ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

বিনোদন প্রতিদিন

সিনেমা হলে শাকিবের প্রজেকশন মেশিন বসানোর ঘোষণা প্রচারণা ছাড়া কিছু না!

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

চিত্রনায়ক শাকিব তার ক্যারিয়ারে অনেক ঘোষণাই দিয়েছেন। সেসব ঘোষণা যে খুব একটা বাস্তবায়ন হয়েছে তা বলা যায় না। ফলে তার এসব ঘোষণাকে চলচ্চিত্রাঙ্গণের লোকজন চমক সৃষ্টি করা এবং প্রচারণা পাওয়ার কৌশল হিসেবে ধরে নিয়েছে। সম্প্রতি শাকিব ঘোষণা দিয়েছেন আসন্ন ঈদুল আযহায় ২০০ হলে উন্নতমানের প্রজেকশন মেশিন বসাবেন। তার নতুন প্রতিষ্ঠান এসকে বিগ স্ক্রিন থেকে এই মেশিন বসানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বাস্তবে এই কাজ এখনও শুরু হয়নি। আদৌ শুরু হবে কিনা, তা কেউ জানে না। ঈদের আর বাকি প্রায় ২০ দিনের মতো। এত স্বল্প সময়ে মেশিন বসানোর কাজ অসম্ভব বলে হল মালিক ও সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। অন্যদিকে া হল মালিকদের সংগঠন চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতিও এ ব্যাপারে কিছু জানে না। সংগঠনের সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ জানান, এ বিষয়ে শাকিবের সাতে তার কথা হয়নি। তিনি বলেন, শাকিব খান বা অন্য কারো সঙ্গে সিনেমা হলে মেশিন বসানোর বিষয় নিয়ে কোনো কথা হয়নি আমার ও আমাদের। তাছাড়া বিষয়টি নিয়ে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের মধ্যেও কোনো আলোচনা নেই। সিনেমা হলে সার্ভার, প্রজেক্টর মেশিন, পর্দা এবং সাউন্ড সিস্টেম বসিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দেশের চলচ্চিত্রাঙ্গনে ব্যবসা করছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আলীমুল্লাহ খোকন বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন ঈদের আগে এতগুলো হলে মেশিন বসানো সহজ কাজ নয়। হল মালিকদের কাছ থেকেও তো এমন কথা শুনছি না যে শাকিব খানের মেশিন তারা হলে বসাবে। আর সেই মেশিন কই? এতগুলো মেশিন দেশে আসবে তারপর না কাজ শুরু হবে। তিনি জানান, জাজ মাল্টিমিডিয়ার ৩১২টি হলের সঙ্গে মেশিন বসানো বিষয়ক চুক্তি আছে। তাহলে শাকিব খানের প্রতিষ্ঠান যদি ঈদে আরও দুইশ প্রজেক্টর মেশিন বসায় তাহলে হল সংখ্যা হবে পাঁচশরও বেশি। ফলে বিষয়টি অনেকটা বাস্তবতা বিবর্জিত। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই এখন শাকিবের এই ঘোষণাকে চমক সৃষ্টি হিসেবে বিবেচনা করছেন। তারা বলছেন, প্রচার পাওয়ার জন্য তিনি এ ধরনের ঘোষণা দিয়েছেন। আদতে তার পক্ষে এ কাজ করা সম্ভব নয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন