ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ২ মাস পর কবর থেকে যুবকের লাশ উত্তোলন

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:৫১ পিএম

শেরপুরের নালিতাবাড়ীর রাজনগর ইউনিয়নের বুড়ুডুবি গ্রামের এক যুবকের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। গত ১৬ জুলাই উসমান আলী তার বাড়ির পাশে গোয়াল ঘরে গরু দেখতে যায়। ঐদিন আনুমানিক রাত ৯ টার সময় মৃত ব্যক্তির বড় ভাই মনীর হোসেন গোয়াল ঘরের কাছে গেলে দেখতে পায় যে উসমান তার গোয়াল ঘরের সামনে পরে আছে। তারপর চিৎকার চেচামেচিতে স্বজনরা তাকে শেরপুর সদর হাসপাতালের নিয়ে যায় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক উসমানকে মৃত ঘোষনা করেন। পরের দিন ১৭ জুলাই সকালে লাশ দাফন কাফন সম্পন্ন করা হয়। ঘটনার ১ মাস পর মৃত উসমানের ভাই আছিমুদ্দিন (৩৮) ধারানা করে যে তার ভাইকে খুন করা হয়েছে। পূর্বের জমি-জমা ও পারিবারিক শত্রুতা জের ধরে এমন ঘটনা ঘটেছে সন্দেহে মৃত্যের ভাই শেরপুর কোর্টে মামলা দায়ের করে। মিষ্টার আলী (৩০), রাকিব উরফে ডিপজল (২০), সিদ্দিক মিয়া (৩৫), সাইফুল (৪৫) এর নামে আদালতের আদেশে নালিতাবাড়ি থানায় হত্যা মামলা রুজু হয়।

বাদীর আবেদনের প্রেক্ষিতে আজ ২১ সেপ্টেম্বর সোমবার কবর থেকে লাশ উত্তলোন করেন মামলার তদন্তাকারী কর্মকর্তা, নালিতাবাড়ি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ জুবায়ের হোসেন । তিনি বলেন, মামলাটির সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে লাশের ময়না তদন্ত করার জন্য বিজ্ঞ আদলতের আদেশ মোতাবেক একজন বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মৃতের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছ। ময়না তদন্ত রিপোর্ট আসলে বলা যাবে আসলে কি কারনে উসমানের মৃত্যু হয়েছিল।
এসময় ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান বলেন, মৃত্যের ভাই আছিমুদ্দিন বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করে। সেই প্রেক্ষিতেই আদালতের নির্দেশে আজ মৃত উসমানের লাশ উত্তলোন করা হয়েছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট আসলে বলা যাবে এটা কি স্বাভাবিক মৃত্যু নাকি খুন।
এসময় সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলম, এসআই আশিকুর রহমান, এসআই ওয়াহেদ আলী, এসআই ইমান আলী, এস আই শাহীন, এসআই ইউসুফ, এসআই আলমগীর ও উৎসুক স্থানীয় শতাধিক জনতা উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন