বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

খেলাধুলা

বার্মিংহামে মাবিয়া, তুরস্কে ফাতেমার হাতে দেশের পতাকা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০২২, ১২:০৪ এএম

আসন্ন ইংল্যান্ডের বার্মিংহাম কমনওয়েলথ গেমসে দেশসেরা নারী ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্ত ও তুরস্কের কোনিয়ায় ইসলামিক সলিডারিটি গেমসে ফেন্সার ফাতেমা মুজিবের হাতে থাকবে লাল-সবুজের পতাকা। দুজনেই সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে স্বর্ণজয়ী ক্রীড়াবিদ। মাবিয়া ২০১৬ ও ২০১৯ এসএ গেমসে এবং ফাতেমা মুজিব ২০১৯ এসএ গেমসে স্বর্ণপদক জয় করেন। যার সুবাদে দুই আন্তর্জাতিক গেমসে বাংলাদেশের পতাকা বহনের সুযোগ দিয়ে এ দুই স্বর্ণজয়ী ক্রীড়াবিদকে সম্মানীত করছে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)। গতকাল দুপুরে বিওএ ভাবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বিওএ’র মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিওএ’র সহ-সভাপতি লে. জেনারেল মো. মইনুল ইসলাম (অব.), শেখ বশির আহমেদ মামুন, কোষাধ্যক্ষ এ,কে সরকার ও ইসলামিক সলিডারিটি গেমসে বাংলাদেশ দলের শেফ দ্য মিশন ড. সিরাজ উদ্দিন মো. আলমগীর।
আন্তর্জাতিক গেমসের মার্চপাস্টে লাল-সবুজের পতাকা বহনের স্বপ্ন থাকে দেশের সব ক্রীড়াবিদদেরই। দ্বিতীয়বারের মতো সেই স্বপ্নপূরণ হচ্ছে ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্তর। এর আগে ২০১৮ সালে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় এশিয়ান গেমসে দেশের পতাকা বহন করেছিলেন তিনি। আর ফেন্সার ফাতেমা মুজিব এবারই প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক আসরে দেশের পতাকা বহন করার সুযোগ পেয়েছেন। বার্মিংহাম কমনওয়েলথ গেমসে ৭ ও ইসলামিক সলিডারিটি গেমসে ১১ ডিসিপ্লিনে অংশ নেবেন বাংলাদেশের ক্রীড়াবিদরা। সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেন, ‘কমনওয়েলথ গেমসে অ্যাথলেটিক্স, বক্সিং, জিমন্যাস্টিক্স, সাঁতার, ভারোত্তোলন, কুস্তি ও টেবিলে টেনিস- এই সাত ডিসিপ্লিনে খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাসহ বাংলাদেশের ৫০ জনের একটি দল অংশ নেবে। অন্যদিকে ইসলামী সলিডারিটি গেমসে অ্যাথলেটিক্স, আরচ্যারি, ফেন্সিং, জিমন্যাস্টিক্স, হ্যান্ডবল, কারাতে, শুটিং, সাঁতার, টেবিল টেনিস, কুস্তি ও ভারোত্তোলন- এই ১১ ডিসিপ্লিনে বাংলাদেশের ৮৪ জন খেলোয়াড় ও কর্মকর্তা অংশ নেবেন।’
কমনওয়েলথ গেমসে শুটিং ও আরচ্যারি না থাকায় বার্মিংহামে বাংলাদেশ দলের পদক পাওয়ার সম্ভাবনা কমে গেছে। তাই বিওএ’র প্রত্যাশা এখন ইসলামিক সলিডারিটি গেমসকে ঘিরেই। এখানে আরচ্যারির পাশাপাশি শুটিং ও অ্যাথলেটিক্স নিয়েও আশাবাদী শাহেদ রেজা। তার কথায়,‘শুটিং ও আরচ্যারি কমনওয়েলথে নেই। এ দুই ডিসিপ্লিন না থাকায় এবার কমনওয়েলথ গেমসে আমাদের পদকের সম্ভাবনা কিছুটা কমে গেল। তবে বার্মিংহামে জিমন্যাস্টিক্স ও অ্যাথলেটিক্সে আমরা ভালো করার প্রত্যাশা করছি।’ তিনি যোগ করেন, ‘ইসলামিক সলিডারিটি গেমসে যেহেতু আর‌্যচারি ও শুটিং রয়েছে ফলে সেখান থেকে আমরা স্বর্ণ পদকের আশা করছি। এছাড়া কুস্তি, টেবিল টেনিস সহ কয়েকটি ডিসিপ্লিন নিয়ে আমাদের পদকের আশা রয়েছে।’
বিওএ’র সহ-সভাপতি ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান শেখ বশির আহমেদ মামুন বলেন, ‘ দেশের ফেডারেশনগুলো জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনে। ফেডারেশনগুলোর সীমাবদ্ধতা ও চাহিদা অনেক। তাদের শক্তি আরো বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। ফেডারেশনগুলো পরিকল্পনা নিলে বিওএ থেকে আমরা অবশ্যই সহযোগিতা করবো।’
২৮ জুলাই থেকে ৮ আগষ্ট ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে কমনওয়েলথ গেমস এবং ৯ থেকে ১৮ আগষ্ট তুরস্কের কোনিয়াতে অনুষ্ঠিত হবে ইসলামিক সলিডারিটি গেমস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন