ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

‘দিরিলিস আরতুগ্রুল’ নিয়ে সামাজিক গণমাধ্যমে বাংলাদেশী তরুণদের ক্রেজ

শাহেদ নুর | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২০, ৬:২৭ পিএম

জনপ্রিয় তুর্কি সিরিয়াল ‘দিরিলিস : আরতুগ্রুল’। উসমানিয়া খিলাফতের প্রতিষ্ঠাতা প্রথম উসমানের পিতা আরতুগ্রুলের কাহিনী নিয়ে নির্মিত পাঁচ সিজনেরর এই সিরিজটি ইতোমধ্যেই ইউরোপ, আমেরিকাসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। ইউটিউবে গড়েছে নতুন রেকর্ড। বাংলায় ডাবিং করে দেশের মাছরাঙ্গা টেলিভিশনে দু’টি সিজন প্রচারিত হওয়ার পর এটি বন্ধ হয়ে যায়। এরপর বাকি সিজনগুলো বাংলায় সাবটাইটেল করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সহায়তায় দেখা শুরু করে দেশের তরুণরা। যা এখন ক্রেজে পরিণত হয়েছে।

গত রমজানে পাকিস্তানে উর্দু ভাষায় ডাবিং করে পিটিভিতে দেখানো শুরু হয়। রমজানের প্রথমদিনে পাকিস্তানে শুরু হওয়া ‘দিরিলিস : আরতুগ্রুল’ দর্শকদের বেশ ভালোভাবেই মোহিত করতে সক্ষম হয়েছে। বিশেষ করে নায়কের সাহসিকতা, গল্পের ধরণ, উচ্চ মানের সূচনা দিন দিন দর্শকদের মাতিয়ে রেখেছে।

পাকিস্তান ছাড়াও আমেরিকা, ব্রিটেন, ইউরোপ ও এশিয়ায় সিরিয়ালটি ব্যাপক প্রসংশা কুড়িয়েছে। যা এখন মুসলিম বিশ্বের জন্য এক রোল মডেল হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই সিরিয়ালটির বেশ কিছু চরিত্রে বিভিন্ন উক্তি ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। উল্লেখযোগ্য উক্তিগুলোর মধ্যে রয়েছে-
‘মুসলমানদের এক ফোটা রক্তের জন্য আমরা পুরো পৃথিবী জ্বালিয়ে দেবো’ - গুন্দুজ।
‘সত্য প্রতিষ্ঠার জন্য দরকার হলে আমি সারা পৃথিবীকে বিরক্ত করবো’- আরতুগ্রুল গাজী।
‘যার স্বপ্ন নেই, তার কোন ভবিষ্যতও নেই’ - আরতুগ্রুল গাজী।
‘তোমার খাবার যত বেশি ভাগাভাগি করে খাবে, এটা তত বেশি সুস্বাদ হবে। তোমার কষ্ট যত বেশি ভাগাভাগি করবে, এটা তত বেশি সহজ হবে’ - জান্দার বে।
‘প্রকৃত মানুষরাই কেবল চোখে চোখ রেখে কথা বলে’ - - আরতুগ্রুল গাজী।

বাংলাদেশী তরুণ সাইফুল ইসলামের মতে, ‘জনপ্রিয়তায় বিশ্বের সব সিরিজকে ছাড়িয়ে গেছে দিরিলিজ আরতুগ্রুল।’

সিরিজটি সম্পর্কে গাজী শামসুর রহমান লিখেন, ‘এই সিরিজে ইসলাম কি এবং এই ইসলামের জন্য কত শহীদদের রক্ত ঝরছে, তার জলন্ত প্রমাণ ফুটে উঠেছে। সাথে সাথে অনেক সত্য কথা বলার মানুষ তৈরি হয়েছে ও ঈমান আরও মজবুত হয়েছে। দোয়া করি যাদের প্রচেষ্টায় এই সুন্দর সিরিয়াল তৈরি করা হয়েছে, তাদের সবাইকে মহান আল্লাহ পাক ভালো রাখুন এবং হেফাজত করুন। আমীন।’

‘শুধু একটা ইতিহাস দেখেই আমাদের ঈমান বৃদ্ধি এবং আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ করার ইচ্ছা হচ্ছে। তাহলে বাকি মুসলিম বীর পুরুষদের ইতিহাস জানলে কী হতে পারে?’ - এমডি রাকেশ আলীর মন্তব্য।

বাংলায় যারা ডাবিং করেছে তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে ইমরান হোসেন ফেইসবুক গ্রুপে লিখেন, ‘দিরিলিস আর্তুগ্রুল দেখে শেষ করলাম । যারা কষ্ট করে বাংলা অনুবাদ করার মাধ্যমে আমাদেরকে দেখার সুযোগ করে দিয়েছেন সেই সকল বীমদেরকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ।’

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তরুণদের মধ্যে ইসলামী সংস্কৃতি ও মূল্যবোধ বাড়ানোর লক্ষ্যে এই সিরিয়াল সম্প্রচারের বিশেষ নির্দেশনা জারি করেছেন। এ প্রসঙ্গে কাওসার আহমেদ লিখেন, ‘বাংলাদেশেও যদি এরকম নির্দেশনা জারি করা হতো, তাহলে অনেক ভালো হতো।

এমডি শামিম হোসেনের দাবি, ‘দিরিলিস আরতুগ্রুল যা শিক্ষা দিতে পারবে, পৃথিবীর আর কোন মুভি তা শিক্ষা দিতে পারবে না।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
SHAKIL AHMED ১৭ আগস্ট, ২০২০, ৯:৪৮ পিএম says : 0
আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সিরিয়াল হচ্ছে দিরিলিস আর্তগোল আমি চাই এই সিরিয়াল সিজন 3 4 5 সিরিয়াল আছে বা আসবে সব বাংলা ভাষায় অনুবাদ করা হোক এই সিরিয়াল দেখে আমার মনে হচ্ছে যে আমি ইসলামের জন্য জিহাদ করতে যদি আমি আর্তগোল এর মত যদি নেতা পেতাম তাহলে ইনশাল্লাহ আমি ইসলামের জন্য যুদ্ধ করতাম
Total Reply(0)
Shakil ahmed ১৮ আগস্ট, ২০২০, ১২:৪১ এএম says : 0
আমার মনে হয় পৃথিবীতে দুই ধরনের মানুষ বাস করে ১| যারা দিরিলিস দেখেছে ২| যারা দিরিলিস দেখে নাই দুর্ভাগা তারা যারা এখনো দিরিলিস দেখে নাই উহহ কি দুঃসাহসিক এক ঐতিহাসিক কাহিনী আমার রাতের ঘুম হারাম করে দিয়েছিল এই সিরিজ, পুরো ৫ সিজনের প্রতিটি এপিসোড একটা আরেকটার চাইতে মজার
Total Reply(0)
Md. Saidur Rahman ১৮ আগস্ট, ২০২০, ১২:০০ পিএম says : 0
Wow, Fantastic presentation. Thanks The Daily Inqilab.
Total Reply(0)
Rayhan Raju ১৮ আগস্ট, ২০২০, ৬:৩৩ পিএম says : 0
এই মুভি বাংলাদেশের চ্যালেনে প্রথম থেকে শুরু করা ইউক
Total Reply(0)
Khandakar Jawad Ahmed ১৮ আগস্ট, ২০২০, ১১:৪৩ পিএম says : 0
আমার দেখা পৃথিবীর সবথেকে উন্নত মানের ড্রামা সিরিজ হচ্ছে এই দিরিলিস আর্তুগ্রুল। আমি এই সিরিজটা উর্দু ভাষায় ডাব করাটা নিয়মিত দেখে থাকি। পাকিস্তান সরকারের মতো যদি বাংলাদেশ সরকার এরকম আদেশ করতো যে এই সিরিজটি বাংলাদেশের সরকারি ভাবে দেখানো হবে তাহলে বেশ ভালো হতো। তবে যাই হোক না কেন আমাদের বাংলার ইতিহাসে এরকম অনেক বীর গাজী আছে যাদেরকে নিয়ে আমরা সুন্দরভাবে চলচ্চিত্র বানাতে পারি। আমরা আমাদের গৌরবের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারি, এবং পরবর্তী প্রজন্মকে জানাতে পারি আর সেই বন্দোবস্ত করতে হবে।
Total Reply(0)
md Rana mia ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:১৩ এএম says : 0
অসাধারণ। বাংলাদেশি যুবকদের মাঝে ইসলামের গুরুত্ববহন করবে এই সিরিজ। ইনশাল্লাহ
Total Reply(0)
হাসানুর রহমান ২৬ অক্টোবর, ২০২০, ১:২০ পিএম says : 0
আমার জীবনে দেখা শ্রেষ্ঠ টিভি সিরিজ দিরিলিস আর্তুগ্রুল
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন