বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইউক্রেনের সু-২৫ যুদ্ধবিমান পাতিত ভূপাতিত, ১৯০ সেনা নিহত

এম৭৭৭ হাউইটজারের সম্পূর্ণ প্লাটুন ধ্বংস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:১৪ এএম

ইউক্রেনের সংঘাতে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো সরাসরি জড়িত : ল্যাভরভ
ডোনেৎস্কের আরেকটি শহর মুক্ত করল রুশ সেনা
ইউক্রেনীয় বাহিনী প্রতি দুই সপ্তাহে একবার নিপার অতিক্রমের চেষ্টা করে
আত্মরক্ষার জন্যই ইউক্রেনে অভিযান রাশিয়ার, বিশ্বাস করেন চীনারা

বুধবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট-জেনারেল ইগর কোনাশেনকভ জানিয়েছেন, ইউক্রেনের বিশেষ সামরিক অভিযানের সময় গত দিনে রাশিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী একটি ইউক্রেনীয় সু-২৫ গ্রাউন্ড অ্যাটাক এয়ারক্রাফ্টকে গুলি করে, আটটি মনুষ্যবিহীন আকাশযান ধ্বংস করেছে এবং আটটি হিমারস রকেট আটকে দিয়েছে। পাশাপাশি, এম৭৭৭ হাউইটজার কামানের একটি ইউক্রেনীয় প্লাটুন ধ্বংস করেছে রুশ সেনা।

‘বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের আর্টিওমভস্ক শহরের কাছে ইউক্রেনীয় বিমান বাহিনীর একটি সু-২৫ বিমানকে গুলি করে নামিয়েছে। তারা স্টেপনয়ে, ইয়েগোরোভকা, ভøাদিমিরোভকা এবং ক্রাসনায়া পলিয়ানার বসতিগুলির এলাকায় আটটি মনুষ্যবিহীন আকাশযানও ধ্বংস করে। ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিক, লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের গোলিকোভো এবং ঝিটলোভকা, জাপোরোজিয়া অঞ্চলে প্রিয়তনয়ে এবং সøাদকায়া বলকা আটটি হিমারস রকেট ও একটি ওলখা রকেটও প্রতিহত করা হয়েছে,’ মুখপাত্র বলেছেন।

রুশ বাহিনী যুদ্ধের সময় শত্রæ জনশক্তি এবং সামরিক সরঞ্জাম নির্ম‚ল করেছে, জেনারেল বলেছেন। ‘প্রায় ৫০ জন ইউক্রেনীয় সৈন্য, দশটি ট্যাঙ্ক, একটি পদাতিক যুদ্ধের যান, দুটি সাঁজোয়া কর্মী বাহক, একটি স্ব-চালিত আর্টিলারি বন্দুক এবং একটি মোটর গাড়ি ধ্বংস করা হয়েছে,’ কোনাশেনকভ রিপোর্ট করেছেন। তিনি বলেন, ক্রাসনি লিমান এলাকায় লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের দিকে অগ্রসর হওয়ার শত্রæর প্রচেষ্টার সময় রাশিয়ান বাহিনী ইউক্রেনের সেনা ইউনিটের বিরুদ্ধে আর্টিলারি ফায়ার এবং বিমান হামলা চালিয়েছে, ৪০ জনেরও বেশি জঙ্গিকে নির্মূল করেছে।

রাশিয়ান বাহিনী গত দিনে ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের বেলোগোরোভকা এবং পার্শে ত্রাভনিয়া শহরকে সম্প‚র্ণরূপে মুক্ত করেছে, কোনাশেনকভ রিপোর্ট করেছেন। ‘ডোনেৎস্কের দিক থেকে, রাশিয়ান সৈন্যদের আক্রমণাত্মক অভিযানের ফলে ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের বেলোগোরোভকা এবং পার্শে ট্রাভনিয়ার বসতিগুলি সম্পূর্ণরূপে মুক্ত করা হয়েছিল,’ মুখপাত্র বলেছেন। ওই এলাকায় রুশ বাহিনী শত্রæর জনবল ও সামরিক সরঞ্জাম নির্মূল করেছে, জেনারেল বলেন। ‘প্রায় ৫০ ইউক্রেনীয় সৈন্য, চারটি যুদ্ধের সাঁজোয়া যান, তিনটি স্ব-চালিত আর্টিলারি বন্দুক এবং ছয়টি মোটর গাড়ি ধ্বংস করা হয়েছে,’ কোনাশেনকভ রিপোর্ট করেছেন।

রুশ বাহিনী গত দিনে ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের কমান্ড পোস্ট এবং ইউক্রেনীয় সেনা ব্রিগেডের সিগন্যাল সেন্টার ধ্বংস করে দিয়েছে, মুখপাত্র বলেছেন। ‘ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের টোরেটস্কের বসতির এলাকায়, কমান্ড পোস্ট এবং ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর প্রথম ব্রিগেডের সংকেত কেন্দ্র ধ্বংস করা হয়েছে,’ তিনি বলেছিলেন।
এছাড়াও, রাশিয়ান বাহিনী জাপোরোজিয়ে অঞ্চলের প্রিমর্স্কয় সম্প্রদায়ের কাছে ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর ৬০ তম পদাতিক ব্রিগেডের একটি গোলাবারুদ ডিপো নিশ্চিহ্ন করেছে, জেনারেল যোগ করেছেন। সেখানে রাশিয়ান বাহিনী ৫০ জনেরও বেশি ইউক্রেনীয় সৈন্য, দুটি পদাতিক যুদ্ধের যান, দুটি সাঁজোয়া কর্মী বাহক, একটি এমটি-এলবি ট্রান্সপোর্টার, একটি সাঁজোয়া যান এবং চারটি মোটর গাড়ি ধ্বংস করেছে, জেনারেল নির্দিষ্ট করেছেন।

রাশিয়ান যুদ্ধ বিমান, ক্ষেপণাস্ত্র এবং আর্টিলারি সৈন্যরা গত দিনে ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযানের সময় ২৫০ টিরও বেশি ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর লক্ষ্যবস্তু নিশ্চিহ্ন করেছে, কোনাশেনকভ রিপোর্ট করেছেন। ‘অপারেশনাল-কৌশলগত এবং আর্মি এভিয়েশন এয়ারক্রাফ্ট, ক্ষেপণাস্ত্র এবং আর্টিলারি সৈন্যরা ১৫৭টি এলাকায় ৯৭টি ইউক্রেনীয় আর্টিলারি ইউনিট ধ্বংস করেছে,’ মুখপাত্র বলেছেন।

রাশিয়ার বাহিনী গত দিনে ইউক্রেনের বিশেষ সামরিক অভিযানের সময় খারকভ অঞ্চলে মার্কিন তৈরি এম৭৭৭ হাউইটজার কামানের একটি ইউক্রেনীয় প্লাটুন ধ্বংস করেছে বলে কোনাশেনকভ জানিয়েছেন। ‘খারকভ অঞ্চলের জোভটনেভয়ে বসতি এলাকায় পাল্টা ব্যাটারি ফায়ারে, মার্কিন তৈরির এম৭৭৭ আর্টিলারি সিস্টেমের একটি প্লাটুন গুলি চালানোর অবস্থানে ধ্বংস হয়ে গেছে,’ মুখপাত্র বলেছেন।

এছাড়াও, রাশিয়ান বাহিনী ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের মিনকোভকা এবং চাসভ ইয়ারের বসতি এলাকায় ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর দুটি মার্কিন-নির্মিত এন/টিপিকিউ-৩৭ কাউন্টার-ব্যাটারি রাডার বিকল করে দিয়েছে, জেনারেল নির্দিষ্ট করেছেন। প্রসঙ্গত, ৩৫ ফিট উচ্চতার এম৭৭৭ হাউইটজার কামান থেকে মিনিটে সর্বাধিক ৭টি ১৫৫ মিলিমিটার গোলা ছোঁড়া যায়। অত্যান্ত ব্যয়বহুল এ অস্ত্রকে ইউক্রেনের গেম চেঞ্জার হিসাবে বর্ণনা করা হচ্ছিল।

সব মিলিয়ে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী ইউক্রেনে তাদের বিশেষ সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে ৩৩৪টি ইউক্রেনীয় যুদ্ধবিমান, ১৭৭টি হেলিকপ্টার, ২,৫৮৯টি মনুষ্যবিহীন আকাশযান, ৩৯১টি সারফেস-টু-এয়ার মিসাইল সিস্টেম, ৬,৯০৩টি ট্যাংক এবং অন্যান্য কমব্যাট সাঁজোয়া যান, ৯০৪টি মাল্টিপল রকেট লঞ্চার, ৩,৬৩৪টি ফিল্ড আর্টিলারি গান ও মর্টার এবং এবং ৭,৪২৪টি বিশেষ সামরিক মোটর যান ধ্বংস করেছে, কোনাশেনকভ রিপোর্ট করেছেন।

ইউক্রেনের সংঘাতে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো সরাসরি জড়িত : রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ গতকাল ইউরোপীয় নিরাপত্তা ইস্যুতে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, অস্ত্র সরবরাহ ও সামরিক কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে ইউক্রেনের সংঘাতে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো সরাসরি জড়িত।

‘আমরা বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সুবিধাগুলোকে (ইউক্রেনে) নিষ্ক্রিয় করছি, কারণ এর মাধ্যমে রাশিয়ানদের হত্যা করার জন্য ইউক্রেনকে দেয়া মারাত্মক পশ্চিমা অস্ত্রগুলো চালানো হয়। তাই বলবেন না যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটো এই যুদ্ধে জড়িত নয়। আপনারা সরাসরি জড়িত শুধুমাত্র অস্ত্র সরবরাহের মাধ্যমে নয়, সামরিক কর্মীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমেও,’ অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের একজন সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছিলেন। ল্যাভরভের মতে, সামরিক প্রশিক্ষণ যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ইতালি এবং অন্যান্য দেশের ভ‚খÐে পরিচালিত হয়। ‘তাদের ভ‚খÐে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি, শত শত পশ্চিমা প্রশিক্ষক সরাসরি ইউক্রেনের ভ‚মিতে কাজ করছে, ইউক্রেনীয়দের সরবরাহ করা অস্ত্র থেকে কীভাবে গুলি করতে হয় তা দেখাচ্ছে,’ ল্যাভরভ উল্লেখ করেছেন। শীর্ষ ক‚টনীতিক আরও যোগ করেছেন যে, পশ্চিমা সমর্থনের মধ্যে ইউক্রেনে বিপুল সংখ্যক ভাড়াটে সৈন্য পাঠানো এবং ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর লক্ষ্য নির্ধারণের জন্য গোয়েন্দা তথ্য অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ডোনেৎস্কের আরেকটি শহর মুক্ত করল রুশ সেনা : রুশ বাহিনী ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের আন্দ্রেয়েভকার শহর পুরোপুরি মুক্ত করেছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বুধবার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছে। ‘রাশিয়ান বাহিনীর আক্রমণের ফলে ইউক্রেনীয় বাহিনীর হাত থেকে ডিপিআর-এর একটি শহর আন্দ্রেয়েভকা সম্পূর্ণ মুক্ত হয়েছে,’ মন্ত্রণালয় বলেছে, ডিপিআর এর আরেকটি শহর ভোডিয়ানয়ে শহরের মুক্তির দিকে একটি আক্রমণ সফলভাবে অব্যাহত রয়েছে। এর আগে বুধবার, রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট জেনারেল ইগর কোনাশেঙ্কো বলেছিলেন যে, রাশিয়ান বাহিনী ডিপিআর-এ বেলোগোরোভকা এবং পার্শে ত্রাভনিয়ার বসতিগুলি সম্প‚র্ণরূপে মুক্ত করেছে।

ইউক্রেনীয় বাহিনী প্রতি দুই সপ্তাহে একবার নিপার অতিক্রমের চেষ্টা করে : ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনী প্রায় প্রতি দুই সপ্তাহে একবার জাপোরোজিয়া এনপিপির কাছে নিপার নদী পার হওয়ার চেষ্টা করে। ‘উই আর টুগেদার উইথ রাশিয়া’ আন্দোলনের চেয়ারম্যান ভিক্টর রোগভ এ তথ্য জানিয়েছেন। ‘আমরা দেখতে পাচ্ছি যে জাপোরোজিয়া এনপিপির কাছে ইউক্রেনীয় স্থল বাহিনীর নদী পার হওয়ার প্রচেষ্টা প্রতি দুই সপ্তাহে প্রায় একবার ঘটে। তাদের এ প্রচেষ্টা ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছিল এবং আমরা ইতিমধ্যেই এর মধ্যে ছয় বা সাতবার তাদের সে প্রচেষ্টা প্রতিহত করেছি,’ তিনি বুধবার রাশিয়ান মিডিয়ার জন্য একটি সাক্ষাতকারে বলেছিলেন। রোগভ উল্লেখ করেছেন যে, নিপার অতিক্রম করার এই নিয়মিত প্রচেষ্টাগুলি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির ‘জাপোরোজিয়া এনপিপি দখল করার’ ইচ্ছার সাথে যুক্ত।

আত্মরক্ষার জন্যই ইউক্রেনে অভিযান রাশিয়ার, বিশ্বাস করেন চীনারা : জাপানের জেনরন এনপিও এবং চায়না ইন্টারন্যাশনাল কমিউনিকেশন গ্রæপ (সিআইসিজি) দ্বারা পরিচালিত সমীক্ষার ফলাফল অনুসারে, প্রায় ৪০ শতাংশ চীনা নাগরিক ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ সামরিক অভিযানকে ন্যাটোর পূর্বমুখী সম্প্রসারণের প্রতিক্রিয়া হিসাবে আত্মরক্ষার একটি কাজ হিসাবে বিবেচনা করে।

জরিপ অনুসারে, ৩৯.৫ শতাংশ চীনা উত্তরদাতারা বিশ্বাস করেন যে, রাশিয়ান অভিযান ‘ন্যাটোর পূর্ব দিকে সম্প্রসারণের পটভ‚মিতে আত্মরক্ষার একটি কাজ’। অন্য ২৯ শতাংশ মস্কোর পদক্ষেপকে ‘ভুল’ বলে অভিহিত করেছেন, তবে রাশিয়ান পক্ষের দ্বারা নির্দেশিত পরিস্থিতি অবশ্যই বিবেচনায় নেয়ার আহবান জানিয়েছেন। শুধুমাত্র ২১ শতাংশ চীনা উত্তরদাতারা বলেছেন যে, রাশিয়ার পদক্ষেপ ‘আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থী এবং এর বিরোধিতা করা উচিত’। এ দৃষ্টিকোণটিও ৭৩ শতাংশ জাপানি উত্তরদাতাদের দ্বারা সমর্থিত হয়েছিল। মস্কোর অবস্থান বিবেচনায় নেয়ার প্রয়োজনীয়তার উল্লেখ করার বিকল্পটি জরিপকৃতদের মধ্যে ১০ শতাংশেরও বেশি দ্বারা নির্বাচিত হয়েছিল এবং মাত্র ১ শতাংশ বলেছেন যে, রাশিয়া আত্মরক্ষার অধিকারের কাঠামোর মধ্যে কাজ করেছে। চলতি বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই জরিপ চালানো হয়। প্রায় ১ হাজার জন জাপানে এবং ১,৫২৮ জন উত্তরদাতা বেইজিং এবং সাংহাই সহ দশটি বড় চীনা শহরে জরিপে তাদের মতামত জানিয়েছেন। সূত্র : তাস, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Abdullah AL Mamun Amran ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৩২ এএম says : 0
Good job
Total Reply(0)
MD Joynal Abedin ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৩৩ এএম says : 0
তারা তারী করেন
Total Reply(0)
Rafiqul Islam Kanchon ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৩৩ এএম says : 0
আমাদের এশিয়া কে এশিয়া বাসীর রক্ষার দায়দায়িত্ব সকলের। বৃটিশ ডাকাত দল ২০০/বছর ডাকাতি খুন ধনসম্পদ লুটপাট করে পালিয়ে যায়। এদের উপযুক্ত শিক্ষা দিবে রাশিয়া ও চীন।
Total Reply(0)
Shahadat Mirza ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৩৩ এএম says : 0
রাশিয়ার পুরা খেলা এখনো বিশ্ব দেখে না সামনে অপেক্ষা করতে হবে
Total Reply(0)
Sk Hira ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৩৪ এএম says : 0
I am all time support strongest president Mr.putin in the world.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন