সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

ম্যাথিউসকে হতাশায় ডুবিয়ে বাংলাদেশের দিন

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

টেস্টে প্রত্যাবর্তন ঘরের ছেলে নাঈম হাসান রাঙালেন ৬ উইকেট নিয়ে। তবে প্রায় দুটো দিন লড়াকু ব্যাটিংয়ে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ছিলেন গলার কাঁটা হয়ে। তার দুর্দান্ত ইনিংসে চারশ ছোঁয়া সংগ্রহ পেল শ্রীলঙ্কা। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে সফরকারীদের বড় এই রান অবশ্য কোনো চাপ বিস্তার করতে পারল না স্বাগতিক বাংলাদেশের ওপর। দিনের শেষবেলায় ১৯ ওভার খেলে দৃঢ়তা দেখিয়ে অবিচ্ছিন্ন থাকলেন দুই ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয় ও তামিম ইকবাল। গতকাল চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনশেষে বাংলাদেশ বিনা উইকেটে তুলেছে ৭৬ রান। তরুণ ডানহাতি জয় ৬৬ বলে ৩১ ও অভিজ্ঞ বাঁহাতি তামিম ৫২ বলে ৩৯ রান নিয়ে দলকে স্বস্তি দিয়ে ক্রিজে আছেন। হাতে ১০ উইকেট নিয়ে টাইগাররা পিছিয়ে রয়েছে ৩২১ রানে।
স্বস্তির জয়গা আছে আরো। তামিম ও জয়ের সৌজন্যে ১৩ ইনিংস পর টেস্টে অর্ধশত রানের উদ্বোধনী জুটি পেল বাংলাদেশ। দুজনই অপরাজিত থেকে দিন শেষ করায় নতুন দিন তারা নামবেন নতুন মাইলফলকের সম্ভাবনায়। ২০১৭ সালের মার্চে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই গলে ১১৮ রানের জুটি গড়েছিলেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। সেই ইনিংস থেকে এবারের টেস্টের আগে পেরিয়ে গেছে ৬১ ইনিংস। শুরুর জুটিতে আর শতরান পায়নি বাংলাদেশ। অপেক্ষা এবার সেই ধারা শেষ হওয়ার।
এর আগে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তৃতীয় সেশনের প্রথম ঘণ্টায় শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস থামে ৩৯৭ রানে। প্রায় সাড়ে নয় ঘণ্টা উইকেটে কাটিয়ে শেষতক দুর্ভাগ্যের শিকার হন ম্যাথিউস। টেস্ট ইতিহাসের দ্বাদশ ও বাংলাদেশের মাটিতে প্রথম ব্যাটার হিসেবে তিনি আউট হন ১৯৯ রানে। ৩৯৭ বল খেলে ১৯ চারের সঙ্গে ১ ছক্কা মারেন ম্যাথিউস। নাঈমের বলে স্কয়ার লেগে সাকিব আল হাসান তার ক্যাচ নিলে অলআউট হয় লঙ্কানরা।
গত বছরের শুরুতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে ব্যর্থতার পর দলে জায়গা হারিয়েছিলেন নাঈম। এবার মেহেদী হাসান মিরাজের চোটে সুযোগ পেয়ে নিজের সামর্থ্যরে প্রমাণ দিলেন তিনি। ১০৬ রানে ৬ উইকেট দখল করেন তিনি, যা সাদা পোশাকে তার ক্যারিয়ারের সেরা। এর আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৬১ রানে ৫ উইকেট ছিল তার সেরা বোলিং ফিগার।
পরে ব্য্যাট হাতে নেমে তামিম অনেকটা ওয়ানডে মেজাজে খেললেও জয় এগোচ্ছেন দেখেশুনে। তামিমের ব্যাট থেকে এসেছে ৫ চার। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সবশেষ টেস্টে দুই ইনিংসে শূন্য রানে বিদায় নেওয়া জয়ও মেরেছেন ৫ চার। তাদের কল্যাণে সবশেষ ১৩ ইনিংসে প্রথম পঞ্চাশ ছোঁয়া উদ্বোধনী জুটির স্বাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। কেবল একবারই উইকেট তুলে নেওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি করতে পেরেছিল শ্রীলঙ্কা। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে পেসার আসিথা ফার্নান্দোর বল তামিমের ব্যাট ছুঁয়ে দ্বিতীয় সিøপে গিয়েছিল। কিন্তু ক্যাচ হাতে জমাতে পারেননি কুসল মেন্ডিস। পরে দেখা যায়, বলটি ছিল নো। অর্থাৎ মেন্ডিস ক্যাচ লুফে নিলেও তা কোনো কাজে আসত না। পরের সময়টা নির্বিঘ্নে পার করে বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস : (আগের দিন ২৫৮/৪) ১৫৩ ওভারে ৩৯৭ (ম্যাথিউস ১৯৯, চান্দিমাল ৬৬, ডিকভেলা ৩, রমেশ ১, এম্বুলদেনিয়া ০, বিশ্ব ১৭*, আসিথা ১; শরিফুল ০/৫৫, খালেদ ০/৬৬, নাঈম ৬/১০৫, তাইজুল ১/১০৭, সাকিব ৩/৬০)
বাংলাদেশ ১ম ইনিংস : ১৯ ওভারে ৭৬/০ (জয় ৩১*, তামিম ৩৯*; বিশ্ব ০/১৭, আসিথা ০/১৯, রমেশ ০/১৯, এম্বুলদেনিয়া ০/১৯)।
দ্বিতীয় দিন শেষে

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps