সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ০৮ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

ব্র্যান্ড ফিলোসফি উন্মোচন করলো ফুডপ্যান্ডা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৫:৩৪ পিএম

গ্রাহককে প্যান্ডার মতোই আনন্দ, উচ্ছ্বাসে স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার বিষয়ে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে নতুন ব্র্যান্ড দর্শন ‘লিভ লাইক এ প্যান্ডা’ উন্মুক্ত করেছে দেশের অনলাইন ফুড ও গ্রোসারি প্ল্যাটফর্ম ফুডপ্যান্ডা বাংলাদেশ। আজ বুধবার (০১ ফেব্রুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে এই ব্র্যান্ড দর্শন উন্মোচন করে অনলাইন প্ল্যাটফর্মটি।

গ্রাহকদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ এবং সত্যিকারের ভালোলাগার বিষয়গুলোর ওপর তাদের সময় ও সংযোগ বৃদ্ধিতে মনোনিবেশ করা উচিত এমনটিই মনে করে ফুডপ্যান্ডার নতুন এই দর্শন। দৈনন্দিন কর্মকা-ের বাইরেও যে জীবনের আনন্দ, উচ্ছ্বাস এর আলাদা জায়গা রয়েছে সেগুলো নিয়ে বেঁচে থাকার বিষয়ে উৎসাহ দেবে নতুন এই ব্র্যান্ড দর্শন।

ঠিক প্যান্ডার মতোই নিজের মতো করে স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার মাধ্যমেই আত্মতুষ্টি অর্জিত হয়- এটিই এই ব্র্যান্ড দর্শনের মৌল ধারণা। একটা সুখী জীবন পেতে একনিষ্ঠভাবে যে কাজগুলো করা প্রয়োজন সেগুলোর অভ্যস্ততা তৈরি এবং সেই দৃষ্টিভঙ্গি মানুষকে উপকৃত করতে পারে।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের কর্মকা-ের সাথে ফুডপ্যান্ডার আরও নিবিড় সংযোগ তৈরি এবং সম্পর্কযুক্ত করার জন্য পাউ-পাউ এর যে উদ্যম রয়েছে তারই অংশ হিসেবে এই ব্র্যান্ড দর্শন উন্মোচন করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

ভীষণ আদুরে এবং আমুদে চরিত্রের পাউ-পাউ গত বছর প্ল্যাটফর্মটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে যাত্রা শুরু করে। আত্মপ্রকাশের পর থেকেই গ্রাহকদের কাছ থেকে অপরিসীম ভালোবাসা পেয়েছে পাউ-পাউ। এছাড়া ফুডপ্যান্ডাকে অন-ডিমান্ড ডেলিভারির জন্য প্রথম পছন্দ হিসেবে বেছে নিতে গ্রাহকদের মনে ইতিবাচক ধারণা তৈরিতে সক্ষম হয়েছে পাউ-পাউ। আদুরে চরিত্রের এক মাসকট হিসেবে সমধিক পরিচিত হয়ে উঠলেও পরিবেশের প্রতি যতœবান হওয়া, স্বনির্ভরতা আর উৎসাহ এর মতো বিষয়গুলোকে সামনে আনে পাউ-পাউ।

ব্র্যান্ড দর্শন উন্মোচন প্রসঙ্গে ফুডপ্যান্ডা বাংলাদেশের হেড অব মার্কেটিং মানিষা সাফিয়া তারেক বলেন, “আমাদের নতুন দর্শন ‘লিভ লাইক এ প্যান্ডা’ উন্মোচন করতে পেরে আমরা ভীষণ উচ্ছ্বসিত ও রোমাঞ্চিত। এই দর্শনের মাধ্যমে আমরা গ্রাহকদের দৈনন্দিন কর্মকা-ের যে বাঁধাধরা নিয়ম রয়েছে তার বাইরেও তাদের ভালোলাগার বিষয়গুলো নিয়ে সংযুক্ততা তৈরিতে অনুপ্রাণিত করতে চাই। এমনটি হতে পারে কেউ হয়তো মানুষের সান্নিধ্য পেতে পছন্দ করেন, আড্ডা দিতে ভালোবাসেন। আত্মতুষ্টি অর্জনে দৈনন্দিন জীবনের যেসব ব্যস্ততা বাধা হয়ে দাঁড়ায় সেগুলো থেকে তাদের খানিকটা মুক্তি দিয়ে গ্রাহকদের অনাবিল আনন্দ পেতে সাহায্য করতে চাই।

“আমরা এমন একটি ব্র্যান্ড দর্শন তৈরি করতে চেয়েছি যা আসলে সারাদেশের সববয়সী মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে।” যোগ করেন মানিষা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন