ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লাইসেন্স বাতিলের দাবি আইইবি’র

হামলাকারী ঠিকাদার

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে : | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আহসান আলীকে তার সরকারি অফিস কক্ষে প্রবেশ করে স্থানীয় কয়েকজন ঠিকাদার ও তাদের সহযোগী কর্তৃক লাঞ্ছিত করার ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারসহ বিচার ও ঠিকাদারী লাইসেন্স বাতিলের দাবি জানিয়েছে প্রকৌশলীদের সংগঠন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন (আইইবি) কুমিল্লার নেতৃবৃন্দ। গতকাল শনিবার দুপুরে নগরীর শাকতলার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সংগঠনের কুমিল্লা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. রহমত উল্লাহ কবির বলেন, চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী কার্যালয়ে এক আদেশে দাউদকান্দি উপজেলা উপসহকারী প্রকৌশলী মো. আবদুল কাদেরকে বদলি করা হয়। বিধি মোতাবেক দাউদকান্দি উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আহসান আলী তাকে ছাড়পত্র প্রদান করেন। বিষয়টি জেনে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় কয়েকজন ঠিকাদার ও সঙ্গীয় লোকজন নিয়ে উপজেলা প্রকৌশলীর অফিস কক্ষে প্রবেশ করে উপসহকারী প্রকৌশলীকে কেনো ছাড়পত্র দেয়া হলো এ নিয়ে তার সাথে অশালীন আচরণ করে। এক পর্যায়ে তারা আহসান আলীর ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে অফিসের জিনিসপত্র ছুড়ে ফেলে এবং তাকে মারধর ও লাঞ্ছিত করে। পরে তাকে কক্ষে রেখে বাইরে থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে অবরুদ্ধ করে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে প্রায় ২ ঘণ্টা পর তিনি উদ্ধার হন। পরে ওই প্রকৌশলী হামলাকারীদের শনাক্ত ও বিচার দাবি করে দাউদকান্দি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। সংবাদ সম্মেলনে প্রকৌশলীর উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার ও বিচার দাবিসহ কর্মক্ষেত্রে নিরাপদ পরিবেশে দায়িত্ব পালনের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দাবি জানানো হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা প্রকৌশলীদের মধ্যে মীর ফজলে রাব্বী, অধির চন্দ্র মজুমদার, আবদুল মতিন, শাহ আলম, সাইফুল ইসলাম, সুমন তালুকদার, রায়হানুল আলম প্রমুখ।
এ বিষয়ে হামলা ও লাঞ্ছনার শিকার উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আহসান আলী বলেন, অনৈতিক দাবি পূরণ না করায় দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় কয়েকজন ঠিকাদার আমার উপর ক্ষুব্ধ ছিল। এরমধ্যে বদলির আদেশ পাওয়া উপসহকারী প্রকৌশলীকে ছাড়পত্র দেয়ায় ওই ঠিকাদাররা লোকজন নিয়ে সরকারি কার্যালয়ে প্রবেশ করে আমার উপর হামলা চালায়। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা অপপ্রচার চালায়। দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ওই প্রকৌশলীর দায়ের করা জিডির বিষয়ে তদন্ত চলছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন