রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তালেবান সরকারে আস্থা রাখছে পাকিস্তান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

ইন্টার-সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশন্স (আইএসপিআর) এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল বাবর ইফতিখার বলেছেন, পাকিস্তান আত্মবিশ্বাসী ছিল যে, তালেবান কোন সন্ত্রাসবাদী সংগঠনকে পাকিস্তানসহ যেকোন দেশের বিরুদ্ধে আফগান মাটি ব্যবহার করতে না দেয়ার প্রতিশ্রুতি পূরণ করবে।

উর্দু নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আইএসপিআরের ডিজি বলেন, পাকিস্তানসহ অন্য যেকোনো দেশের বিরুদ্ধে যেকোনো রকম সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাতে আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করতে কোনো সন্ত্রাসী গ্রুপ বা সংগঠনকে অনুমোদন দেবে না তালেবানরা। তারা বার বার বিভিন্ন সময়ে এ প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তাদের এই প্রবণতা নিয়ে আমাদের সন্দেহের কোনো কারণ নেই। আফগানিস্তানে তালেবানদের সঙ্গে পাকিস্তান নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান থেকে শুরু করে গোয়েন্দা বিভাগ ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশন্সের মহপরিচালক- সবাই নিজেদের দেশের নিরাপত্তার জন্য আফগানিস্তানে একটি শান্তিপূর্ণ ও স্থিতিশীল সরকার গঠনের জন্য কাজ করছেন। তাদেরকে বিভিন্ন ইস্যুতে পরামর্শ দিচ্ছেন।

বাবর ইফতিখার বলেছেন, তাদের দেশের নিরাপত্তার স্বার্থেই আফগানিস্তানের তালেবানদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করছে পাকিস্তান। তিনি বলেন, শান্তি ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে তালেবানরা যে নিশ্চয়তা দিয়েছে, তাতে সন্তুষ্ট পাকিস্তান। তিনি আরো বলেন, আমরা তাদের সঙ্গে অব্যাহতভাবে যুক্ত আছি শুধু আমাদের জাতীয় স্বার্থ রক্ষার জন্য। পাকিস্তানের বড় উদ্বেগ হলো নিষিদ্ধ তেহরিকে তালেবান পাকিস্তান-এর (টিটিপি) উপস্থিতি আছে আফগানিস্তানে।

সাক্ষাৎকারে জেনারেল বাবর জোর দিয়ে বলেন, আফগানিস্তানের সঙ্গে ২ হাজার ৬০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্তে বেড়া নির্মাণের আলোচনা এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সীমান্তের পাকিস্তান অংশে সব সময়ই উত্তম ব্যবস্থাপনা আমাদের লক্ষ্য। এ অঞ্চলের ভূখণ্ড এবং অন্যান্য জটিলতার কারণে দুই দেশের মধ্যে সীমান্তে বেড়া নির্মাণ বড় দায়িত্ব হয়ে পড়েছে। সব জটিলতা সত্ত্বেও পাকিস্তান এরই মধ্যে সীমান্তের শতকরা ৯০ ভাগ এলাকায় বেড়া নির্মাণ সম্পন্ন করেছে। তিনি আরো বলেন, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা ক্রমশ উন্নত হচ্ছে। আমরা আশা করি অদূর ভবিষ্যতে তা পুরোপুরি নিরাপদ হবে। সূত্র : ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন