ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

হেরে গেল বাংলাদেশের মেয়েরা

প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসের উদ্বোধনী দিন হোঁচট খেলো বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দল। হার দিয়েই আসর শুরু করলো তারা। গতকাল শিলংয়ের জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে ফুটবল ডিসিপ্লিনের প্রথম ম্যাচে নেপাল ৩-০ গোলে হারায় বাংলাদেশকে। বিজয়ীরা ম্যাচের প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে ছিলো। ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে নেপালী মেয়েরা। ফলে শুরুতেই গোল পায় তারা। পিছিয়ে পরার পর আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি বাংলাদেশ। পুরো ম্যাচে নেপালীদের দাপটে দাঁড়াতেই পারেননি লাল-সবুজের মেয়েরা। তাই শেষ পর্যন্ত আক্রমণাতœক ফুটবল উপহার দিয়ে সহজ জয়ই তুলে নেয় নেপাল।
ম্যাচের ২ মিনিটে এগিয়ে যায় নেপাল। এসময় দীপা অধিকারী গোল করে বাংলাদেশের জাল কাঁপান (১-০)। এর পনের মিনিট পর দ্বিতীয় গোল পায় হিমালয় কণ্যারা। ১৭ মিনিটে নেপালের পক্ষে গোল করে ব্যবধান বাড়ান অধিনায়ক অনু লামা (২-০)। দুই গোলে এগিযে যাওয়ার পরও আক্রমনের ধারা অব্যাহত রাখে নেপাল। অবশ্য বাংলাদেশের মেয়েরা ম্যাচে ফেরার চেস্টা করেও ব্যর্থ হয়। প্রথমার্ধে আর কোন গোল হওয়ায় এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় নেপাল। বিরতির পর যেন গোলক্ষুধা কমেনা তাদের। ব্যবধান বাড়াতে বাংলাদেশের গোলমুখে একের পর এক আক্রমণ চালায় নেপালী মেযেরা। সৌভাগ্য বলতে হবে বাংলাদেশের। যদি নেপালের সেই আক্রমণগুলো গোলে পরিণত হতো, তাহলে বেশ বড় হারের লজ্জা পেতে হতো লাল-সবুজদের। তারপরও শেষ রক্ষা হয়নি। ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে তৃতীয় গোলের দেখা পায় নেপাল। এসময় নিরু থাপা গোল করে দলের সহজ জয় নিশ্চিত করেন (৩-০)। প্রথম ম্যাচ জিতে ফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেল নেপাল। ৯ ফেব্রæয়ারি দ্বিতীয় ম্যাচে মালদ্বীপের মুখোমুখি হবে তারা। তবে প্রথম ম্যাচে হেরে হোঁচট খেলেও ফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা এখনও শেষ হয়ে যায়নি বাংলাদেশ মহিলা দলের। এজন্য তাদের বাকি ম্যাচগুলোতে জিততেই হবে। আগামী ৭ ফেব্রæয়ারি স্বাগতিক শক্তিশালী ভারতের বিরুদ্ধে (সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা) দ্বিতীয় ম্যাচে অবতীর্ণ হবে বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে বাংলাদেশ দলের এই হারের জন্য দায়ী করা যেতে পারে স্বাগতিক ভারতের ষড়যন্ত্রমূলক খেলার তারিখ ও সময় পরিবর্তনকে। আফগানিস্তান না থাকাতে টুর্নামেন্টের ফরমেটেও এসেছে পরিবর্তন। এবার খেলা হবে লিগ পদ্ধতিতে (মোট দল ৫টি)। সিঙ্গেল লিগ হওয়ার পর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনালে। ফলে সেমিফাইনাল বলে কিছু থাকছে না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন