ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

যাঁরা আইন মানবেন না তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা -দুদক চেয়ারম্যান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৮, ৫:৫৯ পিএম

যাঁরা আইন মানবেন না, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। তিনি বলেন, দুর্নীতিই মানুষের মুক্তির প্রধান অন্তরায়। তাই আমার অনুরোধ, আসুন, আমরা সবাই আইন মেনে চলব। কেউ আমাদের আইন মানাবে, সে জন্য অপেক্ষা করে থাকব, সেটা হতে পারে না। কারণ আইন না মানাই দুর্নীতি। তাই এই প্রতিষ্ঠানের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আইন মেনে চলতে হবে। যিনি বা যাঁরা আইন মানবেন না, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বুধবার সকালে জাতীয় শোক দিবসে দুদক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় ইকবাল মাহমুদ এসব কথা বলেন। নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সময় কিশোরেরা দুদকের লোগো লাগানো একটি গাড়ি আটক করেছিল, এমন প্রসঙ্গ তুলে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘সংবাদ পাওয়ামাত্রই আমরা সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিয়েছি। কাউকেই আমরা ছাড় দিইনি এবং ভবিষ্যতেও ছাড় দেব না।’

ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুর্নীতি দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা। যদি দুর্নীতি দমন বা প্রতিরোধ করা যায়, তবেই মানুষ শিক্ষাসহ সব ধরনের সরকারি সেবা হয়রানিমুক্তভাবেই পাবে। তিনি বলেন, বিআরটিএ যদি দুর্নীতিমুক্ত হতো, তাহলে কীভাবে রংচটা, হেডলাইটবিহীন গাড়ি ফিটনেস সার্টিফিকেট পায়? তিনি আরও বলেন, আমরা বিআরটিএর কার্যক্রম দেখছি, বর্তমানে কৌশলগত কারণেই হস্তক্ষেপ করছি না। তারা যদি বেআইনি কিছু করে, জনস্বার্থেই কমিশন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়ে গুরুত্ব দেবে।

শোক দিবসের আলোচনায় দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘আজ জাতীয় শোক দিবস যেমন সত্য, তেমনি আজকের দিনটি লজ্জার এবং কলঙ্কেরও। কারণ আমি এমন একটি দেশের নাগরিক, যে দেশের মানুষের জন্য বঙ্গবন্ধু জীবনের সর্বোচ্চ ত্যাগ করেছেন, সেই দেশেরই কতিপয় দুর্বৃত্ত তাঁকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। বঙ্গবন্ধুকে আমরা রক্ষা করতে পারিনি, তাই এই কলঙ্ক জাতি হিসেবে মোচন করা সম্ভব নয়। এমনকি এ কলঙ্ক ভবিষ্যতে হাজার বছর পরের প্রজন্মকেও বহন করতে হতে পারে।’

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমাকে আশার আলো দেখায় নতুন প্রজন্মের শিশু, কিশোর-কিশোরী, তরুণ-তরুণীর উজ্জ্বল মুখ, যারা আমাদের ব্যর্থতা দেখিয়ে দেয়। এই প্রজন্মই সত্যিকারভাবে জাতির পিতার আদর্শকে হৃদয়ে ধারণ করে। এরাই জাতির পিতার স্বপ্নের অর্থনৈতিক, সামাজিক বৈষম্য থেকে মুক্তির সংগ্রামকে আদর্শ হিসেবে লালন করে, বৈষম্যহীন সমাজ বিনির্মাণ করবে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন