ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় গ্লোবের ভ্যাকসিন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক আবিষ্কৃত করোনাভাইরাস প্রতিষেধক বা ভ্যাকসিন ‘ব্যানকোভিড’কে তালিকাভুক্ত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান হিসাবে তাদের আবিষ্কৃত সর্বোচ্চ তিনটি ভ্যকাসিনের নাম এই তালিকায় রয়েছে। গতকাল সংস্থার ওয়েবসাইটে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে যৌথভাবে এই তথ্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছে গ্লোব বায়োটেক লি.-এর চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশীদ ও সিইও ড. কাকন নাগ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৫ অক্টোবর গ্লোব বায়োটেকের আবিষ্কৃত তিনটি ভ্যাকসিনকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে। ভ্যাকসিনগুলো হচ্ছে- ডি ৬১৪জি ভিএআরআইইএনটি এমআরএনএ ভ্যাকসিন, ডিএনএ প্লাসমিড ভ্যকাসিন এবং এ্যডিনোভাইরাস টাইপ-৫ ভেক্টর ভ্যাকসিন। তারা বলেন, গ্লোব বায়োটেক-ই বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান যাদের সর্বোচ্চ তিনটি ভ্যকাসিনের নাম এই তালিকায় রয়েছে।

গ্লোব বায়োটেকের রিসার্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমেন্টের প্রধান ডা. আসিফ মাহমুদ গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকারে ডিসেম্বরের বাংলাদেশের বাজারে করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে আসার ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন। তার এই আশাবাদ প্রকাশের পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রি-ক্লিনিক্যাল টেস্টের তালিকাভুক্ত করলো। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রি-ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তালিকায় ইউনিভার্সিটি অব ক্যামব্রিজের ভ্যাকসিনসহ ১৫৬টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বজুড়ে গবেষকেরা একটি ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে ছুটছেন। এর মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৪০টির বেশি ভ্যাকসিনের ওপর নজর রাখছে। ভ্যাকসিন তৈরি ও পরীক্ষা করতে সাধারণত বেশ কয়েক বছর সময় লাগে। বেশ কয়েকটি ধাপ পেরিয়ে তবেই ভ্যাকসিন ব্যবহারের উপযোগী হয়। তবে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে জরুরী অবস্থা বিবেচনা করে গবেষকেরা ১২ থেকে ১৮ মাসের মধ্যেই তা সম্পন্ন করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

এর আগে গত ৫ অক্টোবর এক সংবাদ সম্মেলনে গ্লোব বায়োটেক এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, তারা সফলভাবে প্রাণীদেহে তাদের ট্রায়াল সম্পন্ন করেছে। এখন হিউম্যান ট্রায়ালে যওয়ার জন্য প্রস্তুত। সেদিন প্রতিষ্ঠানে চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশিদ জানান, সব ঠিকঠাক থাকলে, সরকারের সার্বিক সহযোগিতা পেলে আগামী ডিসেম্বরের শেষে অথবা জানুয়ারির শুরুতে বাজারে আসবে।

এর আগে গত ২ জুলাই দেশের প্রথম ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে গ্লোব তাদের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের ঘোষণা দিয়ে জানায়, গত ৮ মার্চ থেকেই তারা এই টিকা আবিষ্কারের কাজ শুরু করেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
মোহাম্মদ জাকির হোসেন ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৬ এএম says : 0
সফল হলে ধন্যবাদ। বাজারে কম দামে ছাড়ার অনুরোধ রইলো।
Total Reply(0)
Aftab uddin Ahmed ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ৪:২৫ এএম says : 0
Good luck
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন