সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১১ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ভোলা শহরের আবাসিক হোটেল থেকে ভারতীয় এক নাগরিকের লাশ উদ্ধার

ভোলা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৫:৫৯ পিএম

ভোলা শহরের কে জাহান মার্কেটের আবাসিক হোটেল এর কক্ষ থেকে ভারতীয় এক নাগরিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
৩৫ বছর বয়সী মনোজবাট ভারতের রাজস্থান প্রদেশের পাড়ি জেলার বাসিন্দা। পেশায় তিনি শিল্পী ছিলেন। তিনি চার সন্তানের জনক বলে জানা গেছে।
তার সঙ্গে থাকা ৫ ভারতীয় নাগরিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। তারা হলেন- জয় লাল, কিশান রায়, নারেশ কুমার, রবি কুমার, ইশান রাম।
ভোলা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীন ফকির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান ভারতের রাজস্থান প্রদেশ থেকে গত ১১ ফেব্রুয়ারি বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে নিহত মনোজবাটসহ ৬ ভারতীয় নাগরিক বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এক সপ্তাহ যশোর থাকার পর ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি দুই ধাপে যশোর থেকে ভোলায় প্রবেশ করেন।
তারা ভোলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফেনসি আর্ট করতেন এবং ভোলা শহরের কে জাহান আবাসিক হোটেলে নিয়মিত থাকতেন। প্রতিদিনের মতো গতকাল ২৭ ফেব্রুয়ারি রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে হোটেলে ঘুমিয়েছেন। পরদিন সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
ভারতীয় নাগরিক নিহত মনোজবাটের সহকর্মী ইশান রাম বলেন, ‘প্রতিদিনের মতো কাজ শেষ করে আমরা হোটেলে ফিরে খাওয়া দাওয়া শেষে টিভি দেখে রুমে ঘুমাতে যাই। সকালে মনোজবাটকে চা খাওয়ার জন্য ডাকতে গেলে সে কোনো সাড়া না দিলে হোটেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে ডাক্তার ডাকা হয়। পরে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে।
পরবর্তীতে হোটেল কর্তৃপক্ষকে সঙ্গে নিয়ে থানায় জানানো হয়। মনোজবাটের মৃত্যুর বিষয়টি তার পরিবারের মাধ্যমে ভারতীয় দূতাবাসের জানানো হয়েছে।
এ দিকে জাহান আবাসিক হোটেল ম্যানেজার মো: ইকবাল হোসেন ও বিপ্লব দে জানান ভারতীয় ৬ নাগরিক গত ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি ওই হোটেলে ওঠেন। পরবর্তীতে নিয়ম অনুযায়ী তাদের ভোটার আইডি, পাসপোর্টসহ সব প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সংগ্রহ করা হয়।
তারা টানা ১২ দিন হোটেল থেকে সকালে বের হয়ে যেত ও রাতে এসে ঘুমাতো। গতকাল রাতেও একই ঘটনা ঘটেছে। সকালে তাদের একজন এসে জানায়, মনোজবাট নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। পরে বিষয়টি নিশ্চিত হতে ডাক্তার ও থানায় খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।
ওসি শাহীন ফকির জানান শহরের আবাসিক হোটেলে ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যু খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ যায়। সুরতহাল সংগ্রহ করে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তারা সঠিক কী কারণে ভোলায় এসেছেন তা নিয়ে তদন্ত চলছে। ময়নাতদন্ত শেষে দুই দেশের দূতাবাসের সমন্বয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন