বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

শেষ পিএসএলও শেষ করা হলো না আফ্রিদির

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

বয়স ৪১। এই বয়সেও খেলা চালিয়ে যাওয়াটাই যেখানে দুষ্কর, সেখানে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণে তরুণদের সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। কিন্তু আসলেই কি তাই? গোপন চোট নিয়ে বছরের পর বছর খেলা চালিয়ে যান অনেক ক্রিকেটার। আফ্রিদিরও এমন এক চোট আছে, যা তিনি ১৫-১৬ বছর ধরে বয়ে বেড়াচ্ছেন। আর সেই চোটই নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠায় পিএসএলের বাকি মৌসুমে খেলা হচ্ছে না তার। ইউটিউবে নিজের অফিশিয়াল চ্যানেলে আফ্রিদি লিখেছেন, ‘পিএসএলটা ভালোভাবে শেষ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ১৫-১৬ বছর ধরে পিঠের নিচের অংশে চোট নিয়ে খেলছি, ব্যথা এত তীব্র যে কোমর, হাঁটু, এমনকি আঙুলেও অনুভব করি।’
এবার পিএসএলে খেলেই সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আফ্রিদি। গত বছরের আগস্টে সংবাদকর্মীদের বলেছিলেন, সম্ভবত এবারই শেষবারের মতো পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) খেলবেন। কিন্তু এদিন নতুন এক ইচ্ছার কথা জানালেন এ অলরাউন্ডার। চোট নিয়ে কথা বলতে গিয়েই কাশ্মীর প্রিমিয়ার লিগে (কেপিএল) খেলার ইচ্ছার কথা জানান তিনি, ‘স্বাস্থ্যই সব, কিন্তু ব্যথাটা অসহ্য লাগছে। পিএসএলের দুই-তিন মাস পর কেপিএল শুরু হবে। পিএসএল ভালোভাবে শেষ করতে চাইলেও পারলাম না। ভক্তদের বলেছিলাম, এটাই আমার শেষ পিএসএল হতে পারে। কিন্তু আরও একবার নিজেকে প্রস্তুত করতে চাই। কারণ, সামনে ক্রিকেট আছে, কেপিএল ও টি১০ হবে। পুরোপুরি ঠিক হতে দুই-তিন মাস তো লাগবেই। ভক্তদের জন্য আমি আবারও মাঠে ফিরব, দোয়া রাখবেন।’
পিএসএলে এবার কোয়েটা গ্লাডিয়েটর্সের হয়ে খেলছিলেন আফ্রিদি। গতপরশু ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের বিপক্ষে কোয়েটার জয়ের পর এই ফ্র্যাঞ্চাইজি প্রতিযোগিতা থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত জানান তিনি। গতকাল নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টেও জানিয়েছেন, ‘বিদায় পিএসএল। শরীরটা ব্যথায় কাতর।’ ৪ ওভার বল করে ২ উইকেট পেলেও ব্যাটিংয়ে নামতে হয়নি আফ্রিদিকে। এদিন উইকেট নেওয়ার পর দুহাত ছড়িয়ে নিজের চিরায়ত উদযাপন করতে গিয়ে পিঠের নিচের অংশে ব্যথাটা অনুভব করেন আফ্রিদি। দেখে বোঝাই যাচ্ছিল, ব্যথাটা পুরোনো। পিঠে একটু হাত দিয়ে পরে আর পাত্তা দেননি। অর্থাৎ এ ব্যথা সয়ে সয়ে খেলতে তিনি অভ্যস্ত হয়ে গেছেন। কিন্তু ব্যথাটা পরে আরও তীব্র হয়ে ওঠাতেই সম্ভবত পিএসএল থেকে সরে দাঁড়ালেন। তার সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত জানানোর পর তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করে টুইট করেন পাকিস্তানের পেসার শাহিন আফ্রিদি। এমনিতে অবশ্য এই দুই আফ্রিদি আত্মীয়তার বন্ধনে আবদ্ধ হতে যাচ্ছেন। আফ্রিদির বড় মেয়ে আকসা আফ্রিদি এই বাঁহাতি পেসারের ‘বাগদত্তা।’ ভবিষ্যৎ শ্বশুরকে নিয়ে শাহিনের টুইট, ‘পিএসএলে আপনার অভাব টের পাব। আপনি পাকিস্তানের গর্ব। দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps