শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

শেয়ারবাজারে প্রথমবারের মতো সুকুকের লেনদেন শুরু

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৫৭ এএম | আপডেট : ১২:০৯ পিএম, ১৩ জানুয়ারি, ২০২২

দিনের সর্বোচ্চ মূল্যবৃদ্ধি দিয়ে শেয়ারবাজারে শুরু হয়েছে বেক্সিমকো গ্রিন সুকুক বন্ডের। আজ বৃহস্পতিবার থেকে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) একযোগে এই বন্ডের লেনদেন শুরু হয়।

ডিএসই ও সিএসই জানিয়েছে, এই বন্ডই এখন পর্যন্ত দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ইসলামি শরিয়াহভিত্তিক প্রথম বন্ড। এ বন্ডের তালিকাভুক্তি উপলক্ষে আজ সকাল ১০টায় লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইর পক্ষ থেকে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা এবং বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান। বিশেষ অতিথি থাকবেন পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম।

ডিএসই জানিয়েছে, নতুন তালিকাভুক্ত পাঁচ বছর মেয়াদি ৩ হাজার কোটি টাকার এ বন্ডের অভিহিত মূল্য ১০০ টাকা। আজ সকালে এটির লেনদেন শুরু হয় দিনের সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ বা ১০ টাকা মূল্যবৃদ্ধি দিয়ে। তাতে ১০০ টাকা অভিহিত মূল্যের এ বন্ডের লেনদেন শুরু হয় ১১০ টাকায়। পরে অবশ্য সাড়ে ১০টার দিকে এটির দাম কমে ১০৪–১০৫ টাকায় নেমে আসে।

নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি হিসেবে ‘এন’ শ্রেণিতে এই বন্ডের লেনদেন শুরু হয়েছে। ফলে, নিয়ম অনুযায়ী এ বন্ড কেনার ক্ষেত্রে ৩০ কার্যদিবস ঋণসুবিধা পাবেন না বিনিয়োগকারীরা।

সাম্প্রতিক সময়ে শেয়ারবাজারের সবচেয়ে আলোচিত বন্ড এটি। ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, ৩ হাজার কোটি টাকার এ বন্ডের ২ হাজার ৪৪০ কোটি টাকা বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী, ৪২৩ কোটি টাকা সাধারণ বিনিয়োগকারী, ১৩৫ কোটি টাকা অবলেখনকারী বা আন্ডার রাইটারদের কাছ থেকে এবং বাকি প্রায় ২ কোটি টাকা বেক্সিমকো গ্রুপের বিদ্যমান শেয়ারধারীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা হয়। তবে সাধারণ বিনিয়োগকারী ও বিদ্যমান বিনিয়োগকারীরা এ বন্ড কেনায় আগ্রহ কম দেখিয়েছিলেন। ফলে তাঁদের জন্য সংরক্ষিত অংশ পরবর্তী সময়ে আন্ডার রাইটার ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে বিক্রি করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (14)
সাইফ আহমেদ ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:২৪ পিএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ
Total Reply(0)
Mir Irfan Hossain ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৩৪ পিএম says : 0
Very good initiative. Well wishes for beximco
Total Reply(0)
মোঃ নাজমুল ইসলাম ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৩৪ পিএম says : 0
সুকুক বন্ড জনগণের মাঝে ভালো সাড়া ফেলবে আশা করি। দেশের অর্থনীতিতেও অবদান রাখবে।
Total Reply(0)
শাহীন হাসনাত ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৩৫ পিএম says : 0
মুসলমান হিসেবে আমরা চাই ইসলামি অর্থ নীতি ব্যবস্থা। সেটা এখনও সম্ভব না হলেও শরিয়াহভিত্তিক ইসলামি ‘সুকুক’ বন্ড আমাদের সেই আশা অনেকটাই পুরণ করবে
Total Reply(0)
আমিনুল ইসলাম ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৩৬ পিএম says : 0
দেশের মানুষ এ ধরণের ইসলামী বণ্ডের জন্য দীর্ঘদিন অপেক্ষায় ছিলো।
Total Reply(0)
গোলাম মোস্তফা ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৩৭ পিএম says : 0
আল্লাহ ব্যবসাকে হালাল করেছেন। হালালভাবে ব্যবসার মাধ্যমে আমরা আল্লাহ তায়ালার নৈকট্য অর্জন করতে পারি। তাই ৯০ ভাগ মুসলমাদের দেশে এই শরিয়াহভিত্তিক ইসলামি বন্ড সুকুকে বিনিয়োগের সুবর্ণ সুযোগ মানুষ সাদরে গ্রহণ করবে
Total Reply(0)
তৌহিদুজ জামান ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪০ পিএম says : 0
সুকুক চালু একটি ভালো উদ্যাগ। তবে আমাদের দেশের আলেম-ওলামাদের সঙ্গে আলোচনা করে সুকুককে নিখুত করতে হবে।
Total Reply(0)
নুর নাহার আক্তার নিহার ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪০ পিএম says : 0
বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মাঝে সুকুক ব্যাপক সাড়া ফেলবে। শুভ কামনা রইলো।
Total Reply(0)
নোমান মাহমুদ ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪১ পিএম says : 0
হালাল জিনিসে বরকত আছে। উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ।
Total Reply(0)
আহমেদ জামাল ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪৩ পিএম says : 0
শরীয়াহ্ভিত্তিক সুকুক ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে। এরপরও এক্ষেত্রে ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে।
Total Reply(0)
Simul Akter ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪৩ পিএম says : 0
ইসলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবন ব্যবস্থা। ইসলামী অর্থনীতি সেই ইসলামী জীবনব্যবস্থার এক অপরিহার্য অংশ। ইসলামী অর্থব্যবস্থা মানব কল্যাণময়, বৈজ্ঞানিক এবং ভারসাম্যপূর্ণ অর্থব্যবস্থা। ইসলামী অর্থনীতি পুঁজিবাদী বা সমাজবাদী যে কোন অর্থব্যবস্থার তুলনায় প্রগতিশীল এবং মানবতার জন্য কল্যাণকর।
Total Reply(0)
Nozmul Islam ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪৪ পিএম says : 0
হালাল পথে আয় কম হোক কিংবা বেশি হোক আমরা সেই পথটাই বেছে নেবে, কারণ আমরা মুসলমান
Total Reply(0)
Shariful Islam ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪৭ পিএম says : 0
মালয়েশিয়ার দৃষ্টান্ত ফলো করা উচিত। অধিক পরিমাণে সুকুক বন্ড বাজারে ছাড়া হউক। ইসলামিক বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেতেই থাকবে।
Total Reply(0)
করিম উদ্দীন ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৪৮ পিএম says : 0
সুদমুক্ত সমাজ গঠনে এ ধরণের বন্ড বাজারে আনায় বেক্সিমকোকে ধন্যবাদ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন