ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬, ০৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

পণ্যের দাম স্বাভাবিক

বাজারে ভিড় নেই

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ মার্চ, ২০২০, ১২:০৬ এএম

করোনাভাইরাসের কারণে বাজারে ভিড় নেই। সব জিনিসপত্রের দাম স্বাভাবিক। তবেএর মধ্যে লেবুর দাম বেড়েছে। আকার অনুযায়ী ৬০ থেকে ৮০ টাকা হালিতে বিক্রি হচ্ছে লেবু।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও ঘরে অবস্থান নিশ্চিত করতে এরই মধ্যে ঢাকায় চলাচলে নিয়ন্ত্রণ এনেছ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। একান্ত প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না লোকজন। যার প্রভাব পড়েছে বাজারে। একেবারেই ভিড় নেই, বাজার অনেকটা ক্রেতা শূন্য।

গতকাল রাজধানী ঢাকার বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে এসব দৃশ্য দেখা যায়। লকডাউন ঘোষণার খবরে গত পঁচ-ছয় দিন বাজারে ছিল উপপে পড়া ভিড়। সে তুলনায় গতকাল বাজার ছিল ফাঁকা। নিত্যপণ্য, ওষুধের দোকান ছাড়া সব দোকান বন্ধ রয়েছে। বাজারে শাক-সবজিসহ অন্যান্য জিনিস পত্রের দাম আগের মত থাকলেও বেড়েছে লেবুর দাম। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে লেবু খাওয়ার পরামর্শ থাকায় চাপ পড়েছে লেবুর উপর। আগে যে লেবু বিক্রি হতো ২০ টাকা হালি সেই লেবু এখন ৬০ টাকা। আর ৩০ টাকা হালির লেবু ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খিলগাঁও রেল গেইট বাজারের কাঁচামাল ব্যবসায়ী শহিদ বলেন, ‘ হঠাৎ করে লেবুর চাহিদা বেড়ে গেছে। আগে যিনি লেবু কিনতেন না বা এক হালি লেবু নিতেন, এখন তিনি এক ডজন করে লেবু কিনছেন। সবাই ডজন ডজন লেবু কেনায় এর দাম বেড়ে গেছে। আমরাও অনেক বেশি দাম দিয়ে কিনে এনেছি। যে লেবু আমরা সর্বোচ্চ ৪০ টাকা বিক্রি করেছি। এখন সেই লেবু ৮০ টাকা হালি। তবে লেবু ছাড়া অন্য শাক-সবজির দাম একই রকম আছে। কোন কোন সবজি আগের চেয়ে কিছুটা কমেও বিক্রি হচ্ছে।

রামপুরা বাজারের মুদি দোকানদার মো. নাজিম বলেন, বাজারে এখন ক্রেতা অনেক কমে গেছে। মানুষ আতঙ্কিত হয়ে যা কেনার আগেই কিনে ফেলেছেন। এ কারণে বাজারে এখন ভিড় নেই। নিত্যপণ্যের দাম তেমন বাড়েনি, আগে যা ছিল এখনও তাই আছে বলেও জানান তিনি।
শান্তি নগর বাজারে দেখা গেছে, পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি। আলু ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি, শশা ৪০ টাকা কেজি, টমেটো ৩০ টাকা, শিম ৪০টাকা, করল্লা ৬০-৭০ টাকা কেজি, ফুলকপি ৩০ থেকে ৪০ টাকা পিস। দেড় কেজি ওজনের ইলিশ মাছ ১২০০ টাকা ধরে কেজি বিক্রি হচ্ছে। অন্যান্য মাছও স্বাভাবিক দামে বিক্রি হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন