মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ০৫ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

লম্বা বিরতি শেষে ফের মাঠে বিপিএল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০১ এএম

মার্চের ফিফা উইন্ডোতে দু’টি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের জন্য লম্বা বিরতি শেষে ফের মাঠে ফিরছে ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। আজ থেকে শুরু হওয়া লিগে একদিনে চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এদিন বেলা সাড়ে ৩টায় রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিপক্ষে হোম ম্যাচ খেলবে নবাগত স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ। একই সময়ে মুন্সিগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লে. মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে উত্তর বারিধারা ক্লাব এবং কুমিল্লার ভাষা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে মাঠে নামবে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে বিকাল সাড়ে ৫টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচে লড়বে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস এবং ঐতিহ্যবাহী ঢাকা আবাহনী লিমিটেড।
একটা সময় লড়াইটা হতো দুই চীরপ্রতিদ্বন্দ্বী ঢাকা আবাহনী ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের মধ্যে। কিন্তু দীর্ঘ দিন ধরেই শিরোপা রেসে থাকার মতো দল গড়তে পারছে না সাদা-কালোরা। পয়েন্ট টেবিলে মধ্য সারির দল হয়েই থাকছে তারা। ঢাকা আবাহনী তাদের একক আধিপত্য বজায় রাখতে ব্যর্থ হলেও শিরোপা লড়াইয়ে থাকছে প্রতি মৌসুমেই। এখন তাদের সব থেকে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। গত কয়েক মৌসুম ধরে শিরোপার লড়াইটা মূলত এ দুই দলের মধ্যেই বেশি হচ্ছে। এবারের বিপিএলে নয় রাউন্ড শেষে যথারীতি তালিকায় শীর্ষে রয়েছে বসুন্ধরা। ৯ ম্যাচে আট জয় ও এক হারে তাদের সংগ্রহ ২৪ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে পাঁচ জয়, তিন ড্র ও এক হারে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয়স্থানে আছে আবাহনী। বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে ঢাকা আবাহনীর পার্থক্য মাত্র ৬ পয়েন্টের। তাই আজকের ম্যাচে জিতলে শিরোপা রেসে পুনরায় ফিরতে পারে আবাহনী। আর পয়েন্ট খোয়ালে তারা আরও পিছিয়ে পড়বে। তখন বসুন্ধরাকে স্পর্শ করতে অনেক কাঠ-খড় পোড়তে হবে ঢাকার আকাশী-হলুদদের। নয় ম্যাচে চার জয় ও পাঁচ ড্রতে ১৭ পয়েন্ট পেয়ে তালিকায় আবাহনীর পরের স্থানেই রয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। চার জয়, তিন ড্র ও দুই হারে ১৫ পয়েন্ট পাওয়া বাংলাদেশ পুলিশ এফসির অবস্থান চারে। সমান জয়, ড্র ও হারে ১৫ পয়েন্ট পেলেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে চট্টগ্রাম আবাহনী আছে পঞ্চমস্থানে। তাদের পরের অবস্থান মোহামেডানের। তিন জয়, চার ড্র ও দুই হারে সাদাকালোদের সংগ্রহ ১৩ পয়েন্ট। নয় খেলায় তিন জয়, দুই ড্র ও চার হারে ১১ পয়েন্ট নিয়ে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব সপ্তমস্থানে থাকলেও দু’টি করে জয় ও ড্র এবং পাঁচ হারে ৮ পয়েন্ট পাওয়া রহমতগঞ্জের অবস্থান আটে। তাদের সমান পয়েন্ট পেলেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে নবমস্থানে আছে উত্তর বারিধারা ক্লাব। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ও নবাগত স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ নয় ম্যাচ শেষে সমান ৬ পয়েন্ট করে পেলেও গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে মুক্তিযোদ্ধা আছে দশমস্থানে। তাদের পরের অবস্থানে জায়গা হয়েছে শেখ রাসেলের এবং স্বাধীনতা রয়েছে তালিকায় সবার শেষে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps