ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নুসরাত হত্যা মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করা হবে

সংবাদ সম্মেলন আইনমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় করা মামলাটি দ্রুত নিষ্পত্তি করা হবে। সিলেটে শিশু রাজন হত্যা মামলার যেভাবে দ্রুত বিচার হয়েছে এ মামলারও সেভাবে দ্রুত বিচার হবে। গতকাল সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ‘জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস’ পালন নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলন হয়।
আইনমন্ত্রী বলেন, সিলেটের কুমারগাঁওয়ে অমানবিক নির্যাতনে শিশু সামিউল আলম রাজন (১৪) হত্যা মামলার বিচার দ্রুত হয়েছে। এ মামলায় আসামি কামরুলসহ চারজনের মৃত্যুদণ্ড, একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, তিনজনকে সাত বছর আর একজনকে এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল। ওই একইভাবে নুসরাত হত্যা মামলাটিও নিষ্পত্তি করা হবে। যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। এ মামলার চার্জশিট দাখিলের পরপরই দ্রুত পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি। মাদরাসার এক ছাত্রী সহপাঠী নিশাতকে ছাদের ওপর কেউ মারধর করছে, এমন সংবাদ দিলে তিনি ওই ভবনের তিনতলায় যান। সেখানে মুখোশধারী বোরকা পরিহিত ৪-৫ জন তাকে অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। রাফি তাতে অস্বীকৃতি জানালে তার গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। চার দিন মৃত্যুর সাথে লড়ে নুসরাত গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস রোববার
দরিদ্র, অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত নাগরিকদের সরকারি আইনি সহায়তা কার্যক্রম সম্পর্কে সচেতন করতে এবারও আগামী ২৮ এপ্রিল জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালন করবে সরকার। দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য হলো- ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় শেখ হাসিনার অবদান, বিনামূল্যে লিগ্যাল এইডে আইন সেবাদান।’
সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আইনমন্ত্রী বলেন, ২৮ এপ্রিল সকাল ১০টায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে দিবসের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই দিন বেলা আড়াইটা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরের উন্মুক্ত মঞ্চ ও চত্বরে লিগ্যাল এইড মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। এছাড়া জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্যোগে জেলা পর্যায়ে সভা, সেমিনার, রক্তদান কর্মসূচি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও শোভাযাত্রার আয়োজন করা হবে বলেও জানান আইনমন্ত্রী।
আনিসুল হক বলেন, জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে সংবাদপত্রে আইন সহায়তাবিষয়ক ক্রোড়পত্র ও বিশেষ নিবন্ধ প্রকাশিত হবে এবং রেডিও-টেলিভিশনে হবে আইন সহায়তা সংক্রান্ত টকশো ও মুক্ত আলোচনা।
২০০৯ সালের মার্চ থেকে ২০১৯ সালের মার্চ পর্যন্ত জাতীয় আইনগত সংস্থার মাধ্যমে মোট ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৭৯০ জনকে বিনামূল্যে আইনি সেবা দেয়া হয়েছে। আইনগত সহায়তাপ্রাপ্তদের মধ্যে ৬৬ হাজার ৪০২ জন কারাবন্দি ছিলেন বলে জানান আইনমন্ত্রী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন