ঢাকা, রোববার , ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জয় হিন্দ স্লোগান ও শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্য

রাবি ভিসি, প্রো-ভিসির পদত্যাগ দাবি

রাবি সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

 রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় ভিসির জয় হিন্দ স্লোগান ও প্রো-ভিসির শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যর অভিযোগে দ্রুত পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে শাখা প্রগতিশীল ছাত্রজোট। গতকাল বুধবার দুপুরে বিশ^বিদ্যালয় আমতলা চত্বরে সমাবেশে এ দাবি জানান। এর আগে সৈয়দ ইসলামঈল হোসেন সিরাজী ভবনের সামনে থেকে দুর্নীতি ও জালিয়াতি বিরুদ্ধে পদযাত্রা বের করে। পরে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আমতলায় সমাবেশে মিলিত হয়।

এতে অংশ নেয়, রাবি শাখা বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টও ছাত্র ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী।
জানা গেছে, গত ২৬ সেপ্টেম্বর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে ইতিহাস বিভাগ ও জন ইতিহাস চর্চা কেন্দ্র তিনদিনব্যাপী আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্য জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগানের পর জয় হিন্দ সেøাগান দেন ভিসি। এটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার সারাদেশে বিভিন্ন ভাবে সমালোচনা ও মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়। এর পর থেকেই তোপের মুখে পড়ে ভিসি। পরবর্তীতে ভিসির পক্ষে জনসংযোগ প্রশাসক ড. প্রভাষ কুমার কর্মকার এক বিজ্ঞপ্তিতে ভারতের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অতি প্রাসঙ্গিকভাবেই এ স্লোগান দিয়েছিলেন বলে স্বীকার করেন। এর ঠিক দু’দিন পরে রাবি প্রো-ভিসি প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়ার শিক্ষক নিয়োগে ৪৮ সেকেন্টের অডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। সেখানে চাকরি প্রার্থীর স্ত্রীর নিকট দর কষাকষি হয়। এরপর থেকেই ক্যাম্পাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মাঝে সমালোচনার নতুন রুপ নেয়। মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ক্যাম্পাসের সাধারণ শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ ক্রিয়াশীল সংগঠনগুলো।

রাবি শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি শাকিলা খাতুন বলেন, একটি দেশের মেরুদ- বলা হয় বিশ^বিদ্যালয়কে। কিন্তু যখন মেরুদ- প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তি দুর্নীতি জালিয়াতিতে জড়িয়ে পড়ে তখন ভবিষ্যৎ প্রজন্ম মেরুদ-হীন হিসেবে পরিণত হবে। যা আইন বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় প্রো-ভিসির চাকুরি প্রত্যাশীর স্ত্রীর সঙ্গে দরকষাকষির ফোনালাপে স্বজনপ্রীতিকে ছাপিয়ে গিয়ে বিশ^বিদ্যালয়কে জালিয়াতি ও দুর্নীতির শীর্ষ পর্যায়ে পৌছেছে। যা শিক্ষিত সমাজকে বাকরুদ্ধ করেছে।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, সারাদেশে আজ দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হয়েছে। রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়েও লক্ষ্য করছি। এখানে শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করে প্রকৃত মেধার মূল্যায়ন করা হচ্ছে না। এর মধ্যে দিয়ে প্রতীয়মান হয় যে, বিশ^বিদ্যালয়কে স্বৈরতান্ত্রিক, পারিবারিক প্রতিষ্ঠান রুপান্তরে পায়তারা চলছে। অবিলম্বে ভিসি, প্রোভিসির পদত্যাগ এর মধ্যে দিয়ে একটি জবাবদিহিতামূলক গণতান্ত্রিক ক্যাম্পাস নির্মাণের দাবি জানান।
এসময় বক্তব্য দেন, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক রনজু হাসান, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফন্টের আহ্বায়ক রিদম শাহরিয়ার, ছাত্র ইউনিয়নের দপ্তর সম্পাদক শাকিল হোসেন প্রমুখ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন