মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চীন থেকে টিকা কেনার বিষয়ে বিস্তারিত প্রকাশ করা যাবে না: অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০২১, ৭:০৯ পিএম

ফাইল ছবি


অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, কৌশলগত সমস্যার কারণে চীন থেকে করোনা টিকা কেনার বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা যাবে না। তিনি বলেন, এটা নিয়ে আপনারা যদি প্রশ্ন করেন, আমরা আগে একবার পেছনে পড়ে গিয়েছিলাম। আবারও পড়ার সম্ভাবনা আছে।

বুধবার (১৪ জুলাই) সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার ভার্চুয়াল বৈঠকে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন। বৈঠকে চীনা প্রতিষ্ঠান সিনোফার্ম থেকে দেড় কোটি ডোজ টিকা কেনার প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা আগে যে প্রাইসে পেয়েছিলাম তার চেয়ে কমে পাচ্ছি। তবে, টিকার আগের ও বর্তমান মূল্য জানাননি তিনি। তিনি বলেন, এটা নিয়ে আপনারা যদি প্রশ্ন করেন, আমরা আগে একবার পেছনে পড়ে গিয়েছিলাম। আবারও পড়ার সম্ভাবনা আছে। এই পারচেজগুলো সিলেকটিভ পারচেজ। এগুলো সম্পর্কে ফর টেকনিকাল রিজন আমরা আপনাদের ডিটেল বলতে পারি না। আমার বিশ্বাস আপনারা এটা বুঝবেন এবং আমার সাথে একমত পোষণ করবেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

কতদিনের মধ্যে এই টিকা আসবে? এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আইন মন্ত্রণালয়ের ভেটিংসহ সবকিছু করা হয়েছে। দিনক্ষন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বলতে পারবেন। ভারত বা চায়না থেকে পাঁচ ডলার ও ১০ ডলারে টিকা কেনা হয়েছে। কিন্তু, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বলেছে প্রতি ডোজ টিকা তিন হাজার টাকায় কেনা হয়েছে। এখানে তাহলে তিন হাজার টাকা প্রতি ডোজে খরচ হলো? একজন সাংবাদিকের এ প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আমরা আজকে যে প্রকল্প তার সম্পর্কে আলাপ করবো যতদূর করা যায়। বাকিটা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে জেনে নিতে হবে।

বৈঠক শেষে অর্থ মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অধীন স্বাস্থ্য অধিদফতরের কেন্দ্রীয় ঔষধাগার কর্তৃক চীনা প্রতিষ্ঠান সিনোফার্ম ইন্টারন্যাশনাল থেকে চুক্তিবদ্ধ ১৫ মিলিয়ন ডোজের মধ্যে অবশিষ্ট ১৩ মিলিয়ন ডোজ এবং নতুন প্রস্তাবিত দুই মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিনসহ মোট ১৫ মিলিয়ন ডোজ আগের চুক্তিপত্রে উল্লিখিত মূল্যের চেয়ে কম মূল্যে সিনোফার্ম ভ্যাকসিন সাপ্লিমেন্ট এগ্রিমেন্ট-১ এর আওতায় সরবরাহ এবং কোভিড-১৯ মোকাবিলায় জরুরি প্রয়োজন মেটাতে ১৫ মিলিয়ন ডোজ অতিরিক্ত টিকা প্রয়োজন হলে, সরবরাহের প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

এর আগে, গত ২৭ মে চীনের সিনোফার্মের তৈরি দেড় কোটি ডোজ করোনা টিকা সরাসরি ক্রয়ের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছিল সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

ইতোমধ্যে চীন থেকে কেনা ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে এসে পৌঁছেছে। এ ছাড়া, উপহার হিসেবে চীনের কাছ থেকে সিনোফার্মের ১১ লাখ ডোজ টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন