শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

নতুন অতিথি নিয়ে ঘরে ফিরলেন রোনালদো

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০২ এএম

গত ১৯ এপ্রিল রাতে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও বান্ধবী জর্জিনার এক হৃদয়ভাঙা বিবৃতিতে চোখ ভিজে ওঠে বিশ^জোড়া তার সকল ভক্তদের। সদ্যজাত যমজ সন্তানের ছেলেকে হারিয়েছেন পর্তুগিজ তারকা। সেই শোক কাটিয়ে উঠতে বেঁচে থাকা কন্যা সন্তানই তাদের শক্তি যোগাচ্ছেন বলে সেসময় জানান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা। অবশেষে বাসায় ফিরেছেন নতুন অতিথিকে নিয়ে। গতপরশু রাতেই পরিবারের বাকি সদস্যদের সঙ্গে সেই ফুটফুটে কন্যাকে কোলে নেয়া এক ছবিও শেয়ার করেছেন সিআর সেভেন। কাষ্ট হাসিভরা মুখের সেই ছবি দিয়ে ফুটবল তারকা জানান, ‘এখন জীবনের জন্য কৃতজ্ঞ হওয়ার সময়’ তিনি এবং তার সঙ্গীকে পৃথিবীতে স্বাগত জানিয়েছিলেন। তারা দুজনেই অনুভব করেছেন ‘সমস্ত ভালবাসা’ তাদের দেওয়া হয়েছিল যখন তাদের বাচ্চা ছেলে মারা গিয়েছিল।’
পাঁচবারের বিশ্বসেরা খেলোয়াড় ৩৭ বছর বয়সি রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ এবং জুভেন্টাসের সাথে খেলে একাধিক ট্রফি জেতার পর গতবছর দ্বিতীয় দফায় ইউনাইটেডে যোগ দেন। তবে কঠিন সময়ে নবজাতক ছেলেকে হারানো রোনালদো আপাতত পরিবারের সঙ্গেই আছেন। প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যাচে খেলেননি তিনি। ম্যাচটি ইউনাইটেড হেরে যায় ৪-০ গোলে। ৩৩ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে দলটি। তবে সেই ম্যাচে অভাবনীয় এক ঘটনাও তাকে আপ্লুত করেছে।
সদ্যোজাত সন্তান হারানো রোনালদোর প্রতি লিভারপুল সমর্থকদের শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানানোর বিষয়টি ছুঁয়ে গেছে পর্তুগিজ তারকাকে। অ্যানফিল্ডের দর্শকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরোয়ার্ড। ম্যাচের সপ্তম মিনিটে ‘সিআর-সেভেন’ এর প্রতি সমর্থন জানাতে দুই দলের সমর্থকরা একসঙ্গে টানা এক মিনিট দাঁড়িয়ে করতালি দেন। লিভারপুল সমর্থকরা এই সময় সুর মিলিয়ে গেয়ে ওঠেন তাদের বিখ্যাত ‘ইউ উইল নেভার ওয়াক অ্যালোন।’ দুই দলের খেলোয়াড়রা মাঠে নামে কালো আর্মব্যান্ড পরে। লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ দুই দলের সমর্থকদের সম্প্রীতির এই দৃষ্টান্ত স্থাপনকে ‘মোমেন্ট অব দা গেম’ বলে উল্লেখ করেন। রাতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া পোষ্টে লিভারপুল সমর্থকদের ধন্যবাদ জানান সিআর সেভেন, ‘এক বিশ্ব... এক খেলা... এক বিশ্ব পরিবার...। ধন্যবাদ অ্যানফিল্ড। এই শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানানোর মুহূর্তটি আমি এবং আমার পরিবার কখনোই ভুলব না।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps