শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চাঁদপুরের যে ৪০ গ্রামে উদযাপিত হচ্ছে ঈদ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুলাই, ২০২১, ৯:১৫ এএম

চাঁদপুরের ৪০টি গ্রামে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উৎসবমুখর পরিবেশে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। সউদী আরবে গতকাল সোমবার হজ সম্পন্ন হওয়ায় হাজীগঞ্জ উপজেলার সাদ্রা দরবার শরিফের অনুসারীরা আজ ঈদ উদযাপন করছেন।

এই দরবারের বর্তমান পীর শাইখ মো. আরিফ চৌধুরী জানান, দরবারের প্রতিষ্ঠাতা পীর মাওলানা ইসহাক প্রথম চন্দ্র দর্শনের ভিত্তিতে ধর্মীয় উৎসব পালনের রেওয়াজ চালু করেন।

পীর মুফতি আল্লামা যাকারিয়া চৌধুরী আল মাদানী বলেন, ‘১৯২৮ সার থেকে বিশ্ব মুফতি আল্লামা ইসহাক রহ. কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত চাঁদপুর জেলার সার্দ্রা ঐতিহাসিক দরবার শরীফের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ সর্বপ্রথম নবচন্দ্র দর্শনের নির্ভরযোগ্য সংবাদের ভিত্তিতে প্রতিবছরই ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহাসহ ধর্মীয় সকল উৎসবাদি পালন করে থাকি।’
আজ ঈদ উদযাপন করা গ্রামগুলোর মধ্যে রয়েছে- হাজীগঞ্জ উপজেলার বলাখাল, শ্রীপুর, মনিহার, বরকুল, অলীপুর, বেলচোঁ, রাজারগাঁও, জাকনি, কালচোঁ, মেনাপুর; ফরিদগঞ্জ উপজেলার শাচনমেঘ, খিলা, উভারামপুর, পাইকপাড়া, বিঘা, উটতলী, বালিথুবা, শোল্লা, রূপসা, বাশারা, গোয়ালভাওর, কড়ইতলী, নয়ারহাট; মতলবের মহনপুর, এখলাসপুর, দশানী, নায়েরগাঁও, বেলতলীসহ কচুয়া ও শাহরাস্তির বেশ কয়েকটি গ্রাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ২০ জুলাই, ২০২১, ১১:০২ এএম says : 0
এটি কিসের ধর্মিয় স্বাধীনতা? সমগ্র বাংলাদেশ পাকিস্তান ভারতে ঈদ হবে আগামীকাল বাংলাদেশে একদিন আগে ঈদ একদিন আগে ঈদুল আযহা।এরা কোন সম্প্রদায় পরিচয় কি? এদের কাছে সরকারের নির্দেশ আদেশ কানে পৌছায়নি? এরা বাংলাদেশের নাগরিক কিনা? পবিত্র সুন্নাহের আলোকে সরকারের আদেশ নিষেধ মানতে বাধ্য দেশের প্রত‍্যেকটি নাগরিকদের। যদিও দেশে ইসলামী হকুমত নেই। তবুও নেতৃত্বের আসনে অদিষ্টিত সরকারের তার আদেশ মানতে বাধ‍্য। প্রজাতন্ত্রের সকলস্তরের নাগরিকদের। অমান‍্য করে ইচ্ছে মতো ঈদ কোরবান করা আইনের প্রতি বৃদ্ধাঅঙ্গনী প্রদর্শন করর মত। সরকারের উচিৎ এইসব কান্ডজ্ঞানহীন মানুষের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া। বাংলাদেশে থাকবেন সৌদি আরবের নিয়ম মানবেন এটি কোরান সুন্নত পরিপন্থী। এই পাগল গুলো জানেন? আমরা যখনই সকালের ফজরের নামাজ পড়ি সৌদি আরবের তখনই তিন ঘন্টা কমবেশি।আর আমেরিকা রাতদিন বেশকম হয়ে যায়। ইত্যাদির কারণে চাদেঁর হিসাবে সরকার ঈদুল ফিতর ঈদুল আযহার দিন ধার্য করেন। রাষ্ট্রের নাগরিকরা সরকারের আদেশ পালন করেন। সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী রাষ্ট্রের সকল ধর্মীয় কর্মকাণ্ড আচার আচরণ করতে হবে। প্রীয়নবী(সাঃ)সুন্নত চাদঁদেখে ঈদ চাদঁদেখে ঈদুল আযহা করতে হবে। ধর্মমন্ত্রী মহোদয় ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নৈতিক দায়িত্ব এইসব বিশৃঙ্খলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে বিধি নিষেধ জারি করা। প্রযোজনে জাতীয় সংসদে আইন পাশ করুন। প্রত‍্যেক যুগে যুগে ইসলাম আর মুসলমানদের মাঝেই কিছুমুসলমান শয়তানের কুমন্ত্রণায় ইসলামের বিতরে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেন। এরা পকৃত অর্থে সমগ্রদেশ জাতি দেশের রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সরকারের ঘোষণায় বিরুদ্ধে এইসব করে যাচ্ছেন। ঈদ কোরবানীর বিরুদ্ধে আইন অমান‍্যকারী এদের বিরুদ্ধে অবশ‍্যই রাষ্ট্র কে ব‍্যবস্থা নিতে হবে বনি ইস্ররাইল একসময় ধর্মনিয়ে বাড়ি করতে করতে ৭২ ফেরকা হয়েছিল। আমরা বনি ইসমাইল। আমরা ৭৩ ফেরকা হবো। একটি হকের উপর প্রতিষ্টিত থাকবে বাকী ৭২টি দল জাহান্নামী হবে। আল্লাহ্ আমাদের কে সরল পথে হকের উপর থাকার তৌফিক দান করুক। আমিন।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন