বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

খেলাধুলা

অবাক ইবাদত-নাঈমরা জিম্বাবুয়ের পথে

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের এক ম্যাচ শেষ, আরেক ম্যাচ আর কয়েকঘন্টা পরেই। এই অবস্থা কেবল শেষ ম্যাচের জন্য ওপেনার নাঈম শেখ ও ইবাদত হোসেনকে জিম্বাবুয়ে পাঠানো হচ্ছে। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, দলে চোট সমস্যা থকায় কেবল শেষ ম্যাচের জন্য গতকালই জিম্বাবুয়ের উদ্দেশে যাত্রা করছেন নাঈম ও ইবাদত। তবে হঠাৎ ডাক পেয়ে রোমাঞ্চিত হবার বদলে অনেকটা অবাকই হয়েছেন এইচপি দলের বিপক্ষে বাংলাদেশ টাইগার্সের হয়ে খেলার জন্য খুলনায় ব্যস্ত থাকা ইবাদত! তবে সেসব কাটিয়ে এখন জিম্বাবুয়ের পথে তারা। গতকালই সন্ধ্যায়ই জিম্বাবুয়ের ফ্লাইট ধরেন দুজনে। যাবার আগে বিমানবন্দরে তোলা একটি সেলফিতে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই দেখা গেছে তাদের। এই দুজন যখন হারারে পৌঁছাবেন তখন দ্বিতীয় ওয়ানডে থাকবে চলমান। ১০ আগস্ট শেষ ম্যাচ খেলার জন্য বিবেচনায় থাকতে পারবেন ইবাদত-নাঈম।
এই ম্যাচে নিজের বলে ক্যাচ ধরতে গিয়ে চোট পান শরিফুল ইসলাম। তার চোট গুরুতর না হলেও বিকল্প হিসেবে পাঠানো হচ্ছে ইবাদতকে। যদিও পেস আক্রমণে বিকল্প হিসেবে আগে থেকেই রয়েছেন হাসান মাহমুদ। আর হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে ওপেনার লিটন দাস ছিটকে যাওয়ায় তার বিকল্প হিসেবে নেওয়া হচ্ছে নাঈমকে। যদিও স্কোয়াডে বিকল্প হিসেবে এই পজিশনের জন্য আছেন নাজমুল হোসেন শান্তও। তারপরও এভাবে হঠাৎ ডাক পাওয়ার পর দেশ ছাড়ার আগে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের ইবাদত বলেছেন, ‘আমি বাংলা টাইগার্সের হয়ে এইচপির বিপক্ষে খেলার জন্য খুলনায় ছিলাম। ওখানে সাদা বলের জন্য গিয়েছিলাম। তাই সাদা বলের অনুশীলনটাই করে এসেছি। গতকাল রাতে (পরশু) কল আসে- জাতীয় দলে যোগ দিতে হবে। শুনে খুব খুশি হয়েছি। প্রথমে যাওয়ার কথা ছিল, যাওয়া হয়নি, মাঝখানে যাচ্ছি। একটু অবাক করার মতো।’ সিরিজের আগে অধিনায়ক তামিম ইকবালের সঙ্গে কথা হয়েছিল ইবাদতের। এবার হুট করে ডাক পেলেও প্রস্তুতই আছেন এ পেসার, ‘ইনশাআল্লাহ দেশের জন্য ভালো কিছু করার চেষ্টা করব। সুযোগ পেলে কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। আমি অনুশীলনের মধ্যে আছি। অনুশীলনের মধ্যে না থাকলে মানসিকভাবে পিছিয়ে থাকতাম। তাই আত্মবিশ্বাস ভালো আছে।’
ইবাদত যখন যাচ্ছেন, দলের অবস্থা তখন খুব একটা সুবিধার নয়। ৯ বছরের বেশি সময় ও ১৯ ম্যাচ পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডেতে হেরেছে বাংলাদেশ, এর আগে প্রথমবারের মতো হারে টি-টোয়েন্টি সিরিজও। তবে দলকে নিয়েও আত্মবিশ্বাস হারাচ্ছেন না ইবাদত, ‘ওয়ানডেতে দল হিসেবে আমরা খুবই ভালো। ২-১টা ম্যাচ খারাপ হলে আমরা দল হিসেবে খারাপ? আমরা দল হিসেবে ভালো। আমরা বাকি দুই ম্যাচ জিতলে সিরিজ তো আমাদেরই।’
এখন পর্যন্ত ১৭টি টেস্ট খেলে ফেললেও সাদা বলের কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা হয়নি ইবাদতের। যাঁরা তিন সংস্করণেই খেলেন, তাঁদের জন্য চোটে পড়াটা খুব স্বাভাবিক বলেই মনে করেন তিনি, ‘চোট তো কারও হাতে নেই। যারা চোটে পড়েছে, তাদের দেখুন—লিটন টানা খেলছে- টেস্ট, ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি। শরীফুলও তিন সংস্করণেই খেলছে। শরীরেরও তো মানিয়ে নেওয়ার একটা ব্যাপার আছে, বিশ্রামের ব্যাপার আছে। টানা তিন সংস্করণে খেললে চোটের প্রবণতা থাকে। তারপরও সবাই আলহামদুলিল্লাহ খুব ভালোই মানিয়ে নেয়। কিছুদিন ধরে কোনো চোটের সমস্যা ছিল না। হুট করে হয়েছে, তিন সংস্করণের কারণে একটু সমস্যা থাকতেই পারে। আমার কাছে মনে হয় না এটার কারণে দলের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে।’
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৩০৩ রান করেও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। সিকান্দার রাজা ও ইনোসেন্ট কাইয়ার সেঞ্চুরিতে হতাশ হতে হয় তামিম ইকবালের দলকে। ৫ উইকেটে ওই হারের ম্যাচে ক্ষত হয়ে আসে ৮৯ বলে ৮১ করা করা লিটনের চোট। রান নিতে গিয়ে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়েন তিনি। পরে জানা যায় অন্তত তিন থেকে চার সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে ছন্দে থাকা এই তারকাকে। এই সিরিজ তো বটেই এশিয়া কাপও অনিশ্চিত লিটনের। এই ম্যাচেই ব্যাট করার সময় বৃদ্ধাঙ্গুলে আঘাত পেয়ে ফিল্ডিং করেননি মুশফিকুর রহিম। তবে দলের ফিজিও মোজাদ্দেদ আলফা সানি জানান, মুশফিকের চোট গুরুতর নয়। দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারবেন তিনি। সফরের টি-টোয়েন্টি সিরিজে চোটে ছিটকে যান কিপার নুরুল হাসান সোহান। লিটনের চোটের কারণে তাই বাড়তি একজন দরকার মনে করছেন বাংলাদেশ দল। তবে বিকল্প যিনি যাচ্ছেন সেই নাঈমের পারফরম্যান্স তলানিতে, টপ অর্ডার ছাড়া তিনি অন্য পজিশনে খেলতেও পারেন না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন