ঢাকা শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ মুহাররম ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বগুড়ায় স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু নেপথ্যে দাদন ব্যবসায়ী ?

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:০৯ পিএম

বগুড়ার নন্দীগ্রামে দাদন ব্যবসায়ীদের মারপিটে সাইফুল ইসলাম (৫০) নামে এক স্কুল শিক্ষকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। বুধবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি । নিহত সাইফুল নন্দীগ্রাম উপজেলার পেং হাজারকি গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে এবং পার্শ্ববর্তী দোলছাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। সোমবার দিবাগত রাতে গ্রামের লোকজন হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সন্ধ্যার পর সাইফুল ইসলাম বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন তার খোঁজ করতে থাকেন। এক পর্যায়ে তার কর্মস্থল দোলগাছি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বারান্দায় হাত-পা বাঁধা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকালে তিনি মারা যান।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সাইফুল ইসলামের ছেলে শুভ গ্রামের একাধিক দাদন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১৫-১৬ লাখ টাকা দাদনে নিয়ে পরিশোধ করতে পারছিলেন না। সাইফুল ইসলামের বেতনের চেক বইও দাদন ব্যবসায়ীদের কাছে রয়েছে। টাকা আদায়ের জন্য দাদন ব্যবসায়ীরা সাইফুল ইসলামকে চাপ দিয়ে আসছিল। দাদন ব্যবসায়ীরাই সাইফুল ইসলামকে মারপিট করে হাত-পা বেঁধে স্কুলের বারান্দায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।
নন্দীগ্রামের বুড়ইল ইউপি চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ বলেন, সাইফুল ইসলাম সোমবার সন্ধ্যায় দোলগাছি বাজারে যান। সেখান থেকে কে বা কারা তাকে ধরে নিয়ে হাত-পা বেঁধে মারপিট করে ফেলে রেখে যায়। নন্দীগ্রাম থানার ওসি শওকত কবীর বলেন, সাইফুল ইসলাম হাসপাতালে মারা গেছেন বলে শুনেছি। তবে কীভাবে মারা গেছেন তা জানা যায়নি। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন