সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ১৪ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

বিনোদন প্রতিদিন

চলচ্চিত্রকে চাঙ্গা করতে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ব্যাপক উদ্যোগ

প্রকাশের সময় : ১০ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশের চলচ্চিত্র প্রযোজনা সংস্থা জাজ মাল্টিমিডিয়া তাদের ব্যবসার ক্ষেত্রে নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। জাজ মাল্টিমিডিয়া ছবি নির্মাণের পাশাপাশি হল ডিজিটালাইজেশনসহ নানা ধরনের কারিগরি সহায়তা দিয়ে থাকে। সেসব খাতগুলোতেই জাজ মাল্টিমিডিয়া নতুন নীতি গ্রহণ করেছে। এ নীতিমালায় প্রজেক্টরের ভাড়া কমানো, সিনেপ্লেক্স নির্মাণ ও পাইরেসি বন্ধে নতুন উদ্যোগের কথা বলা হয়েছে। জাজ মাল্টিমিডিয়া তাদের ফেসবুক পেইজে এ সংক্রান্ত একটি নোটও প্রকাশ করেছে। জাজের এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাধারণ প্রযোজক ও নির্মাতারা। জাজ মাল্টিমিডিয়া তার কর্মসূচি উল্লেখ করে বলেন, বর্তমানে প্রতিটি হলে সিনেমার এনকোডিং চার্জ আমরা নিচ্ছি ১২ হাজার টাকা। এটা প্রযোজক সমিতির সাথে জাজ-এর এগ্রিমেন্টের পরিপ্রেক্ষিতে করা হয়েছে। এর পর আমরা প্রযোজক সমিতির প্রাক্তন নেতাদের সাথে বসেছিলাম রেট কমানোর জন্য। কিন্তু আশানরূপ সাড়া পাই নাই। আশানুরূপ সাড়া না পাওয়ার কারণ হলো, যেহেতু নেতারা সিনেমা বানায় না, তাই আমরা ১২ হাজার নিলে যেমন তাদের ক্ষতি নাই, তেমনি কম নিলেও তাদের কোন লাভ নাই। বরং আমরা বেশি নিলে তাদের লাভ হচ্ছে, তারা সাধারণ প্রযোজককে বলতে পারে যে জাজ বেশি নিচ্ছে। জাজ-এর বদনাম করে তাদের নেতৃত্ব টিকিয়ে রাখার এটি একটি কৌশল। জাজ মনে করছে, এই সব তথাকথিত নেতাদের কুটিল পলিটিক্স থেকে সাধারণ প্রযোজকদের উদ্ধার করা উচিত। এজন্য আমার গত ২৮ এপ্রিল বেশ কিছু উদ্যোগ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সিদ্ধান্তগুলো হচ্ছে ১। এই ঈদ থেকে আমরা ২৫০ হল ডিজিটাল-এর আওতায় নিয়ে আসব। যা হবে সম্পূর্ণ কেডিয়াম ভিত্তিক এনক্রিপ্টেড সার্ভার। এই সার্ভার থেকে কপি বা পাইরেসি করা সম্ভব নয়। আমরা যদি সফল হই তবে আমরা পাইরেসি মুক্ত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উপহার দিতে পারব। ২। আমরা ২৫০টা সিনেমা হলকে ৪টা ক্যাটাগরিতে ভাগ করেছি। এগুলো হচ্ছে- এ বি সি ডি। যার ভিপিএফ চার্জ হবেঃ প্রথম সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির ৪৫টি সিনেমা হল - ১০,০০০ টাকা, ‘বি’ ক্যাটাগরির ২৫টি সিনেমা হল - ৮,০০০ টাকা, ‘সি’ ক্যাটাগরির ৫৫টি সিনেমা হল - ৬,০০০ টাকা, ‘ডি’ ক্যাটাগরির ১২৫টি সিনেমা হল - ৫,০০০ টাকা। দ্বিতীয় ও পরবর্তী সপ্তাহঃ ‘এ’ এবং ‘বি - ৫,০০০ টাকা, ‘সি’ এবং ‘ডি’- ৩ হাজার টাকা। এতে প্রযোজকের অর্থ সাশ্রয় হবে। এটা কার্যকর হয়েছে ১ মে থেকে। ৩। জাজ এই ঈদে বন্ধ হয়ে যাওয়া ৫০টি হল ভাড়া নিয়ে, সম্পূর্ণ নতুনভাবে ডেকোরেশন করে খোলার চেষ্টা করছে। ইতিমধ্যে আমারা ১৮টি হল ভাড়া নিয়েছি। আর বাকি হলগুলোর সাথে কথা চলছে। আশা করি, এই ঈদের পর থেকে প্রযোজকরা চলতি হলগুলোর সাথে, আরও ৫০টি হলে সিনেমা মুক্তি দিতে পারবে। ৪। আমরা ৪টি সিনেমপ্লেক্স তৈরি করছি। এগুলোর প্রাথমিক বাজেট ১৫ কোটি টাকা। ৫। এ ছাড়া কাজ চলছে ডিজিটাল টিকেটিং সিস্টেমের। আশা করছি, এই সিস্টেম এই রোজার ঈদ থেকে চালু হবে। বর্তমানে আমাদের এই প্রোজেক্টটি পরীক্ষাধীন টেস্ট রান) আছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Faridur Rahman ১০ মে, ২০১৬, ১১:০৬ এএম says : 0
are jara dekbe tader jonno to kora uchite kintu amader desher chobi indian r western culture onujayi kora hoy er pole beshirbag manush e deke na r dekbei ba chobite utbototay borpur bastbotar kun mil nei obastob chobi kew dekte chay na
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন