ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আসামের নাগরিকত্ব ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় : জয়শঙ্কর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ আগস্ট, ২০১৯, ১১:৫৯ এএম | আপডেট : ৭:১৪ পিএম, ২০ আগস্ট, ২০১৯

ছবি- মতিউর সেন্টু।


আসাম রাজ্যে জাতীয় নাগরিক পঞ্জি বা এনআরসি নিয়ে যা হচ্ছে সেটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা সফররত দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্কর।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে আসামে যে ৪০ লাখ মানুষ নাগরিকত্ব হারানোর ঝুঁকিতে আছে সেটি বাংলাদেশকে প্রভাবিত করবে কি-না সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তিনি বলেন ‘এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ নিয়ে কথা বলার কিছু নেই।’

এ সময় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার সঙ্গে থাকলেও তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

যদিও অতীতে বিভিন্ন সময় বিজেপির প্রভাবশালী নেতারা বলেছিলেন যে আসামে যে নাগরিক তালিকা করা হয়েছে তাতে যারা বাদ পড়েছে তারা অবৈধ বাংলাদেশি এবং তাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে।

রোহিঙ্গা বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান বাংলাদেশ, ভারত ও মিয়ানমার- তিন দেশের স্বার্থেই দরকার।

এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সাথে বৈঠকে বসেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকের পরে দুপুর ১২টায় দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী যৌথভাবে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেবেন।

বৈঠকে দু’দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছে কূটনৈতিক সূত্র। এদিকে গতকাল ঢাকায় নেমেই বিমানবন্দরে জয়শঙ্কর সাংবাদিকদের বলেন, দু’দেশের সম্পর্ক এগিয়ে নিতে আলোচনার অনেক কিছুই আছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের আমন্ত্রণে সোমবার রাত ৯টা ২০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর। সেখানে ড. আব্দুল মোমেন তাকে অভিবাদন জানান।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরসূচি অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকালে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জয়শঙ্কর। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার সৌজন্য সাক্ষাতের কথা আছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Miah Muhammad Adel ২০ আগস্ট, ২০১৯, ৪:০৫ পিএম says : 0
Bangladeshi Foreign Minister could not protest at all to Joyshankar's words. How could he digest the words? This is Bangladesh.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন