ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

মুশফিকের ডাবলের পর ইনিংস ঘোষণা

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে একমাত্র টেস্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:৪২ পিএম

বাংলাদেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান তিনি। সর্বাধিক ডাবল সেঞ্চুরির মালিকও বটে। এবার সে সংখ্যাটা আরও বাড়ালেন মুশফিকুর রহিম। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এদিন অসাধারণ ব্যাটিং করে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নেন দেশের অন্যতম সেরা এ ব্যাটসম্যান। আর তাতে তামিম ইকবালকে ছাড়িয়ে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের চূড়ায় পৌঁছেছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

তার ইতিহাসগড়া ডাবলের পরই ইনিংস ঘোষণা করে দেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। ১৫৪ ওভারে স্বাগতিকদের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৫৬০। মুশফিকের ৩১৮ বলে ২০৩ রানের অপরাজিত ইনিংসটি ২৮টি চারে সাজানো। ১৪ রান নিয়ে ব্যাট করছিলেন তাইজুল ইসলাম। সবমিলিয়ে বাংলাদেশের লিড ২৯৫ রান।

১৮ চারে ১৬০ বলে তিন অঙ্ক ছুঁয়েছিলেন মুশফিক। ৩‌১৫ বলে লেগেছে ডাবল সেঞ্চুরিতে যেতে। শেষ পর্যন্ত ৩১৮ বলে ২৮ চারে ২০৩ রানে অপরাজিত থাকেন অভিজ্ঞ এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

৬ উইকেটে ৫৬০ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। টেস্টে তাদের এর চেয়ে বড় ইনিংস আছে কেবল দুটি। ২০১৭ সালে ওয়েলিংটনে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ উইকেটে করেছিল ৫৯৫ রান। ২০১৩ সালে গলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে করা ৬৩৮ এখনও সেরা।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আগের সেরা ২০১৮ সালে এই মিরপুরেই, ৭ উইকেটে ৫২২।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস: ২৬৫

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: (আগের দিন ২৪০/৩) ১৫৪ ওভারে ৫৬০/৩ (মুমিনুল ১৩২, মুশফিক ২০৩*, মিঠুন ১৭, লিটন ৫৩, তাইজুল ১৪*; টিরিপানো ৩০-৬-৯৬-১, নিয়াউচি ২৭-৩-৮৭-১, রাজা ৩০-১-১১১-১, টিশুমা ২৫-০-৮৫-১, এনডিলোভু ৪২-১-১৭০-২)

মুমিনুলের বিদায়ে ভাঙল রেকর্ড জুটি

বেরিয়ে এসে বোলারের মাথার ওপর দিয়ে ওড়াতে চেয়েছিলেন মুমিনুল হক। তবে দারুণ রিফ্লেক্সে ক্যাচ মুঠোয় জমিয়ে তাকে চমকে দিলেন আইন্সলে এনডিলোভু। টেস্টে এটাই বাঁহাতি এই স্পিনারের প্রথম উইকেট।

২৩৪ বলে ১৪ চারে ১৩২ রান করেন মুমিনুল। ভাঙে ২২২ রানের জুটি। তবে তার আগেই ১৩৫ রানের লিড নিয়ে পানি পানের বিরতিতে গেছে স্বাগতিকরা। ১১৩ ওভারে বাংলাদেশের স্কোর ৪০০/৪। ক্রিজে মুশফিকুর রহিমের (১২৮) সঙ্গী মোহাম্মদ মিঠুন (৫)।

তামিম-ইমরুলকে ছাড়িয়ে মুমিনুল-মুশফিক

এতো দিন টেস্টে দুটি করে দুইশ রানের জুটি ছিল তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস এবং মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম জুটির। দুই ওপেনারের জুটিকে এবার ছাড়িয়ে গেলেন মুমিনুল ও মুশফিক।

মুমিনুল-মুশফিকের তিনটি দুইশ রানের জুটির দুটি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। ২০১৮ সালে মিরপুরেই চতুর্থ উইকেটে গড়েছিলেন ২৬৬ রানের জুটি। এর আগে সেই বছর জানুয়ারিতে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তৃতীয় উইকেটে গড়েন ২৩৬ রানের জুটি।

টেস্টে দশমবারের মতো দুইশ বা এর বড় জুটি পেল বাংলাদেশ। ৩১৬ বলে দুইশ স্পর্শ করে মুমিনুল-মুশফিকের চতুর্থ উইকেট জুটির রান। তাদের জুটি একশ ছুঁয়েছিল ১৮০ বলে।

মুমিনুলের পর মুশফিকের সেঞ্চুরি

দুর্দান্ত এক দ্যুতি ছড়ানো সেঞ্চুরিতে দলকে কক্ষপথে রাখলেন মুমিনুল হক। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে তিন অঙ্কের দেখা পেলেন মুশফিকুর রহিমও।

সেঞ্চুরির জন্য মোটেও তাড়াহুড়া করেননি এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। অপেক্ষা করেছেন সঠিক বলের জন্য। লাঞ্চের পর দ্বিতীয় ওভারেই পেয়ে গেলেন সেই বল। আইন্সলে এনডিলোভুর বলে বাউন্ডারি মেরে পৌঁছে গেলেন সপ্তম টেস্ট শতকে।

১৮ চারে ১৬০ বলে তিন অঙ্ক ছুঁয়েছেন মুশফিক। ৯৫ বলে ছুঁয়েছিলেন ফিফটি। এই অভিজ্ঞ দুই সেনানীর ব্যাটে ভর করে এরই মধ্যে ১২৪ রানের লিড নিয়েছে বাংলাদেশ।

১০৭ ওভার শেষে ঐ ৩ উইকেট হারানো স্বাগতিকদের সংগ্রহ ৩৮৯। মুমিনুল ১২৮ ও মুশফিক ১২৬ রানে ব্যাট করছেন।

মুমিনুলের সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় মুশফিক

অধিনায়ক হিসেবে বিবর্ণ শুরুর পর ক্রমেই নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন মুমিনুল হক। ভারত সফর একদমই ভালো কাটেনি। পাকিস্তানে থিতু হতে পেরেছিলেন কিন্তু দুটি সম্ভাবনাময় ইনিংসকে দিতে পারেননি পূর্ণতা। দেশের মাটিতে নেতৃত্বর অভিষেকে পেলেন তিন অঙ্কের দেখা।

ডোনাল্ড টিরিপানোকে দারুণ এক কাভার ড্রাইভে বাউন্ডারিতে সেঞ্চুরিতে পৌঁছান মুমিনুল। টেস্টে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের এটি নবম সেঞ্চুরি। স্পর্শ করলেন বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি নয় সেঞ্চুরি করা তামিম ইকবালকে।

২০৮ মিনিটে ১৫৬ বলে তিন অঙ্ক ছোঁয়ার পথে মুমিনুলের ব্যাট থেকে এসেছে ১২টি চার। অপরাজিত আছেন ১১৯ রানে।

তিন অঙ্ক পেতে যাচ্ছেন মুশফিকুর রহিমও। মাত্র এক রানের অপেক্ষায় রেখে লাঞ্চ বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ। ১৫৩ বলে ৯৯ রানের ইনিংসটি ১৭টি চারে সাজানো।

৯৯ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারানো স্বাগতিকদের সংগ্রহ ৩৫১। এই দুই অভিজ্ঞ টেস্ট স্পেশালিস্টের কাঁধে ভর করে এরই মধ্যে ৮৬ রানের লিড নিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় দিন শেষে সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস : ২৬৫

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৭১ ওভারে ২৪০/৩ (তামিম ৪১, সাইফ ৮, শান্ত ৭১, মুমিনুল ৭৯*, মুশফিক ৩২*; টিরিপানো ১৫-৩-৪০-১, নিয়াউচি ১৩-২-৪১-১, রাজা ২২-১-৭৫-০, টিশুমাম ১২-০-৪৬-১, এনডিলোভু ৯-১-৩৩-০)।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন