আমাদের চিন্তা। চ্যাম্পিয়ন হওয়াই আমাদের ইচ্ছা। দিন শেষে যে ভালো খেলবে সেই পাবে।’

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ : ‘ভালো লাগছে। কারণ মাঠের মানুষ আমরা মাঠে ফিরছি। এতদিন প্র্যাকটিস করছিলাম। ওটার একটা আনন্দদায়ক ফ্যাক্টর ছিল। এখন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক খেলা চালু হচ্ছে, তো খুবই ভালো লাগছে। দিন শেষে এটাই আমাদের কাজ। ভালোবাসার জায়গা। প্রত্যাশা অবশ্যই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার। যারা প্রতিশ্রুতিশীল ও অভিজ্ঞতার দিক থেকে সেরা, তারা সবাই খেলছে। এটা আমাদের নিজেদের ভেতরে ভালো একটা প্রতিযোগিতা। প্রমাণ করার মঞ্চও। অনেক দিন পর যেহেতু আমরা মাঠে নামছি। সবার ভেতর একটা কৌতুহল, উদ্দীপনা কাজ করবে। আমার মনে হয়, এটা খুবই ভালো একটা উদ্যোগ। এজন্য বিসিবিকে ধন্যবাদ।’

নাজমুল হোসেন শান্ত : ‘অবশ্যই ভালো লাগছে (টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে)। কখনোই তো এরকম হয়নি যে এতদিন মাঠের বাইরে ছিলাম। এরকম একটা সিরিজ শুরু হচ্ছে, অবশ্যই অনেক রোমাঞ্চিত। আশা করছি, খুব ভালো একটা সিরিজ হবে। তিনটা দলই খুব ভালো হয়েছে, তবে আমাদের ইতিবাচক দিক যেটা মনে করি, ফিল্ডিং খুবই ভালো আমাদের। সঙ্গে বোলিং-ব্যাটিং তো আছেই। আরেকটা ইতিবাচক দিক যেটা, সবচেয়ে বেশি তরুণ খেলোয়াড় আমাদের। আশা করি, তিন বিভাগেই ভালো কিছু হবে।’

টুর্নামেন্টের সূচি :
১১ অক্টোবর : মাহমুদউল্লাহ একাদশ-শান্ত একাদশ
১৩ অক্টোবর : মাহমুদউল্লাহ একাদশ-তামিম একাদশ
১৫ অক্টোবর : তামিম একাদশ-শান্ত একাদশ
১৭ অক্টোবর : মাহমুদউল্লাহ একাদশ-শান্ত একাদশ
১৯ অক্টোবর : মাহমুদউল্লাহ একাদশ-তামিম একাদশ
২১ অক্টোবর : তামিম একাদশ-শান্ত একাদশ
২৩ অক্টোবর : ফাইনাল
* প্রতিটি ম্যাচই হবে মিরপুরে, দুপুর ১টায়
* প্রতিটি ম্যাচের পরদিন থাকছে রিজার্ভ ডে

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন