ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

যাবজ্জীবন কারাবাস শুরু করছেন ‘দোসা কিং’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০১৯, ৪:৫১ পিএম

বৈশ্বিক রেস্টুরেন্ট চেইন ‘সারাভানা ভবন’ এর কর্ণধার তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশের বিরুদ্ধে শেষ দফা আবেদন করেও ব্যর্থ হয়েছেন। ৭১ বছর বয়সী পি রাজাগোপাল তার এক কর্মীকে হত্যা করার আদেশ দেন, কারণ তিনি ঐ কর্মীর স্ত্রী’কে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন।

২০০৯ সালে রাজাগোপালকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের শাস্তি দেয়ার পর থেকে তিনি এই সাজা কমানোর চেষ্টা করে আসছেন। মঙ্গলবার সবশেষ আবেদনে স্বাস্থ্যজনিত কারণ দেখিয়ে আবেদন করলে সেটিও নাকচ হয়ে যায়।

বিশ্বব্যাপী সারাভানা ভবন'এর ৮০টি শাখা এবং কয়েক হাজার কর্মী রয়েছে। রাজাগোপালের রেস্টুরেন্টের একটি দক্ষিণ ভারতীয় খাবারের নামানুসারে তাকে ‘দোসা কিং’ বা দোসা’র রাজা বলে ডাকা হতো। নিউ ইয়র্ক, সিডনি, লন্ডনের মত শহরে তার খাবারের দোকানের শাখা রয়েছে।

একজন জ্যোতিষীর উপদেশ অনুযায়ী নিজের একজন কর্মচারীর স্ত্রী’কে বিয়ে করার জন্য উদ্যত হন রেস্টুরেন্ট মালিক রাজাগোপাল।

স্থানীয় এক সাংবাদিক সুরেশ কুমার সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানান, ‘ঐ নারীর জন্য তিনি পাগল ছিলেন।’

২০০৩ সালে ঐ নারীকে প্রলোভন দেখানো এবং ঐ নারীর পরিবারকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করার অভিযোগ ওঠায় কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েন রাজাগোপাল। সেসময় ঐ নারীর ভাইকে নির্যাতনের অভিযোগও ওঠে তার বিরুদ্ধে। ২০০১ সালে ঐ নারীর স্বামীকে খুঁজে পাওয়া না গেলে রাজাগোপালের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ করেন ঐ নারী। পরে একটি জঙ্গলে ঐ নারীর স্বামীর মরদেহ পাওয়া যায় এবং পুলিশ নিশ্চিত করে যে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

২০০৪ সালে একটি স্থানীয় আদালত রাজাগোপালকে দোষী সাব্যস্ত করে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়। পরে চেন্নাইয়ের হাইকোর্ট ২০০৯ সালে তার শাস্তি বাড়িয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। এ বছরের মার্চে সুপ্রিম কোর্ট রাজাগোপালের দণ্ডাদেশ বহাল রাখেন। মঙ্গলবার অসুস্থতার অজুহাত দেখিয়ে করা রাজাগোপালের শেষ আবেদন বাতিল হলে তিনি চেন্নাইয়ের আাদালতে নিজেকে সমর্পণ করেন। সূত্র: বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন