শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ বৈশাখ ১৪৩১, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

খেলাধুলা

বাংলাদেশ-ভুটান মুখোমুখি আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:০০ এএম

সাফ অনূর্ধ্ব-২০ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে রাউন্ড রবিন লিগের শেষ ম্যাচে আজ স্বাগতিক বাংলাদেশের মুখোমুখি হচ্ছে অপেক্ষাকৃত দূর্বল ভুটান। কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এর আগে বেলা ৩টায় একই ভেন্যুতে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে ভারত ও নেপাল। এ ম্যাচে যারা জিতবে তারাই পাবে ফাইনালের টিকিট। আর ড্র হলে গোল পার্থ্যকে এগিয়ে থেকে ভারত খেলবে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ। ইতোমধ্যে টুর্নামেন্টে নিজেদের দুই ম্যাচে একটি করে জয় ও ড্রতে ফাইনালের পথে এগিয়ে রয়েছে লাল-সবুজরা। প্রথম ম্যাচে নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে স্বাগতিকরা। অন্যদিকে টানা দুই ম্যাচ হেরে বিদায় নিশ্চিত করেছে ভুটান। এই টুর্নামেন্ট অনেকটা দুঃস্বপ্নের মতোই তাদের কাছে। প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে ১২-০ ও পরের ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে ৪-০ গোলে হেরেছে ভুটান। উপরন্তু কমলাপুর স্টেডিয়ামের মানহীন টার্ফে খেলে তাদের গুরুত্বপূর্ণ চার ফুটবলার এখন ইনজুরিতে। এ দলটির বিপক্ষে নিঃসন্দেহে ফেভারিট বাংলাদেশ। যা বলার অপেক্ষা রাখে না। আজকের ম্যাচে ভুটানের সঙ্গে ড্র করলেই ফাইনালের মঞ্চে পা রাখবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২০ নারী দল। তবে ড্র নয়, ভুটানকে গোল বন্যায় ভাসিয়ে ফাইনালের প্রস্তুতি সারতে চান শামসুন্নাহার জুনিয়ররা।
নারীদের বয়সভিত্তিক সব টুর্নামেন্টে ভুটানকে হারানোর সুখস্মৃতি রয়েছে বাংলাদেশের। স্বাগতিকদের ফাইনালে ওঠার সমীকরণ ড্র হলেও, ভুটানকে হারানোর প্রত্যয় আফিদা, আকলিমা খাতুনদের। শুধু জয় নয়, ভুটানকে বড় ব্যবধানে হারানোর আশা তাদের। বড় জয় পেতে আত্মবিশ^াসী বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনও। গতকাল তিনি বলেন,‘আমার কাছে সব দলই সমান শক্তিশালী। যেহেতু ভুটান আগের দুই ম্যাচে বড় ব্যবধানে হেরেছে, তাই আমরাও চাইবো তাদের বিপক্ষে বড় জয়। তাই বলে আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না। কারণ ফুটবলে জিততে হলে ৯০ মিনিট পর্যস্ত একই ছন্দে খেলতে হবে।’
ভারতের বিপক্ষে মধ্যমাঠ এবং আক্রমণভাগে এলোমেলো ছিল স্বাগতিক দল। গোলরক্ষক রুপনা চাকমা অবিশ^াস্য কয়েকটি সেভ না করলে গোলশূন্য ড্রয়ের পরিবর্তে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হতো বাংলাদেশকে। তাই ভুটান ম্যাচের আগে কোচের বড় দুশ্চিন্তা ফরোয়ার্ড লাইন নিয়ে,‘আক্রমণভাগকে আরেকটু গোছানো হতে হবে। আশা করি ভুটানের বিপক্ষে ফরোয়ার্ডরা তাদের সেরাটা মেলে ধরবে।’
ভুটানের কোচ কারমা দেমা তো বাংলাদেশকে শিরোপার অন্যতম দাবিদার বলে দিয়েছেন। টার্ফে খেলে চার ফুটবলার চোটে পড়ায় ম্যাচের চেয়ে খেলোয়াড়দের নিয়েই বেশি ভাবতে হচ্ছে তাকে। তার কথায়,‘টুর্নামেন্ট তো শেষ আমাদের। ভয়ংকর একটা অভিজ্ঞতা হয়েছে। মানহীন টার্ফে খেলে আমার দলের চার ফুটবলারের সাফ শেষ। প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ অনেক শক্তিশালী। তবে তাদের সঙ্গে ভালো খেলার চেষ্টা করবো আমরা।’

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন