বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ বৈশাখ ১৪৩১, ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পুলিশে শুদ্ধি অভিযান চলছে: আইজিপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১:৫৮ পিএম

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, পুলিশ বাহিনীকে দুর্নীতিমুক্ত করতে শুদ্ধি অভিযান চলছে। আগামীতে দেশের অর্থনীতিসহ সব দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের এ অগ্রযাত্রায় আমাদের সব ক্ষেত্রেই শুদ্ধতা দরকার। তাই আমরা নিজেদের ঘরের ভেতর থেকেই শুদ্ধি অভিযান শুরু করতে চাই।

আজ শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টাস অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব) আয়োজিত বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আইজিপি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি আগে নিজেদের ঘরকে শুদ্ধ করতে দুর্নীতি মুক্ত করতে। আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন, ক্র্যাব এর সভাপতি আবুল খায়ের, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকু প্রমুখ। এছাড়া সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ক্র্যাবের সদস্যরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:১৩ পিএম says : 0
একটি দেশ একটি জাতির পরিচয় ঘটে আইন শৃংখলার উপর।দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি মানবিক মূল্যবোধের সঠিক চিত্র পাওয়া য়ায় শৃংখলা পরায়ন নীতি আদশ‍্যবান দেশের নিরাপত্তায় নিয়োজিত আইন শৃংখলা বাহিনীর কর্মকাণ্ডের উপর। স্বাধীনতার অদ‍্য শতাব্দীর মাঝে পুলিশের শৃংখলার জন্যে বর্তমানের আইজিপি মহোদয়ের মতোকঠোর শৃংখলা পরায়ন পুলিশ প্রধান বাংলাদেশ পায়নি। বাংলাদেশের মত আইন অমান্য কারি মানুষের দেশে পুলিশেরদায়িত্ব কর্তব্য পালন করা কঠিন। মানুষের মুখের কথা পুলিশ চাইলে মাত্র ২৪ ঘন্টার অপরাধী মুক্ত দেশ গড়তে পারে।পুলিশের প্রয়োজন স্বাধীন ভাবে নির্ভরতার মাঝে মানুষের জানমাল ইজ্জতের হেফাজত করা। সব চায়তে বড় বাধা রাজনীতি আর অর্থনীতি। রাজনৈতিক চাপে পুলিশ মানুষের কাছে তাদের নিজস্ব ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারেনা। প্রজাতন্ত্রে কর্মচারী হয়ে রাজনৈতিক সরকারের আদেশ নির্দেশনা মানতে গিয়ে আজীবন পুলিশের বদনাম। প্রয়োজন এই পুলিশের আলাদা মন্ত্রণালয়ের স্বাধীন। দেশের রাষ্ট্রবিজ্ঞানী আইন শৃংখলা বাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ ব‍্যাক্তিদের আলোচনা করুন জাতির গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্টান পুলিশের কাজের জন্যে পুলিশের মাঝে বংশগত আদশ‍্যবান চরিত্রবান পরিবারের নীতি পরায়ণ সদস্যদের স্থান দিতে ভবিষ্যতে জন্যে। দেশে মানবিকতা নৈতিকতা আদশ‍্য প্রতিষ্টা করতে হবে। পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের করোনা মহামারীর বিশালাকার ত‍্যাগের মাধ্যমে মানুষের সেবায় মৃত্যু আক্রান্ত জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করবে। শুধু একটা সত্যিকার ঘটনা যাহা আমার চুখের সামনে ঘটেছিল। সাল ১৯৯৮ইং মধ্যপ্রাচ্যের ওমানে স্থান সিভ নামের জায়গাই। আমি মস্কেটযাচ্ছিলাম আমার টেক্সীর সামনে একটি গাড়ি বেপরোয়া যাচ্ছেন। পিছনে পুলিশের গাড়ি দাওয়া করছে আমার গাড়ি সামনে ঐ গাড়ি টাকে পুলিশ আটকিয়ে দিলো জরিমানা সিলিপ দড়িতে দিলো। ঐ ব‍্যাক্তির মুখের নেখাব খুলেছেন দেখলেন ওনি আর কেও না ওমানের সুলতান কাবুস। পুলিশ অফিসার চেহারা দেখার পরও জরিমানা কাগজ সুলতানের হাতেই দিলেন। আমার টেক্সী ড্রাইভার বললেন। এই পুলিশ কে এখন সুলতানের বাহিনী বংশ সহ শেষ করে দিবেন। পরদিন ওমানের পত্রিকায় দেখলাম ঐঘটনার বিবরণ সহ বিস্তারিত ওমানের সুলতান তাকে ট্রাকিফ পুলিশের ওমানের প্রধান বানিয়ে দিয়েছেন। সুলতান জাতির সামনে বলেছেন আইনের শ্রদ্ধা আইন শৃংখলা বাহিনীর দায়িত্ব পালনে তাকে পুরুস্কৃত করলেন। বাংলাদেশের পুলিশ বাহিনীর জন্যে আইজিপি মহোদয়ের শুদ্ধি অভিযান মাধ্যমে পুলিশ দেশ জাতির পকৃত বন্ধু হোক এই প্রত‍্যাশা করি। আইজিপি মহোদক অসংখ্য শ্রদ্ধা সালাম আর সালাম।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন