ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬, ০৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চাকরি হারানোর ক্ষোভে ৫ জনকে গুলিতে হত্যা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

চাকরি চলে যাওয়ায় ক্ষোভে পাঁচজনকে গুলি করে হত্যা করেছেন এক ব্যক্তি। যুক্তরাষ্ট্রের উইসকন্সিন অঙ্গরাজ্যে স্থানীয় সময় বুধবার ওই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর আল-জাজিরার। পুলিশ জানিয়েছে, মিলওয়াউকি শহরে পাঁচজনকে হত্যার পর ওই ব্যক্তি নিজেও আত্মঘাতী হয়েছেন। ওই ব্যক্তির বয়স ৫১ বছর। ওই ব্যক্তি নিজের গুলিতেই আত্মঘাতী হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ। মিলওয়াউকি শহরের মেয়র টম বেরেট বলেন, নিহত পাঁচজন আজ অন্যসব দিনের মতোই কাজে গিয়েছিল। তারা ভেবেছিল যে তারা সব কাজ শেষ করে নিজেদের পরিবারের কাছে ফিরবে। কিন্তু তারা ফেরেনি। সবচেয়ে দুঃখজনক হচ্ছে তারা আর কখনওই ফিরবে না। সাংবাদিকদের উদ্দেশে রেবেট বলেন, অন্যান্য কর্মীদের কাছে এটা একটা ভয়ঙ্কর দিন। যারা এই লোকজনের খুব ঘনিষ্ঠ ছিলেন তাদের জন্য এই পরিস্থিতি খুব কঠিন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে স্থানীয় পুলিশ এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, সেখানে শঙ্কা বা আতঙ্কের কিছু নেই। এই ঘটনায় নিহতদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। একটি বিশাল কমপ্লেক্সে আচমকা হামলা চালায় হামলাকারী। সেখানে কমপক্ষে ছয় শতাধিক মানুষ কাজ করছিল। মিলারকোরস নামের একটি বিয়ার উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান স¤প্রতি প্রায় ৫শ কর্মীকে ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দেয়। চাকরিচ্যুত হওয়ার কারণেই এই হামলা চালানো হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গোলাগুলির ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ প্রধান আলফোন্সো মোরালেস বলেন, “আর কোনো হুমকি নেই, রাতজুড়েও তদন্ত অব্যাহত রাখবো আমরা।” রক্তপাতের ঘটনাটি মলসন কুজ কমপ্লেক্সের ভিতরেই সীমাবদ্ধ ছিল এবং এ ঘটনায় বাইরের কেউ জড়িত ছিল না বলে জানিয়েছেন তিনি। শহরের কেন্দ্রস্থলের পশ্চিম দিকে অবস্থিত এই কারখানাটি স্থানীয়ভাবে ‘মিলার ব্রুয়েরি’ নামে পরিচিত। ‘মিলার বিয়ার’ কোম্পানিটির অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ব্রান্ড। মৃত বন্দুকধারী একাই হামলাটি চালিয়েছে, এমনটি বিশ্বাস করা হচ্ছে বলে মোরালেস জানিয়েছেন। ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পরও আইনপ্রয়োগকারী কর্মকর্তারা কারখানাটির ভবনগুলোতে তল্লাশি চালিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছিলেন। হামলাকারীকে মিলওয়াকি শহরের ৫১ বছর বয়সী এক বাসিন্দা বলে বর্ণনা করা হয়েছে। রয়টার্স।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন