মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কালীগঞ্জে টিসিবির ৬০০ কেজি পেঁয়াজ পাওয়া গেলেও, হদিস নেই ডাল, চিনি ও তেলের

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০২১, ৩:৪০ পিএম

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের থানা রোডে টিসিবির ৬০০ কেজি পেঁয়াজ ও একটি পিকআপ পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে ঘটনাটি ঘটে, এ সময় পিকআপের চালক পলাতক ছিল। ঝিনাইদহ থেকে টিসিবির পন্য উত্তোলন করলেও জানানো হয়নি দায়িত্বরত ট্যাগ কর্মকর্তাকে।

খবর পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ‚পালী সরকার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পিকআপে কাউকে না পেয়ে থানা পুলিশের কাছে জব্দকৃত পেঁয়াজ ও পিকআপ থানায় নিয়ে গিয়ে নিয়মিত মামলা দেওয়ার নির্দেশ দেন। পরে তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন পেঁয়াজগুলো টিসিবির ডিলার মৃধা জেনারেল স্টোরের সরোয়ার হোসেন শিপন মৃধার।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে শহরের কাঁচামাল ও পাকামাল আড়ৎ ইমা বাণিজ্য ভান্ডারে টিসিবির ডিলার সরোয়ার হোসেন শিপন পেঁয়াজগুলো বিক্রির উদ্দ্যোশে ফিরোজ নামের একজনের কাছে পাঠান। কিন্তু তিনি টিসিবির পেঁয়াজ না কিনতে অস্বীকৃতি জানান। এরপর সেগুলো অন্যস্থানে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা আটক করে পুলিশ ও ইউএনওকে খবর দেন।

ইমা বাণিজ্য ভান্ডারের ম্যানেজার ফিরোজ হোসেন জানান, সকালে টিসিবির ডিলার সরোয়ার হোসেন শিপন ফোন করে পেঁয়াজগুলো কিনতে অনুরোধ করেন। কিন্তু তিনি পিকআপসহ পেঁয়াজগুলো ফেরত পাঠিয়ে দেন।

টিসিবির ডিলার মৃধা জেনারেল স্টোরের মালিক সরোয়ার হোসেন শিপন মৃধা জানান, সকালে তিনি পন্য উত্তোলনের কথা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানিয়েছিলেন। সকালে বারবাজার এলাকায় চিনি, তেল ও ডাল বিক্রি করেছেন। পেয়াঁজগুলো সেখানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।

মৃধা জেনারেল স্টোরের ট্যাগ অফিসার ও উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার তরুন কুমার দাস বলেন, সরকারি নিয়ম আছে কোন ডিলার পন্য উত্তোলন করলে অবশ্যই ট্যাগ অফিসারকে জানাতে হবে। কিন্তু তিনি পন্য উত্তোলন করলেও জানানো হয়নি। তিনি কিছুই জানেন না।

কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ‚পালী সরকার জানান, মঙ্গলবার সকালে ঝিনাইদহ থেকে টিসিবির ডিলার মৃধা জেনারেল স্টোরের মালিক সরোয়ার হোসেন শিপন মৃধা ৩০০ কেজি চিনি, ডাল ৩০০ কেজি, তেল ৪০০ লিটার ও ৬০০ কেজি পেঁয়াজ উত্তোলন করেন। কিন্তু পিকআপে চিনি, ডাল ও তেল পাওয়া যায়নি। ১৪ বস্তায় ৬০০ কেজি পেয়াজ পিকআপে ছিল। সেগুলো জব্দ করা হয়েছে। টিসিবির পন্য কেউ এভাবে বিক্রি করতে পারেন না।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া জেরিন জানান, ডিলার সরোয়ার হোসেন শিপন মৃধা পন্য উত্তোলনের কোন তথ্য জানান নি। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত বছর এপ্রিল মাসে টিসিবির পণ্য রাতের আধারে গোডাউন থেকে সরানোর সময় জনতার হাতে ধরা পড়ে মোবাইল কোর্টে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সূবর্ণা রানী সাহাকে দশ হাজার টাকা জরিমানা ও মুসলেকা দিয়ে রক্ষা পান মৃধা জেনারেল স্টোরে মালিক শিপন মৃধা।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন