ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

ব্যবসা বাণিজ্য

মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মচারীদের দু’গ্রুপে দ্বন্দ্বে সিবিএ’র কার্যালয়ে তালা

প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মংলা সংবাদদাতা : মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মচারীদের দু’গ্রুপের দ্বন্দ্বের কারণে সিবিএ’র কার্যালয়ে এক সপ্তাহ ধরে তালা ঝুলছে। পুলিশ ও বন্দরের নিরাপত্তা বিভাগের কর্মীরা বিবাদমান দু’গ্রুপকে সিবিএ’র কার্যালয়ে প্রবেশ না করতে নির্দেশনা দিয়েছে। আর এ নিয়ে বন্দর এলাকায় চরম উত্তোজনা বিরাজ করছে।
গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় বন্দর কর্মচারী সংঘের বর্তমান পরিষদের নেতারা এক সংবাদ সম্মেলনে উদ্ভুদ পরিস্থিতির জন্য প্রতিপক্ষ গ্রুপকে দোষারোপ করেন।
মংলা প্রেসক্লাবে আয়েজিত এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সংঘের সভাপতি মোঃ সাইজদ্দিন মিয়া অভিযোগ করে বলেন, সিবিএ’র নেতৃত্ব ও কর্তৃত্ব দখল নিতে প্রতিপক্ষ গ্রুপ সম্প্রতি নির্বাহী পরিষদ নামে অবৈধভাবে একটি কমিটি গঠন করে। আর এ কমিটি তাদের বিরুদ্ধে নানারকম অপতৎপরতা চালাচ্ছে। তিনি অভিযোগ করেন, কথিত নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আজাদুল ইসলাম বন্দরের কর্মকর্তা হয়ে কর্মচারীদের সিবিএ’র নেতৃত্ব করতে পারেন না। আর তিনি নেতৃত্বে থাকলে কর্মচারীদের কোন মঙ্গল হবে না। কারণ তিনি কর্মকর্তা হয়ে কর্মচারীদের বার্ষিক দাবি-দাওয়াসহ কোন প্রস্তাবনা বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। এতে কর্মচারীদের মধ্যে বিশৃংখলার সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, মামলা জটিলতার কারণে গত ৫ বছর সিবিএ’র ত্রি-বার্ষিক নিবাচন স্থগিত হয়ে আছে। শিগ্রই এ জটিলতা নিরসনসহ নির্বাচনী প্রক্রিয়া সম্প্রন করা হবে বলে জানান তিনি। এ দিকে সংবাদ সম্মেলন চলাকালে মারমুখী অবস্থান নিয়ে সিবিএ’র অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ হোসেন অপমান অপধাস্ত করেন পরিষদের অন্য নেতাদের। নিজের পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক খেরশেদ আলম পল্টু’র দায়িত্বে থাকার বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। পরে উপস্থিত কর্মচারীরা তাকে নিভৃত করেন এবং সংবাদ সম্মেলনের হলরুম থেকে তিনি বেরিয়ে যান। এ সংবাদ সম্মেলনে কর্মচারী সংঘের ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি আব্দুল মান্নান মল্লিক, সহ-সভাপতি মোঃ হারুনউর রশিদ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক খেরশেদ আলম পল্টু, যুগ্নসাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান শবিক, সহ-সাধারণ মোঃ ফারুকুজ্জামন বকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক হাসানুল ইসলাম রতনসহ পরিষদের অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন