ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

এই অবৈধ সরকার জাতির অর্জনগুলোকে ধ্বংস করে ফেলছে : মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:২৯ পিএম | আপডেট : ৫:৩০ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯

‘আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের যে চেতনা, আমাদের স্বাধীন স্বার্বভৌম বাংলাদেশ, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করবার যে স্বপ্ন, সেই স্বপ্ন বর্তমান অগণতান্ত্রিক সরকার তা আজকে ভেঙ্গে খান খান করে দিয়েছে। এই অবৈধ সরকার বাংলাদেশের অর্জনগুলোকে, জাতির অর্জনগুলোকে ধ্বংস করে ফেলছে। আমরা আজকে একটা গণতন্ত্র বিহীন, জনগণের অধিকার বিহীন একটা অবস্থার মধ্যে বিরাজ করছি।’- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকের এই দিনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আমাদের দেশকে যারা পুনর্গঠন করবে তাদেরকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছেন। তারা এ দেশকে মেধাশূণ্য করার লক্ষে পরিকল্পিতভাবে আমাদের মেধাবী সন্তানদের হত্যা করেছে। আর আজকে মহান স্বাধীনতার যিনি ঘোষক তার সহধর্মিনী যিনি পাক হানাদার বাহিনীর হাতে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বন্দী ছিলেন তাকে অন্যায়ভাবে কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে। এই সরকার দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রাখার মাধ্যমে আমাদের স্বাধীনতার স্বপ্নকে খানখান করে দিয়েছে।

আজ শনিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, আজকে যখন আমাদের নেত্রী কারাগারে, যখন আমাদের হাজার হাজার নেতাকর্মী কারাগারে মিথ্য মামলায় আজকে গণতান্ত্রিক সবদলগুলোকে স্তব্দ করে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে বিএনপিকে যখন নির্মূল করার চেষ্টা হচ্ছে সেই সময়ে আজকে সবচেয়ে বড় প্রয়োজন যেটা সমস্ত জাতির ঐক্য। আজকে সম্পূর্ণকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠার জন্য আজকে আমাদেরকে সবাইকে সংগ্রাম করতে হবে।

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, আজকে আমাদের এই দিনে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের পথ অনুসরণ করে দেশের স্বাধীনতাকে স্বার্বভৌমত্ব রক্ষা করবার জন্যে, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার জন্যে আমাদের সংগ্রামের আরও গতি বাড়াবো, সংগ্রামকে আরও বেগবান করবো। ইনশাআল্লাহ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিজয় অর্জন করবো।

এ সময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ন-মহাসচিব খাইরুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান, চেয়ারপার্সনের মিডিয়া উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন