ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

শাকিল ফিরলেন পোড়া লাশ হয়ে

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

জীবিকার তাগিদে দক্ষিণ আফ্রিকা গিয়ে পোড়া লাশ হয়ে ফিরলেন কুমিল্লার দাউদকান্দির শাকিল মিয়া। পরিবারের সচ্ছলতা আনতে দুই বছর আগে ভিনদেশে পাড়ি দিয়েছিলেন তিনি।
গতকাল রোববার ভোরে উপজেলার গৌরীপুর ইউনিয়নের পেন্নাই গ্রামে তার লাশ পৌঁছে। শাকিলের লাশ দেখে রিকশাচালক বাবা হোসেন মিয়া, মা সামসুন নাহার ও স্ত্রী শান্তা বেগম নিজেদের ধরে রাখতে পারেন নি। তাদের আহাজারিতে এলাকার আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠে। বেলা ১১টায় পেন্নাই ঈদগাঁ মাঠে জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

স্বজনরা জানান, দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গের নিকটবর্তী পামব্রিজ (কেতলেহং) এলাকায় গত (২০ জানুয়ারি আসরের নামাজের পর একদল সন্ত্রাসী শাকিলের দোকানে ডুকে লুটপাট চালায়। প্রতিবাদ করলে তাকে বেধড়ক মারধর করে শাকিলকে ভেতরে রেখেই পেট্রল ঢেলে দোকানে আগুন ধরিয়ে হামলাকারীরা চলে যায়। স্থানীয় লোকজন শাকিলকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। বুধবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাকিলের মৃত্যু হয়। গত রোববার ভোরে শাকিলের লাশ পেন্নাই পৌঁছালে গোটা বাড়িই শোকে স্তব্ধ দেখা যায়। দেড় বছরের মেয়ে সিনথিয়াকে কোলে নিয়ে শাকিলের স্ত্রী শান্তা আক্তার বিলাপ করছেন। বাবা হোসেন মিয়া বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন। মা সামছুন নাহার, একমাত্র বোন লিপি আক্তার অঝোরে কাঁদছেন।

শাকিলের বাবা হোসেন মিয়া বলেন, রিকশা চালিয়ে ছেলেমেয়েদের বড় করেছি। এখন আর রিকশা চালাতে পারি না। তার ওপরে ঋণের বোঝা। কী করব বুঝতে পারছি না। শাকিলের স্ত্রী শান্তা আক্তার বলেন, মৃত্যুর এক ঘণ্টা আগে তার সঙ্গে ফোনে কথা হয় শাকিলের। তিনি বলেছিলেন, তার ব্যবসা করতে খুবই ভয় লাগে। ঋণ শোধ হয়ে গেলে দেশে ফিরে আসবেন। আবার বাসের সুপারভাইজারের চাকরিতে যোগ দেবেন। ফিরে আসছেন ঠিকই, কিন্তু লাশ হয়ে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন