মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতে পাঁচটি দায়েশ প্রশিক্ষণ শিবিরের প্রমাণ রয়েছে : পাকিস্তান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৪৫ পিএম

সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ড. মুয়ীদ ইউসুফ এবং মানবাধিকার মন্ত্রী শিরীন মাজারি।


পাকিস্তানের শীর্ষ কর্মকর্তারা রবিবার বলেছেন, তাদের কাছে ভারতীয় মাটিতে পরিচালিত দায়েশ যোদ্ধাদের পাঁচটি প্রশিক্ষণ শিবিরের প্রমাণ রয়েছে। ভারতের মদদে পরিচালিত কাশ্মীর, রাজস্থান এবং উত্তরাখণ্ডে দায়েশ প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের কথা উল্লেখ করে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেন, কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাদের দ্বারা সংঘটিত যুদ্ধাপরাধের ৩৪৩২টি মামলা তারা দায়ের করেছেন। -আরব নিউজ

ইসলামাবাদ দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছে যে, ভারত জঙ্গি গোষ্ঠীগুলিকে পৃষ্ঠপোষকতা করে, যা ভারত অস্বীকার করে। কিন্তু পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ড. মুয়ীদ ইউসুফ এবং মানবাধিকার মন্ত্রী শিরীন মাজারি এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে রবিবার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ তুলে ধরেন। কর্মকর্তারা অডিও এবং ভিডিও ফুটেজ এবং জিপিএস ডেটা সহ একটি ১৩১ পৃষ্ঠার নথি উপস্থাপন করেন, যেখানে তারা ভারতীয় অর্থায়নে দায়েশ জঙ্গিদের পরিচালিত প্রশিক্ষণ শিবিরের অস্তিত্ব প্রমাণ করেছে। তারা কাশ্মীরে ভারতীয় সামরিক বাহিনীর দ্বারা সংঘটিত নৃশংসতারও মামলাগুলোও বিস্তারিত তুলে ধরেন।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, পাঁচটি দায়েশ ক্যাম্প ভারতের নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের একটি পাহাড়ি শহর গুলমার্গে, তিনটি উত্তর ভারতের রাজস্থানে এবং একটি উত্তরাখণ্ডে, যা ভারতের উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত। ইসলামাবাদের সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র অসীম ইফতিখার আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, “প্রমাণ প্রমাণ করে যে ভারত পাঁচটি আইএসআইএস (দায়েশ) প্রশিক্ষণ শিবির পরিচালনা করছে, যার মধ্যে একটি ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের গুলমার্গে, তিনটি রাজস্থানে এবং একটি উত্তরাখণ্ডে অবস্থিত।তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জন্য গুরুতর উদ্বেগ হল আইএসআইএস -এ ভারতীয় পৃষ্ঠপোষকতা।

গত নভেম্বরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুরেশি এবং সামরিক মুখপাত্র মেজর জেনারেল বাবর ইফতিখার আরেকটি প্রমাণপত্র উপস্থাপন করেন যাকে তারা "জাতিসংঘ কর্তৃক চিহ্নিত সন্ত্রাসী গোষ্ঠীসহ একাধিক সন্ত্রাসী সংগঠনে ভারতের আর্থিক ও বস্তুগত পৃষ্ঠপোষকতার অকাট্য প্রমাণ" বলে উল্লেখ করেন। জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের হাতে নথিও হস্তান্তর করা হয়েছে।

গতকাল রবিবার সংবাদ সম্মেলনের সময়, পাকিস্তানি কর্মকর্তারা আরও বলেন, তাদের কাছে ভারতীয় নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে বিচারবহির্ভূত হত্যার "শক্ত প্রমাণ" রয়েছে, যা ভারতীয় সেনাবাহিনী কর্তৃক ভুয়া এনকাউন্টার এবং মিথ্যা পতাকা অভিযানের মাধ্যমে সংঘটিত হয়েছে। কুরেশি বলেন, নতুন ডোজিয়ারে যুদ্ধাপরাধের ৩৪৩২টি মামলার বিবরণ রয়েছে, যেখানে ১,১৭৮ ভারতীয় সেনা জড়িত বলে প্রমাণিত হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা আশা করি যে, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় যুদ্ধাপরাধের দায়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাজ্য এবং অন্যান্যরা সুনির্দিষ্ট বৈশ্বিক মানবাধিকার অনুমোদন ব্যবস্থার অধীনে ভারতের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
ABU ABDULLAH ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:৫৪ পিএম says : 0
এতদিন পর... হুশ হইল এ হুশ হইতে হইতে তাদের দেশ কে হিন্দুরা সারা বিশ্বে সন্ত্রাসী বলে প্রচার করিতে থাকিল এখন হুশ হয়ে লাভ কি আপনারা আগে কোথায় ছিলেন দেরিতে হুশ হইলে ও প্রচার করিতে থাকেন হিন্দুরা যে আসল সন্ত্রাসী বিশ্ব তা জানুক
Total Reply(0)
Harun ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৪:৩১ এএম says : 0
....ra chikon buddi Dia shontrashi kore. Pura South Asia te joto jongi kormo kando ase shob gular jonno ugro ......., RSS, ISKON Daye. Varot ekmatro jongi rastro Jake kokhono bishash Kora jaina.
Total Reply(0)
abbas ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:১১ এএম says : 0
তাহলে এতোদিন পর প্রমাণ হলো আই এস ভারতের সৃষ্টি।
Total Reply(0)
রায়হান ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৪:০৭ পিএম says : 0
বাংলাদেশে যে হামলা হয়েছে এর পিছনেও ভারত ছিল। ভারত থেকেই অর্থ অস্ত্র এবং প্রশিক্ষণ নেয় এসব সন্ত্রাসীরা।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন