ঢাকা বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ আশ্বিন ১৪২৭, ০৫ সফর ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

এই হারেও নেপালের ক্রিকেট জাগরণের বার্তা

প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মুখোমুখি হবার আগে স্বাগতিক দলকে স্পিনে ঘায়েলের হুংকার দিয়েছিলেন নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ জগত বাহাদুর। কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ যুবাদের কাছে ৬ উইকেটে হেরে নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক রাজু রিজালের আফসোসÑ ‘আমাদের ফিল্ডিং এবং বোলিং ঠিক ঠাক ছিল, কিন্তু ব্যাটিংয়ে ২০ থেকে ৩০ রান কম এসেছে।’ নিউজিল্যান্ড,আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কাছে পেয়েছে শিক্ষা নেপাল যুবারা। পার্থক্যটা টের পেয়েছে তারা বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কাছেও। তার পরও নেপাল ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথম অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলাটাকেই বড় অর্জন বলে মনে করছেন নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ম্যানেজার সুদীপ্ত শর্মাÑ‘আইসিসি’র সহযোগী সদস্য দেশ হয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত আসা নেপালের জন্য কম অর্জন নয়। সর্বশেষ টুয়েন্টি-২০ বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করে নেপালের ক্রিকেট গেছে বদলে। ক্রিকেট দেখতে দর্শক আসছে মাঠে। এই টুর্নামেন্ট নেপালের ক্রিকেট জাগরনে সহায়ক হবে। এখানে বড় বড় দলের সঙ্গে খেলে অনেক কিছু শিখেছি। সেটাই ভবিষ্যতে কাজে আসবে।’
লামিচিনের বলে যখন স্ট্যাম্পিংয়ের সুযোগ হাতছাড়া করেছেন রাজু রিজাল, তখন মিরাজের স্কোর ২৫। দ্বিতীয় দফায় প্রেম তামাঙ্গার বলে স্ট্যাম্পিং যখন মিস করেন রিজাল, তখন ৫৫ রানে দাঁড়িয়ে মিরাজ। এই দু’বার স্ট্যাম্পিংয়ের সুযোগ হাতছাড়া করার মূল্য দিতে হয়েছে নেপালকে, তা মানছেন নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক নিজেওÑ‘এটা বড় ভুল হয়েছে। বলটি যে আমার কাছে আসছে, তা বুঝতেই পারিনি। সম্ভবতঃ সেই সময় সতর্ক ছিলাম না আমি।’
ভারতের বিপক্ষে গ্রæপ পর্বের শেষ ম্যাচে হারের পর নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়কের বয়স চুরির প্রসঙ্গ ফেস বুকের মাধ্যমে প্রচারিত হওয়ায় নেপাল ক্রিকেট দলের মনোবলে একটা ধাক্কা লেগেছে। অধিনায়ক রাজু রিজালের বয়স নিয়ে বিতর্ক ওঠায় আইসিসিকে তার বয়স প্রমাণ দিতে হয়েছে নেপাল টীম ম্যানেজমেন্টকে। সেই বিতর্কের অবসানও করেছে আইসিসি। তবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে ম্যাচে এই বিতর্ক যে কিছুটা হলেও মাথায় ঘুরপাক করেছে রাজু রিজালের, তা বলতে দ্বিধা করেননি নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়কÑ‘কিছুটা হলেও ওই ইস্যুটি মাথায় ছিল। তবে ড্রেসিং রুমে এসে ওই ঘটনা ভুলে স্বাভাবিক খেলা খেলতে চেয়েছি।’
আইসিসি’র পূর্ণ সদস্য বাংলাদেশের কাছে হার থেকে শিক্ষা নিয়ে এখন নেপাল অনূর্ধ্ব-১৯ দলের লক্ষ্য আইসিসি’র সহযোগী সদস্য দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে থেকে আসরটি শেষ করা। আইসিসি’র সর্বশেষ সভার সিদ্ধান্তে ২০১৮ সালে অনুষ্ঠেয় পরবর্তী অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি অংশগ্রহণের লক্ষ্য এখন দলটির ম্যানেজার সুদীপ শর্মার। নামিবিয়ার উপরে থেকে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ শেষ করার দিকে তাকিয়ে তার দল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন