ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

রিপাবলিকানদের বিভেদ বাড়ছে

মাস্ক পরেই সামরিক হাসপাতাল পরিদর্শনে যান ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০২০, ১২:৩২ এএম

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দলের মনোনয়ন গ্রহণের কয়েক সপ্তাহ আগেই, তার দল রিপাবলিকান পার্টির মধ্যে ফাটল আরও গভীর হচ্ছে। নভেম্বরের নির্বাচনের নিজেদের জেতার সম্ভাবনা বিবেচনা করার জন্য রিপাবলিকান সাংসদরা ট্রাম্পের প্রচারণা থেকে নিজেদেরকে দূরে রেখেছেন। বর্ণবাদী বক্তব্য ও কনফেডারেটের মূর্তি অপসারণ থেকে করোনা মহামারীর মধ্যে মাস্ক না পরা, পাশপাশি, আফগানিস্তানে নিযুক্ত মার্কিন সেনাদের উপর হামলায় মদদ দিচ্ছে রাশিয়া, এমন গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়া সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিতর্কিত হয়ে পড়েছে ট্রাম্প ও তার প্রশাসন। এর ফলে তার থেকে ক্রমবর্ধমানভাবে দূরে সরে যাচ্ছেন তার দলের সিনেটররা। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জন্য তার সাড়ে তিন বছরের মেয়াদে এটি একটি বিরল মুহ‚র্ত। ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় ট্রাম্প তার অভিশংসন এবং রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে সাবেক বিশেষ পরামর্শদাতা রবার্ট মুলারের তদন্তের মতো ইস্যুতে দলের ঐক্যকে ব্যবহার করেই ক্ষমতায় টিকে ছিলেন। এ বিষয়ে রিপাবলিকান পার্টির কৌশলবিদ এবং মার্কো রুবিও ও আর-ফ্লার সাবেক সহযোগী অ্যালেক্স কোন্যান্ট বলেছেন, ‘এই নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট ও তার দলের মধ্যে সত্যিকারের মতভেদ রয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি যে অনেক রিপাবলিকানই প্রেসিডেন্টের বিভাজনমূলক কৌশল নিয়ে বিরক্ত হয়েছেন। জনগণ প্রেসিডেন্টের মুখের কথায় আর ভরসা করছে না। এটি কেবল তার নিজের জন্য নয়, সিনেটে আধিপত্য ধরে রাখার জন্যও ক্ষতিকর। ইউএসএ টুডে এখর যানায়। অপরদিকে, করোনাভাইরাস মহামারি শুরু হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে মাস্ক পরেছেন। শনিবার ওয়াশিংটনের বাইরে ওয়াল্টার রিড সামরিক হাসপাতাল পরিদর্শনে যান ট্রাম্প। সেখানে তিনি মাস্ক পরিহিত অবস্থায় আহত সৈনিক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ইতোপ‚র্বে একাধিক বার ট্রাম্প বলেছিলেন, তিনি মাস্ক পরবেন না। এমনকি মাস্ক পরার জন্য ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্ব›দ্বী জো বাইডেনকে নিয়েও ব্যাঙ্গ করেছেন তিনি। তবে শনিবার আগের অবস্থান থেকে কিছুটা সরে আসেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘আমি বরাবরই মাস্কের বিরুদ্ধে। কিন্তু আমার মতে, এটা পরার জন্য একটা নির্দিষ্ট সময় ও স্থান রয়েছে। যখন আপনি হাসপাতালে থাকবেন, বিশেষ করে এ রকম নির্দিষ্ট অংশে, যখন আপনার অনেক সৈনিক ও মানুষজনের সঙ্গে কথা বলতে হবে, যাদের কেউ কেউ মাত্রই অপারেশন টেবিল থেকে ফিরেছেন, তখন মাস্ক পরা খুব ভালো একটা ব্যাপার।’ ইউএসএ টুডে বিবিসি।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন