ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ০৫ রমজান ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

মুক্তির পর চোখ মাঠের অনুশীলনে

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০২১, ১২:০১ এএম

ঘরবন্দি জীবনকে মেহেদী হাসান মিরাজের কাছে মনে হয়েছিল ‘জেলখানা।’ মোহাম্মদ মিঠুনের কাছে এই অভিজ্ঞতা খুবই ‘কষ্টকর’। চার দেয়ালের মধ্যে দমবন্ধ অনুভ‚তি হচ্ছিল কয়েকজনের। অবশেষে মুক্তি মিলছে সেই জীবন থেকে। আজ থেকে ক্রাইস্টচার্চে গ্রুপে ভাগ হয়ে অনুশীলন করতে পারবেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। নিউজিল্যান্ডে তৃতীয় দফা কোভিড পরীক্ষায়ও সবাই নেগেটিভ হওয়ার পর অনুশীলন শুরু করতে আর কোনো বাধা নেই। ক্রাইস্টচার্চের অদ‚রে লিঙ্কনে সাত জনের গ্রুপে ভাগ হয়ে শুরু হবে ব্যাট-বলের তুকতাক। গ্রুপে ক্রিকেটার থাকবেন ৫ জন করে, সাপোর্ট স্টাফের সদস্য ২ জন। মুক্ত বাতাসে অনুশীলন শুরুর আগে খানিকটা মহড়া অবশ্য হয়ে গেছে গতকাল। নিউজিল্যান্ডে পৌঁছার পর এ দিনই প্রথমবার দলগতভাবে জিম সেশন করতে পেরেছেন ক্রিকেটাররা।
৩টি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে গত বুধবার ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছায় বাংলাদেশ দল। প্রথম ৩ দিন পুরো সময়ই ঘরে আটকা থাকতে হয়েছে ক্রিকেটারদের। এরপর সারাদিনে ৪০-৪৫ মিনিটের জন্য বের হওয়ার সুযোগ ছিল কেবল হোটেলের লনে ও খোলা জায়গায়। পর দিন তা বেড়ে হয়েছে দুই বেলা। এরপর তিন বেলা মিলিয়ে আড়াই ঘণ্টার মতো সময় হোটেলের খোলা জায়গায় শ্বাস নেওয়ার সুযোগ মিলেছে। এই সময়টায় ফিটনেস নিয়ে কাজ করার একমাত্র উপায় ছিল যার যার হোটেল রুমে সাইক্লিং আর টুকটাক কসরত। এক সপ্তাহের হাঁসফাঁস সময়টা শেষ হওয়ায় মোহাম্মদ মিঠুন স্বস্তির কথা জানালেন বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায়, ‘এতদিন আমাদের চলাফেরায় অনেক বাধা ছিল। এখন আস্তে আস্তে নরম্যাল হচ্ছে। আজকে (গতকাল) জিম করার সুযোগ পেয়েছি। এক সপ্তাহ পর জিম ব্যবহার করতে পেরে ভালো লাগছে। ঘরের মধ্যে থাকা আসলেই অনেক কষ্টকর। খুব বেশি কিছু করার নেই, সারাদিন ঘরের মধ্যে থেকে। বিশেষ করে আমরা এখানে একটি সিরিজ খেলতে এসেছি... কালকে (আজ) থেকে মাঠে যেতে পারব, ভাবতেই আলাদা ভালো লাগা কাজ করছে। কাল থেকে আমরা যখন ক্রিকেট ট্রেনিংয়ে ফিরব, তখন আস্তে আস্তে মানিয়ে নিতে পারব।’
নিউজিল্যান্ডে প্রতিবারই সফরে গিয়ে প্রচÐ শীত আর ঠাÐা বাতাসে জবুথবু অবস্থা হয় বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। এবার এই সময়টায় আবহাওয়া নিয়েও স্বস্তির কথা শোনালেন মিঠুন, ‘এখনকার আবহাওয়া খুবই ভালো। আগে এখানে আবহাওয়ার কারণে যে ভুগতে হতো, এরকম আবহাওয়া থাকলে এবার আশা করি সেটা হবে না।’ তবে এই নিউজিল্যান্ডের খারাপ দিকটিও তুলে ধরলেন মিঠুন। নিজেদের দেশে নতুন বলে দুই প্রান্ত থেকে দুই রকম স্যুয়িংয়ের পসরা মেলে ধরেন কিউই পেসাররা। নিউজিল্যান্ডে খেলতে গেলে বরাবরই নতুন বল বাংলাদেশকে দিয়েছে কঠিন সময়। এবারও তার ব্যক্তিক্রম হওয়ার কারণ নেই। মিঠুন বলছেন নতুন বল সামলানোই হবে তাদের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের নাম, ‘এখানে খেলাটা চ্যালেঞ্জিং। কারণ এখানকার কন্ডিশন অনেক ভিন্ন আমাদের থেকে। এই ধরণের কন্ডিশনে সব সময় খেলার সুযোগ হয় না। সবাই জানে নিউজিল্যান্ডে নতুন বলটা খুব বেশি চ্যালেঞ্জিং হয়। নতুন বলটা যদি ভাল করে সামলাতে পারি তাহলে আশা করছি আগের চেয়ে অনেক ইতিবাচক ফল আসবে।’
আজ থেকে গ্রæপ ধরে অনুশীলন চলবে এক সপ্তাহ। অনুশীলন শেষে যথারীতি যার যার রুমে গিয়ে আবার বন্দি সময়। এভাবে ৭ দিন চলার পর কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হওয়া সাপেক্ষে মিলবে পুরোপুরি মুক্তি। কোনো জৈব-সুরক্ষা বলয়ের ব্যাপার নেই। স্বাধীনভাবে যে কোনো জায়গায় ঘুরে বেড়াতে আর কোনো বাধা থাকবে না। মিঠুন জানালেন, গোটা দল তাকিয়ে ওই সময়টার দিকে, ‘১৪ দিন পর আমাদের যে স্বাভাবিক চলাফেরা শুরু হবে, অবশ্যই সবাই তা উপভোগ করবে। কারণ ১ বছর ধরে আমরা কোভিডের মধ্যে আছি। বাংলাদেশেও যতগুলো টুর্নামেন্ট খেলেছি, হোটেল থেকে বের হওয়ার সুযোগ হয়নি। এখানে একটু আলাদা, ১৪ দিন পর মুক্ত হয়ে ঘোরাফেরা করতে পারব। সেটা ভেবে ভালো লাগছে।’
কোয়ারেন্টিন থেকে পুরোপুরি মুক্তির পর বাংলাদেশ দল ১২ মার্চ যাবে কুইন্সটাউনে। নান্দনিক সৌন্দর্যের শহরে ৫ দিনের নিবিড় অনুশীলন করবেন ক্রিকেটাররা। এরপর ১৭ মার্চ গন্তব্য প্রথম ওয়ানডের ভেন্যু ডানেডিন। ২০ মার্চ শুরু ওয়ানডে সিরিজ। পরের দুই ওয়ানডে ২৩ ও ২৬ মার্চ। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগের অংশ এই সিরিজ। এরপর টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচ ২৮, ৩০ মার্চ ও ১ এপ্রিল। কোনো সংস্করণের ক্রিকেটেই নিউজিল্যান্ডের মাটিতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে জয় নেই বাংলাদেশের। কিউইদের সঙ্গে ১৩ ওয়ানডে ও চারটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে প্রতিবারই কপালে জুটেছে হার। এবার নতুন ইতিহাস লিখতে পারবে তামিমের দল!


নিউজিল্যান্ড সফরের বাংলাদেশ দল : তামিম ইকবাল, মোসাদ্দেক হোসেন, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন কুমার দাস, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, তাসকিন আহমেদ, আল আমিন হোসেন, শরিফুল ইসলাম, হাসান মাহমুদ, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন, মেহেদি হাসান, নাসুম আহমেদ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন