ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

‘নগরবাসীর সেবায় কামলা দিতে চাই’

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১১ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, নগরবাসীর সেবায় প্রয়োজনে সব প্রটোকল ভেঙে কামলা হিসেবে কাজ করতে চাই। এ জন্য কামলা বা যোগাইল এর মতো কাজ করতেও আপত্তি নেই আমার। গতকাল রোববার বিকেলে রাজধানীর গুলশান নগর ভবনে মেয়র হিসেবে প্রথম কার্যদিবসে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে সকালে মেয়র প্রথম দিনের মতো নগর ভবনে যান। মেয়র হিসেবে ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে অবহিত করতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
তিনি বলেন, একজন মেয়র হিসেবে দায়িত্ব অনেক, তবে সেগুলো স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী বিবেচনায় বাস্তবায়ন করা হবে। বেশি ভোগান্তির সমস্যাগুলো অতিদ্রুত সমাধানে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে নগরের অন্যতম সমস্যা পানিবদ্ধতা অতিদ্রুত সমাধান সম্ভব নয়। এটি যেন সহনীয় মাত্রায় থাকে সেজন্য প্রয়োজনীয় কাজ শুরু হয়েছে।
মেয়র বলেন, যেখানে যেভাবে কাজ করলে আমাদের শহরের ভালো হবে, আমি সেভাবেই কাজ করবো। কোথাও যদি কোনো ফাইল আটকে থাকে প্রয়োজনে আমি প্রটোকল ভেঙে দফতরির (কেরানি) সামনে বসে থাকব।
এসময় নিজের কর্মজীবনের সফলতার সূত্র টেনে নতুন মেয়র বলেন, আমার ২০টা মেমশিন থেকে আজ ১২ হাজার মেশিন হয়েছে। আমি কাজ করেছি বলেই তো হয়েছে। বসে থাকলে হতো না। এখানেও বসে থাকব না। আমি নগর পিতা নয় বরং নগর সেবক হতে চাই। এরজন্য প্রয়োজনে কামলা বা যোগাইলের মতো কাজ করব।
সংবাদ সম্মেলনে ডিএনসিসিতে নিজের প্রথম দিনের কাজ ও বিভিন্ন সিদ্ধান্তের কথা জানান আতিকুল ইসলাম। এগুলোর মধ্যে শহরের প্রতিটি দোকানে একটি করে ময়লার ঝুড়ি এবং দু’টি করে ফুল বা ফল গাছের টব স্থাপনের আহ্বান জানান দোকানদারদের। পাশাপশি ভবন মালিকদের ছাদে অথবা বাসার বারান্দায় সবুজায়নের আহ্বানও জানান তিনি। যারা এ আহ্বানে সাড়া দেবেন তাদের জন্য ডিএনসিসির পক্ষ থেকে পুরস্কার এবং হোল্ডিং করে মওকুফ করা হবে বলে জানান তিনি।
পাশাপশি আগামী বর্ষা মৌসুমে নগরবাসীকে পানিবদ্ধতা থেকে নিরসন দিতে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে এ বিষয়ে কাজ করা হবে বলে জানান তিনি। এছাড়া ১৭ মার্চ ডিএনসিসির পাঁচটি অঞ্চলে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক ক্যাম্পেইন ‘লাভ ঢাকা’ কর্মসুচি শুরু হবে। বর্জ্য বোঝা নয় সম্পদে পরিণত করতে কাজ শুরু করা হবে। এছাড়া নগরবাসী সমস্যা জানতে হট লাইন চালু করা হচ্ছে।
সংবাদ সম্মেলনে মেয়র আতিকুল ইসলামের সঙ্গে ডিএনসিসির সচিব রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়া, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাকির হোসেন, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সালেহীনসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন