শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ওস্তাদ জোরে চালান সামনে স্টুডেন্ট’

হাফ ভাড়া : শিক্ষার্থী দেখলে বাস থামে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাস দেখাতে ছাত্রছাত্রীদের অনীহা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

রাজধানী ঢাকার শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকরের পর নতুন প্রতারণায় নেমেছে পরিবহন শ্রমিকরা। বাসের ড্রাইভার ও কন্টাক্টরদের চালাকিতে নতুন করে বিড়ম্বনায় পড়ছেন শিক্ষার্থীরা। রাজধানীর বিভিন্ন স্পটে দেখা গেছে শিক্ষার্থীদের দাঁড়িয়ে থাকতে দেখলেই বাস সে স্পটে বেশির ভাগ বাস থামছে না।

রাজধানীর বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকরের প্রথম দিন ছিল গতকাল বুধবার। এ সময় আইডি কার্ড না দেখিয়ে হাফ ভাড়া দিতে চাওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীর সঙ্গে বাস কন্ডাক্টরদের কথা কাটাকাটি হয়। বিশেষ করে অনেক নারী শিক্ষার্থী কার্ড দেখানোর পরও হাফ ভাড়া নিতে চাননি অনেক বাসের কন্ডাক্টর। এছাড়া অনেক স্ট্যান্ডে শিক্ষার্থীদের দেখে গাড়ি না থামিয়ে চলে যেতে দেখা গেছে বাস চালকদের। গতকাল বুধবার রাজধানীর শনির আখড়া, গুলিস্থান, আজিমুপর, ঢাকা মেডিক্যাল রুটে ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।
সরেজমিনে গিয়ে কথা হয় ইডেন মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী তাপসি রাবেয়া জান্নাতের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমি ঢাকার মাতুয়াইলে ভাড়া থাকি। সেখান থেকে আজিমপুরে কলেজে যেতে বাসে ভাড়া দিতে হয় ৩০ টাকা। কলেজ কার্ড দেখানোর পরও হাফ ভাড়া নেয়নি কন্ডাক্টর। তিনি বলেন, কন্ডাক্টর আমাকে জানান হাফ ভাড়ার বিষয়ে বাসের মালিক তাদের কোনো নির্দেশনা দেয়নি। তাই তার পক্ষে হাফ ভাড়া নেওয়া সম্ভব নয়।

যাত্রাবাড়ীর বাসিন্দা ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী তারেক সালমান বলেন, আগে কলেজ যাওয়ার জন্য বাস ভাড়া ছিল ২৫ টাকা। তেলের দাম বাড়ায় ভাড়া ৩৫ টাকা হয়েছে। তখন হাফ ভাড়া নেওয়ায় আমি ভাড়া দিতাম ২০ টাকা। অনেক বাসে হাফ ভাড়া নিয়েছে, অনেক বাসে হাফ ভাড়া নেয়নি। করোনার কারণে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় অনেক শিক্ষার্থীর আইডি কার্ড নেই। আবার অনেক শিক্ষার্থীর কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়েছে। এখন তারা কার্ড নবায়ন করতে দেওয়ায় বাসে আর হাফ ভাড়া নিচ্ছে না।

ইন্ডিপেন্ডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জহিরুল ইসলাম বলেন, বাসের কন্ডাক্টর লেখাপড়া জানেন না। আমার কার্ড হাতে নিয়ে তিনি প্রথমে হেলপারকে দিলেন সেটা আসল না নকল জানতে। হেলপার ডাক্তারের মতো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বলছেন মনে হয় ভুয়া কার্ড। অতপর সে কার্ড ড্রাইভারকে দেয়া হলো। তিনি বলছেন, হ হেতের কার্ড ভুয়া। এতোক্ষণ বাসের অন্যান্য যাত্রীরা ঘটনা প্রত্যক্ষ করেন। অতপর, এক যাত্রী ড্রাইভারের কাছে কার্ড বানান করতে বললেন। ড্রাইভার সেই বানান করতে পারলেন না। এ সময় যাত্রীরা কন্ডাক্টরকে মারতে উদ্ধৃত হলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়। পরে বাধ্য হয়েই হাফ ভাড়া নেয়।

এদিকে বাসে অর্ধেক ভাড়া দেওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দেওয়া ছবিযুক্ত আইডি কার্ড দেখাতে হচ্ছে। বেশিরভাগ শিক্ষার্থী আইডি দেখিয়ে বাসে চলাচল করলেও কিছু শিক্ষার্থীর মধ্যে এ ব্যাপারে অনীহা দেখা গেছে। আর এ নিয়ে চালকের সহকারীর সঙ্গে কিছু শিক্ষার্থীর কথা কাটাকাটি হতেও দেখা গেছে। শাহবাগ থেকে বিআরটিসির বাসে ওঠা তেজগাঁও কলেজের এক শিক্ষার্থী অর্ধেক ভাড়া দেওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আইডি কার্ড দেখতে চান হেলপার। কিন্তু এতে বিরক্তি বোধ করেন ওই শিক্ষার্থী। তিনি হেলপারকে বলেন, দেখছেন তো কলেজ ড্রেস পরা। এতে কী প্রমাণ হয় না আমি ছাত্র? পরে ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, ভাই, আমাদের গায়ে তো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ড্রেস রয়েছে। কারওয়ান বাজারে শিকড় পরিবহনে উঠে দেখা যায়, বাসে চড়া উদয়ন স্কুলের কয়েকজন শিক্ষার্থীর কাছে ভাড়া চাইলে তারা হাফ ভাড়া দেন এবং তাদের আইডি কার্ড দেখান। এমন দৃশ্য চোখে পড়ে ট্রাস্ট পরিবহনেও।

বেশ কিছু বাসের হেলপারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অর্ধেক ভাড়া নেওয়ার শুরুর দিনে বেশিরভাগ শিক্ষার্থী হাফ ভাড়া দেওয়ার সময় আইডি কার্ড দেখতে চাইলে তারা সহযোগিতা করেছেন। তবে দু-একজন শিক্ষার্থী এ ব্যাপারে অনীহা দেখায়। স্বাধীন পরিবহনের চালকের সহকারী ইদ্রিস বলেন, সব শিক্ষার্থীদের থেকে হাফ ভাড়া নিচ্ছি। মালিক আমাদের বলে দিয়েছেন আইডি কার্ড দেখানো ছাড়া হাফ ভাড়া না নিতে। কিন্তু অনেক মামারা আইডি না দেখিয়ে বলছেন, তারা শিক্ষার্থী না হলে হাফ ভাড়া দেবেন কেন? খাজাবাবা পরিবহনের চালকের সহকারী হানিফ মিয়া বলেন, আমরা সব শিক্ষার্থীদের থেকে অর্ধেক ভাড়া নিচ্ছি। তবে একটা সমস্যা হচ্ছে, অনেক সময় দেখা যায় অর্ধেক ভাড়া মেলানো কঠিন। কেউ কেউ আইডি দেখাচ্ছে আবার অনেকে দেখাতে চাচ্ছেন না। তবে বিআরটিসির বাসগুলোতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নিতে দেখা গেছে। কিন্তু রাষ্ট্রায়ত্ত¡ এ প্রতিষ্ঠানটির বাসের সংখ্যা ঢাকার যাত্রীর তুলনায় অনেক কম।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ছাত্র বুঝতে পেরে অনেক স্ট্যান্ডেই বাস থামাননি চালকরা। উল্টো হেল্পার হাঁক ছেড়ে বলেন, ‘ওস্তাদ সামনে স্টুডেন্ট জোরে চালান।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মোহাম্মদ রাসেল বলেন, সকাল ৯টার দিকে রায়েরবাগ বাসস্ট্যান্ডে ২০/২৫ জন ছাত্র দাঁড়িয়ে ছিলেন। ছাত্র বুঝতে পেরে ঠিকানা, নীলাচলসহ ৭/৮টি বাস না থেমে সেখান থেকে চলে যায়।
জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, ঢাকা মহানগরীতে বেসরকারি মালিকানাধীন বাসে হাফ ভাড়া কার্যকর হয়েছে। বাসে যাতায়াতকারী শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই পরিচয়পত্র দেখাতে হবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআরটিসি) চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বলেন, সারা দেশে বিআরটিসির বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর হয়েছে। বিআরটিসির সব বাসের চালক ও কন্ডাক্টরসহ সবাইকে এটি কার্যকর করতে নির্দেশনা দিয়েছি। বিআরটিসির কোনো বাস নির্দেশনা না মানলে অভিযোগ পেলে আমরা ব্যবস্থা নেব।’

এর আগে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির কেন্দ্রীয় নেতা খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, বুধবার থেকে ঢাকায় চলাচল করা বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নেওয়া হবে। আইডি কার্ড থাকার পরেও কোনো বাসে হাফ ভাড়া না নিলে অভিযোগ পেলে মালিক সমিতি দ্রুত ব্যবস্থা নেবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Md Tanvir Ahmed ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৫ এএম says : 0
এদের কে আইনের আওতায় আনা উচিত
Total Reply(0)
Jamalul Islam Jamal ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৫ এএম says : 0
ছাত্রদের জন্য মনে হয় বিপদ বাড়লোই। আগে ভাড়া দিয়ে হলেও বাসে উঠতে পারতো, এখন বাসে আর উঠতেই পাবে না! বাস মালিক ও চালকদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক। তাদের লাভ/লোভের কারণে যাতে কোনো শিক্ষার্থীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া আসায় বিঘ্ন না ঘটে।
Total Reply(0)
Emran Hossen Pothik ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৬ এএম says : 0
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর নিজস্ব পরিবহন সুবিধা থাকার কথা।।। সেখানে নিজের টাকায় কেনা গাড়ি, তেল গ্যাস, আবার রাস্তায় চাঁদা দিয়ে কে চাইবে অর্ধেক ভাড়ায় যাত্রী পরিবহন করতে।।
Total Reply(0)
সাব্রিনা সুলতানা মুন্নি ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৬ এএম says : 0
আজব বাংলাদেশ
Total Reply(0)
Sobuj Sobuj ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৬ এএম says : 0
এসব বাসের কর্মচারীকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় কান ধরে উঠবস করানো উচিৎ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps