বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

শীতের সবজিতে ভরে গেছে কাঁচা বাজার, দাম কমায় স্বস্তি

ঝিনাইগাতী ( শেরপুর ) থেকে সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ৪:০৮ পিএম

শীতের সবজিতে ভরে গেছে গারো পাহাড়ের কাঁচা বাজার। দাম ও কমতে শুরু করেছে। এতে স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ মানুষের মাঝে। সরবরাহ বাড়ায় এবং দাম কমে আসায় সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে সবজি। সরেজমিন রোববার ঝিনাইগাতী, শ্রীবরদী এবং নালিতাবাড়ির কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে এই চিত্র। সরবরাহ বাড়ায় শীতের সবজিতে ভরে উঠেছে এসব গারো পাহাড়ের কাঁচা বাজার। সাধারণ মানুষও টাটকা সবজি পেয়ে বেজায় খুশি। দাম কমে আসায় শাক-সবজি খাওয়া বাড়িয়ে দিয়েছেন ভোক্তারা। ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আসায় পাওয়া যাচ্ছে ফুলকপি, বাধাকপি, সিম, নতুন আলু, লাউসহ, বিভিন্ন শাক-পাতা। গত মাসে যে কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে ২০০ টাকা কেজিতে। তা বিক্রি হচ্ছে এখন ৪০-৫০ টাকা কেজি দরে। মাছের দামও গত মাসের চেয়ে কমেছে। তবে মাংসের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। দাম বেড়েছে দেশীয় মোরগ-মুরগী, চাল, ডাল, আটা, ময়দা,সয়াবিন তেলের। দাম কমেছে পুরাতন আলু, পেঁয়াজ, রসুন ও পামওয়েলের। স্থিতিশীল রয়েছে গরু-খাসির মংস, চিনি ও মসুর ডালের বাজার। প্রসঙ্গঁত. শেরপুরের গারো পাহাড়ে প্রচুর শাক-সবজি উৎপন্ন হয়। ঢাকাসহ সর্বত্রই এখন শীতের শাক-সবজির দাম কমতির দিকে। তাই স্থানীয় হাট-বাজারে শীতের শাক-সবজির সরবরাহ বেড়ে গেছে। দাম যখন বেশী ছিল তখন প্রতি দিন ট্রাকে ট্রাকে শাক-সবজি ঢাকাসহ অন্যান্য স্থানে বিক্রির জন্য নিয়ে যেতো কৃষকরা। এখন ও নিয়ে যাচ্ছে তবে তুলনামূলকভাবে কম। এ কারণে স্থানীয় ভাবে দাম কমতে শুরু করেছে বলে কৃষকদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে। সপ্তাহখানেক আগেও ফুলকপি ৫০-৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হলেও এখন বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা কেজিতে। একইভাবে অন্যান্য সবজির দামও কমেছে। আগে ৭০-৮০ টাকার কমে সবজি না পাওয়া গেলেও এখন নেমে এসেছে ৩৫-৪০ টাকার মধ্যে। এ জন্য সাধারণ ক্রেতাগণ সবজি কেনাকাটা আগের চেয়ে বাড়িয়েছেন। ক্রেতা ডা. আব্দুল বারী, সরোয়ার্দী দুদু মন্ডল, খোরশেদ আলম, আর্টিস আব্দুস সালাম, ডা. শাহজাহান ও অশ্রাফুল আলম বলেন, শীতের সবজি খেতে স্বাদ ও এর একটি আদি ঐতিহ্য রয়েছে। আমরা সাধারণ মানুষ সারাবছর মুখিয়ে থাকি শীতের সবজির জন্য। হাইব্রিড সবজি উৎপাদন শুরু হওয়ায় সারা বছর সবজি মিললেও সেই সবজি খেতে শীতের সবজির মতো তেমন স্বাদ হয় না। তাই শীতের সবজির কদর ও বেশী, স্বাদ ও বেশী। ক’জন সবজি বিক্রেতা বলেন,বাজারে শীতের সবজির সরবরাহ এখন বেড়েছে। যতই দিন যাবে ততই বাড়বে। এ কারণে দাম ও কমে আসবে। বর্তমানে নতুন আলু ৪০-৫০ কেজিতে বিক্রি হলেও সপ্তাহকাল পরই দাম আরো কম যাবে। অন্যদিকে মুদিপণ্যের দাম বেড়েছে নিত্যপণ্যের বাজারে। এর মধ্যে চালের দাম বেড়েছে প্রকারভেদে ২-৩ কেজিতে। দাম বেড়েছে ময়দার দাম। সয়াবিন তেলের দাম বেড়ে লিটার ১৪০-১৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দাম কমেছে পামওয়েল ও দেশী পেঁযাজ, রসুনের। দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগীর। সরবরাহ বেড়েছে মাছের বাজারে। তাই দাম আগের চেয়ে একটু কম। নদী-নালা খাল বিল শুকিয়ে যাওয়ায় দেশীয় মাছ পাওয়া যাচ্ছে মুটামুটি সহনিয় দামেই। তবে ইলিশের দাম অপরিবর্তিতই রয়েগেছে।
এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ হুমায়ুন কবির বলেন, গারো পাহাড়ে প্রচুর সবজির আবাদ হয়েছে সবজির দাম আরো কমে যাবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ফারুক আল মাসুদ বলেন সবজির আবাদ ও ফলন ভাল হওয়ায় আস্তে আস্তে সবজির দাম সাধারণ মানুষের ক্রয় খমতার মধ্যে চলে আসবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন